Barta24

শনিবার, ১৭ আগস্ট ২০১৯, ২ ভাদ্র ১৪২৬

English

গ্র্যাজুয়েট হলো জিপি অ্যাকসেলেরেটরের পঞ্চম ব্যাচের স্টার্টআপগুলো

গ্র্যাজুয়েট হলো জিপি অ্যাকসেলেরেটরের পঞ্চম ব্যাচের স্টার্টআপগুলো
ছবি: সংগৃহীত
সেন্ট্রাল ডেস্ক
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক বিনিয়োগকারীদের উপস্থিতিতে জিপি অ্যাকসেলেরেটরের পঞ্চম ব্যাচ গত ১৭ সেপ্টেম্বর নিজেদের ধারণার উপস্থাপন করেছে।

জিপি হাউজে অনুষ্ঠিত এই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, এই উদ্যোগ সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশ রূপকল্পকে সমর্থন দেয় এবং আমি জিপি এক্সেলেরেটরে অংশগ্রহণকারীদের কাছ থেকে জানতে পেরেছি  যে তারা চলতি পথে পার্কিং এর স্থান খুঁজে বের করার সমস্যা সমাধানে কাজ করছে যা  আমাকে আনন্দিত করেছে।"

বিগত তিন বছরে গ্রামীণফোন একসেলেরেটর কর্মসূচীর অগ্রগতি এবং অংশগ্রহণকারী স্টার্টআপগুলোর ক্রমবর্ধমান মাননিয়ে গ্রামীণফোনের সিইও মাইকেল ফোলি বলেন," এই প্ল্যাটফর্ম বাংলাদেশে একটি শক্তিশালী স্টার্টআপ ইকো সিস্টেম গড়ে তুলেছে এবং দ্রুত দেশের সবচেয়ে আকর্ষণীয় মেন্টশিপ কর্মসূচীতে পরিণত হয়েছে।

জিপি অ্যাকসেলেরেটর একটি উদ্ভাবনী প্ল্যাটফর্ম যা স্টার্টআপগুলোকে আন্তর্জাতিক ও স্থানীয় প্রশিক্ষকদের সঙ্গে চার মাস মেয়াদী মেন্টরশিপ কর্মসূচির সুযোগ করে দেয়। নির্বাচিত স্টার্টআপরা ৮ শতাংশ ইক্যুইটির বিপরীতে সিডফান্ডিং হিসেবে পায় ১৫ হাজার মার্কিন ডলার। এছাড়াও, স্টার্টআপগুলো ১১ হাজার ২শ’ মার্কিন ডলার সমমূল্যের অ্যামাজন ওয়েব সার্ভিস ক্রেডিট (এডব্লিউএস) ও জিপি হাউজে অফিস করার সুযোগ লাভ করে।

অনুষ্ঠানে গ্রামীণফোনের হেড অব ডিজিটাল সোলায়মান আলম গ্রামীণফোনের উদ্ভাবনী লক্ষ্য নিয়ে আলোচনা করেন। তিনি বলেন, ‘গ্রামীণফোন অ্যাকসেলেরেটরের রূপকল্প আর গ্রামীণফোনের রূপকল্প একই। আমরা এখানে, তরুণদের ক্ষমতায়নে সামাজিক, অর্থনৈতিক ও ভৌগোলিকভাবে সীমানা পেরিয়ে তাদের বহুদূর এগিয়ে নিয়ে যেতে কাজ করছি।’ 

আলাদা ও বৈচিত্র্যময় ডোমেইন ও শিল্পখাতে নিজেদের প্রবৃদ্ধি এবং সাধারণ মানুষ তাদের প্রাত্যহিক জীবনে যেসব সমস্যার মুখোমুখি হয় তার সমাধানে এ চারটি স্টার্টআপ কার্যকরিভাবে এগিয়েছে। স্টার্টআপগুলো হলো, সার্চ ইংলিশ, পার্কিং কই, সিওয়ার্ক, অনুকিট।

আপনার মতামত লিখুন :

বন্ধ হয়ে যাচ্ছে ফেসবুকের গ্রুপ চ্যাট সেবা

বন্ধ হয়ে যাচ্ছে ফেসবুকের গ্রুপ চ্যাট সেবা
ছবি: সংগৃহীত

বন্ধুদের সাথে ঘুরতে যাবার পরিকল্পনা বা আড্ডা, কিংবা অফিসে সহকর্মীদের মাঝে যোগাযোগ সহজ করতে গ্রুপ চ্যাটের জনপ্রিয়তা ছিল তুঙ্গে। এখন সেই সেবাকে ব্যক্তিগত তথ্যের নিরাপত্তার খাতিরে বন্ধ করতে যাচ্ছে ফেসবুক।

শনিবার (১৭ আগস্ট) কমিউনিটি লিডারশিপ সার্কেল ফ্রম ফেসবুক-এ প্রকাশিত এক পোস্টে উল্লেখ করা হয়, আগামী ২২ আগস্ট থেকে বন্ধ করে দেয়া হবে গ্রুপ ফিচার। এর ফলে তখন থেকে শুধু গ্রুপের পূর্বের চ্যাটগুলো পড়া যাবে।

