Alexa

জুনাইদের হার্টে ছিদ্র, চিকিৎসা করাতে পারছে না বাবা

জুনাইদের হার্টে ছিদ্র, চিকিৎসা করাতে পারছে না বাবা

শিশু জুনাইদ। ছবি: সংগৃহীত

জুনাইদ হোসেন, বয়স ১৪ মাস। জন্মের পর থেকে সে অসুস্থ। তার হার্টে একটি ছিদ্র রয়েছে। গত কয়েক দিন ধরে সে আরও অসুস্থ হয়ে পড়েছে। সদা হাসিখুশি থাকা শিশুটি এখন নিস্তেজ অবস্থায় বিছানায় শুয়ে থাকে। পূর্বের মতো খেলাধুলা করতে পারে না। শিশুটির অসুস্থতায় তার বাবা-মা কান্নায় ভেঙে পড়েছেন। তবে চিকিৎসক জানিয়েছেন, ৩-৪ মাসে মধ্যে জুনাইদের অপারেশন করতে পারলে সে সুস্থ হয়ে উঠবে।

তার বাবা কামরুল ইসলাম একজন নির্মাণ শ্রমিক। তিনি লক্ষ্মীপুর পৌরসভার সমসেরাবাদ এলাকার বাসিন্দা। ছেলের চিকিৎসার খরচ চালানো তার পক্ষে সম্ভব হচ্ছে না।

এদিকে শিশুটির অপারেশনের জন্য প্রায় ২ লাখ ৫০ হাজার টাকার প্রয়োজন। যা কোনো ভাবেই ম্যানেজ করা সম্ভব হচ্ছে না জুনাইদের বাবা-মায়ের পক্ষে। তাই ছেলেকে বাঁচাতে সরকার ও সমাজের বিত্তবানসহ সর্বস্তরের মানুষের কাছে আর্থিক সহযোগিতা চেয়েছেন তারা।

জানা গেছে, জুনাইদ জন্মের পর থেকে অসুস্থ। অসুখ বেড়ে গেলে গত মাসে তাকে লক্ষ্মীপুর মিলেনিয়াম হাসপাতালের শিশু বিশেষজ্ঞ নুরুল ইসলামের কাছে নেওয়া হয়। তখন উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকায় নিয়ে যাওয়ার জন্য পরামর্শ দেন তিনি। গত ৬ নভেম্বর তাকে ঢাকার আনোয়ার খান মডার্ন হাসপাতালে নেওয়া হলে বিভিন্ন পরীক্ষা নিরীক্ষা করতে দেওয়া হয়। এতে জুনাইদের হার্টে ছিদ্র রয়েছে বলে জানান চিকিৎসক। জুনাইদ ঢাকার ওই হাসপাতালে চিকিৎসক অধ্যাপক এস কে এ রাজ্জাকের অধীনে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

জুনাইদকে বাঁচাতে আর্থিক সহযোগিতা চেয়ে তার বাবা কামরুল ইসলাম বলেন,‘চিকিৎসক বলেছে তার হার্টে ছিদ্র রয়েছে। আগামী ৩-৪ মাসের মধ্যে অপারেশন করতে হবে। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন এতে প্রায় ২ লাখ ৫০ হাজার টাকার মতো খরচ হবে। এতো টাকা খরচ করা আমার পক্ষে সম্ভব নয়। আমার ছেলেটিকে বাঁচাতে সরকার ও সমাজের বিত্তবানসহ সর্বস্তরের মানুষের কাছে আর্থিক সহযোগিতা চাচ্ছি।’

সহযোগিতা পাঠাতে জুনাইদের বাবা কামরুল ইসলামের মোবাইল নাম্বার হল- ০১৭৩৬৪০১০৯০ (বিকাশ ব্যক্তিগত)।