Alexa

নারীর প্রতি সহিংসতার প্রতিবাদ হোক মঙ্গল শোভাযাত্রা

নারীর প্রতি সহিংসতার প্রতিবাদ হোক মঙ্গল শোভাযাত্রা

মঙ্গল শোভাযাত্রা/ছবি: মেহেদী হাসান, বার্তা২৪.কম

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম

ঢাকা: বৈশাখের প্রথম দিন আজ। শুভ নববর্ষ। ‘চৈত্র পবনে/মম চিত্ত বনে’ চৈত্র সংক্রান্তি পালন করে কাল বৈশাখীর হুমকি মাথায় রেখে ধরাধামে বৈশাখের আগমনে মুখরিত বাঙালি জাতি। বৈশাখকে স্বাগত জানাতে সকাল থেকেই রাজপথে নেমে এসেছে রাজধানীবাসী।

রাজধানীর বৈশাখ উদযাপনের মূল আকর্ষণ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের আয়োজনে মঙ্গল শোভাযাত্রা। ছায়ানটের ও এর আশেপাশের এলাকায়।

পহেলা বৈশাখ (১৪ এপ্রিল, রোববার) সকাল ৯টায় চারুকলার সামনে থেকে শুরু হয়ে শাহবাগ মোড় ঘুরে শিশুপার্কের সামনে দিয়ে আবার চারুকলায় এসে শেষ হয় মঙ্গল শোভাযাত্রা।

সকাল থেকে সরেজমিন ওই এলাকা ঘুরে দেখা যায়, রং বেরংয়ের পোশাক পড়ে, ছেলেরা মাথায় গামছা বেঁধে, মেয়েরা খোপায় ফুল দিয়ে বৈশাখকে স্বাগত জানাতে নেমে এসেছেন। নারী-পুরুষ, শিশু-কিশোর, তরুণ-তরুণী, দেশি-বিদেশি কে নেই এই পদযাত্রায়। মানুষের পদচারণায় জমজমাট ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি, সোহরাওয়ার্দী উদ্যান, রমনা পার্ক এলাকা।

পহেলা বৈশাখের মঙ্গল শোভাযাত্রাকে নির্বিঘ্ন করতে সড়কে যানবাহন চলাচল নিয়ন্ত্রণ করা হয়েছে। শেরাটন হোটেল, মিন্টু রোড, কাকড়াইল মোড়, হাইকোর্ট চত্বর, পলাশী, নীলক্ষেতে মোড়, কাটাবন মোড় গোটা এলাকায় যান চলাচল বন্ধ আছে। হেঁটেই অবিশ্রান্ত ঘুরে বেড়াচ্ছেন সবাই।

নিজেদের সেরা মুহূর্তগুলো মোবাইল ফোনের ক্যামেরায় সেলফি তুলে আবদ্ধ করতেও দেখা যায় অনেককে। অনেকে গালে, কপালে, হাতে রং তুলির আঁচড়ে আলপনা আকাচ্ছেন। কেউ লিখিয়েছেন ‘শুভ নববর্ষ-১৪২৬’।

মানুষের আগমনকে কেন্দ্র করে নানা পণ্যের পসরা সাজিয়ে বসেছেন দোকানিরা। টিএসসির সড়কগুলোতে যেমন মানুষের আনাগোনা আছে তেমনি জমে উঠেছে সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ও রমনা পার্ক এলাকাও। রাস্তায় খই-মুড়ি-মুরকির দোকান, রং বেরঙের কাচের চুড়ি, নিত্যব্যবহার্য পণ্যও মিলছে। শিশু-কিশোরদের মূল আকর্ষণ নাগরদোলা, দোলনা। লাইনে দাঁড়িয়ে তারা সোহরাওয়ার্দী ও রমনা উদ্যানে ঢুকছে।

মঙ্গল শোভাযাত্রায় অংশ নিতে আসা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি দলের সঙ্গে কথা হয় টিএসসিতে। তারা বার্তা২৪.কমকে বলেন, পহেলা বৈশাখ আমাদের বাঙালি সংস্কৃতির অবিচ্ছেদ্য অংশ। প্রতিবারই পহেলা বৈশাখ আমাদের কাছে নতুনের আগমনী বার্তা নিয়ে আসে। এবারও এসেছে। এ যেন আমাদের সমাজের সব অন্যায়-অবিচারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করতে শেখায়।

ব্যাংক কর্মকর্তা শিরিন আক্তার ধানমন্ডি থেকে এসেছেন সপরিবারে। তিনি বার্তা২৪.কমকে বলেন, পহেলা বৈশাখের ঠিক আগেই আমরা নুসরাতে ঘটনা দেখলাম। আমাদের এ সমাজে নারীদের অবস্থা কতো নাজুক হতে পারে সেটিই দেখিয়ে দিয়েছে এ ঘটনা। নারীর প্রতি সহিংসতার বিরুদ্ধে প্রতীক হয়ে উঠুক মঙ্গল শোভাযাত্রা।

জাতীয় এর আরও খবর