ফোল্ডিং ফোন নিয়ে স্যামসাংয়ের লুকোচুরি!

ফোল্ডিং ফোন নিয়ে স্যামসাংয়ের লুকোচুরি, ছবি: সংগৃহীত

সেই শুরু থেকেই ছিলো ফোল্ডিং ফোন নিয়ে স্যামসাংয়ের লুকোচুরি। সর্বশেষ এক চুনোপুটি প্রযুক্তি পণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ‘রয়োল’-এর কাছে হারতে হয়েছিলো স্যামসাংকে। তবুও থামেনি এই ফোন নিয়ে স্যামসাংয়ের গোপনীয়তা।

সর্বশেষ সানফ্রান্সিসকোতে স্যামসাংয়ের ডেভেলপার সম্মেলনে দেখা মিললো জনপ্রিয় ব্র্যান্ডটির ফোল্ডেবল ফোনের। যাতে ব্যবহার করা যাবে এক সঙ্গে তিন অ্যাপ।

নাম ঠিক না করলেও স্যামসাং নতুন প্রযুক্তির এ ফোনকে আখ্যায়িত করেছে ইনফিনিটি ফ্লেক্স ডিসপ্লে হিসেবে। এটি উন্মোচন করেন টেক জায়ান্টটির মোবাইল প্রোডাক্ট মার্কেটিং বিভাগের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট জাস্টিন ডেনিসন ।

সম্মেলনে ডেনিসন জানান, ফোল্ডেবল ডিভাইসটি ভাঁজ করা অবস্থায় পকেটে রাখা যাবে। আবার মেলে ধরলে তা ৭ দশমিক ৩ ইঞ্চি ডিসপ্লেতে পরিণত হবে।

ফোনটি নিয়ে গত পাঁচ বছর ধরে পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালিয়েছে স্যামসাং। সস্মেলনে জানানো হয়, আগামী এক মাসের মধ্যেই উৎপাদন শুরু হবে।

তবে ফোনটির পুরো ডিজাইন দেখতে দেয়নি দক্ষিণ কোরিয়ান কোম্পানিটি। কেস দিয়ে ঢেকে রাখায় আসল ডিজাইন বোঝা যায়নি। পরে আরেকটি ইভেন্টে জানানো হবে পুরো ফোনের স্পেসিফিকেশন বলে সম্মেলনে জানানো হয়েছে।

ফোল্ডেবল ফোন নিয়ে বেশ কিছুদিন থেকে ব্যাপক আলোচনা চলছে। এ দৌঁড়ে হুয়াওয়েকে পেছনে ফেললেও আরেক চীনা কোম্পানী রয়োল কর্পোরেশনের কাছে হেরেছে স্যামসাং।

গত ১ নভেম্বর ফ্লেক্সপাই নামে একটি ফোল্ডেবল ফোন উন্মোচন করে প্রযুক্তি বিশ্বে আলোড়ন সৃষ্টি করে রয়োল।

টেক এর আরও খবর