Alexa

প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক নিয়ােগ পরীক্ষা : জেনে রাখা জরুরি

প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক নিয়ােগ পরীক্ষা : জেনে রাখা জরুরি

ছবি : সংগৃহীত

২৪ মে থেকে শুরু হচ্ছে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের রাজস্বখাতভুক্ত সহকারী শিক্ষক নিয়ােগ পরীক্ষা। চার ধাপে সারাদেশে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

ইতিমধ্যে অনলাইনে প্রবেশপত্র ডাউনলোড প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। প্রত্যেক জেলার প্রার্থীরা নিজ জেলার পরীক্ষার পাঁচ দিন আগে থেকে প্রবেশপত্র ডাউনলোড করতে পারবেন।

পরীক্ষার্থীদের জন্য নির্দেশাবলী প্রকাশ করেছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর। প্রত্যেক পরীক্ষার্থীর জন্য পরীক্ষার নিয়মকানুন জেনে রাখা জরুরী। পরীক্ষা হলে অবশ্যই নির্দেশনা অনুসরণ করে ওএমআর শিট পূরণ করতে হবে।

  • * পরীক্ষার সময় ১ ঘন্টা (৬০ মিনিট)। 
  • * পরীক্ষার পূর্ণমান ৮০ নম্বর। পরীক্ষা হবে নৈর্ব্যক্তিক (এমসিকিউ) পদ্ধতিতে। ৮০টি প্রশ্ন থাকবে। প্রতি প্রশ্নের জন্যে সঠিক উত্তরের জন্য ১ নম্বর পাওয়া যাবে। প্রতিটি ভুল উত্তরের জন্য ০.২৫ নম্বর কাটা যাবে।
  • * ওএমআর শিটের উপরের অংশে সাল লেখার জন্য চারটি ঘর সম্বলিত ছক থাকবে। এই ছকের দুটি সংখ্যা (২০) লেখা থাকবে। বাকী ১৯ সংখ্যাটি পরীক্ষার্থীকে লিখে সালের ঘর পূরণ করতে হবে। সম্পূর্ণ সংখ্যাটি হবে ২০১৯। 
  • * ওএমআর শিটের বৃত্তাকার ঘরগুলাে অবশ্যই কালাে কালির বল পয়েন্ট কলম দ্বারা ভরাট করতে হবে। ওএমআর শিট পেন্সিল দ্বারা পূরণ করে পরবর্তীতে কালাে কালির বল পয়েন্ট কলম দ্বারা ভরাট করা যাবে না। উত্তরপত্র পেন্সিলে বৃত্ত ভরাট বা লেখা অথবা ফাঁকা রাখলে উত্তরপত্রটি বাতিল বলে গণ্য হবে। বৃত্তাকার ঘরগুলাে পূর্ণভাবে ভরাট করতে হবে।
  • * পরীক্ষা হলে প্রত্যেক প্রার্থীকে আলাদাভাবে একটি করে ওএমআর শিট ও প্রশ্নপত্র সরবরাহ করা হবে। প্রার্থী অবশ্যই নৈর্ব্যক্তিক প্রশ্নের উত্তরের জন্য সরবরাহকৃত ওএমআর শিটটি ব্যবহার করবেন। ওএমআর শিট পরিবর্তন করা যাবে না।
  • * নৈর্ব্যক্তিক প্রশ্নের উত্তর দেয়ার পূর্বে প্রশ্নটি ভালভাবে পড়ে ওএমআর শিটের সংশ্লিষ্ট প্রশ্নের ডানদিকের একটি মাত্র বৃত্তাকার ঘর ভরাট করতে হবে। কোন প্রশ্নের উত্তর ভুল হলে তা কেটে অন্য কোন ঘর ভরাট করা যাবে না। একই প্রশ্নের উত্তরে একাধিক বৃত্তাকার ঘর পূরণ/দাগ দেয়া হলে সংশ্লিষ্ট প্রশ্নোত্তর বাতিল বলে গণ্য হবে। ওএমআর শিটটি কোন অবস্থাতেই ভাঁজ করা যাবে না। পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন ও ভাঁজহীন উত্তরপত্র মেশিনে মূল্যায়নের জন্য অপরিহার্য। নির্ধারিত ঘর বাদে অন্য কোন জায়গায় কোনরূপ দাগ/চিহ্ন দেয়া যাবে না। এতে উত্তরপত্র বাতিল হতে পারে।