পোস্টে আরও জানানো হয়, বর্তমানে ফেসবুকের যে কাঠামো তৈরি করা হয়েছে, তার সাথে গ্রুপ চ্যাট ফিচারটি যায় না বলে ফেসবুক এই সুবিধাটি বন্ধ করে দিতে যাচ্ছে। এছাড়াও ফেসবুক তার ব্যবহারকারীদের তথ্যের সুরক্ষা দিতেও বদ্ধ পরিকর।

তবে ফ্রেন্ডলিস্টে না থাকা বন্ধুদের সাথে গ্রুপ চ্যাট করা না গেলেও, ফ্রেন্ডলিস্টে থাকা বন্ধুদের সাথে গ্রুপ চ্যাট করা যাবে। তবে সেবার ধরণটি কী হতে পারে তা নিয়ে এখনই মুখ খুলছে না ফেসবুক।

কৃষক ইউটিউবারের আয় ৪ হাজার মার্কিন ডলার!

কৃষক ইউটিউবারের আয় ৪ হাজার মার্কিন ডলার!
দার্শান সিং, ছবি: সংগৃহীত

ভারতের দার্শান সিং নামের একজন ইউটিউবার তার চ্যানেলে কৃষি কাজের প্রয়োজনীয় তথ্য এবং বিভিন্ন টিপস দিয়ে বেশ জনপ্রিয়তা লাভ করেছে।

তার ভিডিওর মূল বিষয় হচ্ছে কৃষি সংক্রান্ত ভিডিও তৈরি করা। যদিও তিনি আদতে নন তবে অনেকেই তাকে এখন কৃষক ইউটিউবার বলেন। তার ভিডিওতে কৃষি কাজে কৃষকদের জন্য প্রয়োজনীয় বিষয়গুলোকে কেন্দ্র করে ভিডিও বানান।

দার্শান সিং বলেন, ‘ইউটিউব থেকে ব্যাপক অনেক সাড়া পেয়েছি। এখন যেখানেই যাই সবাই আমাকে কিভাবে যেন চিনে ফেলে। প্রায় সব জায়গাতেই মানুষের সঙ্গে দেখা হয় পরিচিত হই। নতুন নতুন মানুষের সঙ্গে পরিচিত হতে ভালোই লাগে।'

তিনি জানান, তার মূল লক্ষ্যই হচ্ছে এমন সব প্রয়োজনীয় তথ্য খুঁজে বের করতে যা কৃষকরা আগে জানতেন না। সেসব তথ্যকে কৃষকদের জন্য সহজভাবে তাদের কাছে তুলে ধরা।

তার ভিডিওর মধ্যে রয়েছে- কিভাবে একটি দুগ্ধ খামারের কার্যক্রম শুরু করবেন, কিভাবে জমিতে বীজ বপন করবেন, কিভাবে গবাদি পশুদের পরিচর্যা করেবন ইত্যাদি।
এছাড়া তিনি কৃষি কাজে ব্যবহৃত যন্ত্রপাতি নিয়েও রিভিউ করেন। কোন যন্ত্রটি কিভাবে ব্যবহৃত হবে, কি কি সুবিধা-অসুবিধা আছে সেগুলো কৃষকদের জানার স্বার্থে ভিডিওর মাধ্যমে তুলে ধরেন।

দার্শান জানান, শুরুর দিকে কোনো কোম্পানি তাকে পণ্য রিভিউর জন্য সুযোগ দিত না। কিন্তু যখন তার ভিডিওতে লাখ লাখ ভিউ হতে শুরু করে তখন বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান থেকে তাদের পণ্য রিভিউ করার জন্য।

গুরতান সিং নামের একজন কৃষক জানান, তিনি ইউটিউবে দার্শানের গবাদি পশু পালন বিষয়ের ভিডিও গুলো দেখে উপকৃত হয়েছেন। যা তাকে ছোট গবাদি পশু লালন-পালন সংক্রান্ত প্রয়োজনীয় তথ্য সম্পর্কে জানতে সাহায্য করেছে।

কনটেন্ট প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘মানুষ যখন আমাকে জিজ্ঞেস করে কিভাবে ভিডিওতে বেশি ভিউ পাওয়া যাবে, কিভাবে সাবস্ক্রাইবার বাড়াবো ইত্যাদি। কিন্তু আমি তাদের উদ্দেশে বলব, যদি আপনার কনটেন্ট ভাল হয় তাহলে মানুষ অবশ্যই দেখবে।’

দার্শানের ইউটিউবের চ্যানেলে সাবস্ক্রাইবার সংখ্যা ২০ লাখ। আর ইউটিউব চ্যানেল থেকে মাসে তিনি ৪০০০ মার্কিন ডলার আয় করেন। এখন তিনি একজন ফুল টাইম ইউটিউবার।

আরও পড়ুন: খাবার খেয়েই মাসে যার আয় কোটি টাকা

সূত্র: বিবিসি

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র