  • * ওএমআর শিটে রােল নম্বরের ঘর পূরণ করার সময় রােল নম্বরের নিচের বৃত্তাকার ঘরগুলিতে সঠিক সংখ্যা কালাে কালির বল-পয়েন্ট কলম দ্বারা পূর্ণভাবে ভরাট করতে হবে। রােল নম্বরের ঘর ভরাট করার সময় অব্যশই প্রথমে একক, তারপর দশক, তারপর শতক এই ক্রম অনুসরণ করে রােল নম্বর-এর ঘর ভরাট করতে হবে। তাছাড়া প্রার্থীর নাম, পিতার নাম, মাতার নাম ও জেলার নাম নিজ হাতে পূরণ করে প্রার্থীর স্বাক্ষরের ঘরে স্বাক্ষর করতে হবে।
  • * ওএমআর শিটে পরীক্ষার্থীর পুরুষ/মহিলা পূরণ করার ব্যবস্থা থাকবে। পরীক্ষার্থী পুরুষ হলে পুরুষের বাম দিকের ঘর এবং মহিলা হলে মহিলার বাম দিকের ঘরটি কালাে কালির বলপয়েন্ট কলম দ্বারা ভরাট করতে হবে।
  • * হাজিরা শিটে প্রার্থীর নাম, রােল নম্বর, প্রার্থীর স্বাক্ষরের জায়গা, উপস্থিতি নিশ্চিতকরণের বৃত্ত, ওএমআর শিটের সেট কোড, প্রশ্নপত্রের সেট কোড লেখার জায়গা ও কক্ষ পরিদর্শকের স্বাক্ষরের জায়গা থাকবে। প্রার্থীকে প্রশ্নপত্রের সেট কোড লিখে স্বাক্ষর করতে হবে। একই সাথে প্রার্থীকে হাজিরা শিটের উপস্থিতি বৃত্তটি ভরাট করতে হবে। অনলাইনে আপলােডকৃত আবেদনপত্রের প্রার্থীর স্বাক্ষরের সাথে হাজিরা শিটের স্বাক্ষরের মিল থাকতে হবে।
  • * এবারের পরীক্ষায় ওএমআর ফরমে সেট কোডসমূহ পূর্ব-পূরণকৃত অবস্থায় থাকবে। পরীক্ষার্থীকে কোন সেট কোডের ওএমআর ফরম দেয়া হবে তা এই প্রবেশপত্রে স্বাক্ষরের নীচে উল্লেখ করা আছে এবং পরীক্ষার্থীকে পরীক্ষা হলে যে ওএমআর ফরমটি দেয়া হবে। তাতে সেই সেট কোডটি পূর্বে-পূরণকৃত অবস্থায় আছে কি না তা দেখে নিবে।
  • * এবারের পরীক্ষায় প্রশ্ন পত্রের সেট কোডসমূহ এবং ওএমআর ফরমের সেট কোড ভিন্ন হবে। পরীক্ষার্থী ওএমআর সেট কোড এর বিপরীতে কোন সেট কোডের প্রশ্ন পাবে তা পরীক্ষা শুরু হওয়ার ১৫ মিনিট আগে কক্ষ পরিদর্শক জানিয়ে দিবেন। পরীক্ষার্থী ঠিক কোডের প্রশ্নটি পেলেন কী না তা নিশ্চিত হয়ে নিতে হবে। 
  • * প্রবেশপত্রে নির্ধারিত ওএমআর-এর সেট কোডের বিপরীতে প্রশ্নের যে সেট কোড ব্যতীত অন্য সেট কোডে পরীক্ষা দিলে উত্তরপত্রটি বাতিল বলে গণ্য হবে। 
  • * প্রবেশপত্র ছাড়া কোন পরীক্ষার্থীকে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে দেয়া হবে না। 
  • * পরীক্ষা কেন্দ্রে কোন বই, উত্তরপত্র, নােট বা অন্য কোন কাগজপত্র, ক্যালকুলেটর, মােবাইল ফোন, ভ্যানিটি ব্যাগ, পার্স, হাত ঘড়ি বা ঘড়ি জাতীয় বস্তু, ইলেকট্রনিক্স হাত ঘড়ি বা যে কোন ধরণের ইলেকট্রনিক্স ডিভাইস বা এজাতীয় কিছু সঙ্গে নিয়ে প্রবেশ করা বা সঙ্গে রাখা সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ। যদি কোন পরীক্ষার্থী উল্লিখিত দ্রব্যাদি সঙ্গে নিয়ে পরীক্ষা কেন্দ্রে প্রবেশ করে তাকে তাৎক্ষণিক বহিষ্কার করাসহ আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আপনার মতামত লিখুন :