Barta24

মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০১৯, ৩১ আষাঢ় ১৪২৬

English Version

স্টার্টআপদের জন্য বৈশ্বিক প্লাটফর্ম তৈরি করা জরুরি: পলক

স্টার্টআপদের জন্য বৈশ্বিক প্লাটফর্ম তৈরি করা জরুরি: পলক
ছবিঃ সংগৃহীত
স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

 দেশীয় স্টার্টআপগুলোর সহায়তায় বৈশ্বিক প্লাটফর্ম তৈরির কথা বলেছেন তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

বৃহস্পতিবার(৭ মার্চ) আগারগাঁওয়ের আইসিটি টাওয়ারে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক গ্লোবাল এন্টারপ্রেনার নেটওয়ার্কের সহযোগী পরিচালক সুসান আমালের সঙ্গে আলোচনা সভা করেন জুনাইদ আহমেদ পলক।

সভায় আন্তর্জাতিক প্লাটফর্মে স্টার্টআপ প্রতিষ্ঠানগুলোর বিভিন্ন চ্যালেঞ্জ, বাধা, বিদেশি বিনিয়োগ ও ফান্ডিং পাওয়ার বিভিন্ন দিক নিয়ে সভায় আলোচনা করা হয়।

পলক বলেন, আমরা দেশের স্টার্টআপদের বিনা ভাড়ায় স্পেস বরাদ্দ দিচ্ছি। বিশ্ব বাজারে আমাদের উদ্যোগগুলোর জন্য একটা প্লাটফর্ম প্রস্তুত করা খুবই জরুরী।

তিনি বলেন, আমাদের দুর্দান্ত আইডিয়া আছে, আমরা সেই আইডিয়াগুলো কাজ লাগাতে চাই। অন্যান্য দেশের স্টার্টআপদের সঙ্গে কাজ করলে দেশের স্টার্টআপ নলেজ শেয়ার করে আইটি বিজনেসের বৈশ্বিক গতিধারা সম্পর্কে জানতে পারবে।

মিজ সুসান আমাল বলেন, মেন্টরিং ও সঠিক গাইডেন্সের অভাবে ৮০ ভাগ স্টার্টআপ দাঁড়াতে পারে না। সঠিক দিক নির্দেশনা পেলে এই স্টার্টআপদের মাধ্যমেই অনেক বড় বড় কোম্পানি প্রতিষ্ঠা করা সম্ভব। সফলতার জন্য সিলিকন ভ্যালিতে যাওয়ার প্রয়োজন নেই।

গ্লোবাল এন্টারপ্রেনার নেটওয়ার্ক বিশ্বের প্রায় ১৭০টি দেশের সঙ্গে কাজ করে।

আলোচনা সভায় আরও উপিস্থত ছিলেন বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হোসনে আরা বেগম, তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা এবং দেশীয় স্টার্টআপগুলো প্রতিনিধিরা।

আপনার মতামত লিখুন :

এক গেমে খেলেই খোয়ালেন সব সঞ্চয়!

এক গেমে খেলেই খোয়ালেন সব সঞ্চয়!
গেমিংয়ে আসক্ত কিশোর, ছবি: প্রতীকী

আমার ২২ বছর বয়সের ছেলেটি অটিজমে আক্রান্ত। সে অন্য কোনো কাজ করতে পারে না বিধায় আইপ্যাড, প্লেস্টেশন এবং গেমিংয়ের জগতে ঢুকে গেছে। সম্প্রতি সে একটি গেম খেলে ব্যয় করেছে ৩,১৬০ পাউন্ড যা বাংলাদেশি টাকায় ৩ লাখ ৩৪ হাজার ১৮০ টাকা।

এভাবেই ছেলিটির বাবা থমাস কার্টার বিবিসিকে জানান, সম্প্রতি সে আইপ্যাডে ‘হিডেন আর্টিফ্যাক্ট’ নামের একটি গেম খেলে। আর সেই গেম খেলেই গত ১৮ ফেব্রুয়ারি থেকে ৩০ মে মাসের মধ্যে তাদের সঞ্চয়ের সব টাকা খরচ করে ফেলেছে।

থমাস আইটিউন কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি জানান। কিন্তু তারা বিষয়টি সম্পর্কে অবগত হলেও সেই টাকা আর ফেরত দেয়নি।

তবে গেমিংয়ের প্রতি তীব্র আশক্তি এবং অর্থ খোয়াবার মতো খবর এটিই প্রথম নয়। এমন বেশকিছু খবর বিবিসির প্রতিবেদনে উঠে এসেছে। যেখানে কিশোররা তাদের বাবা-মার ব্যাকিং কার্ড থেকে অর্থ ব্যয় করে গেম খেলছে।

সূত্র: বিবিসি

চাহিদা মেটাতে সক্ষম নয় ফেসবুকের ওকুলাস

চাহিদা মেটাতে সক্ষম নয় ফেসবুকের ওকুলাস
ফেসবুকের ভিআর ওকুলাস, ছবি: সংগৃহীত

বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়া কোম্পানিগুলো শুধুই অ্যাপ ভিত্তিক সার্ভিসের বাইরেও এখন বিভিন্ন ডিভাইস নিয়ে কাজ করছে। বলতে গেলে অনলাইনের বাইরে গিয়ে তারা এখন প্রযুক্তি নির্মাতাদের দলে যোগ দিচ্ছে অধিক মুনাফা লাভের আশায়।

তেমনি ফেসবুকের তৈরি ভার্চুয়াল রিয়েলিটি (ভিআর) ওকুলাস বাজারে  ছাড়ে প্রতিষ্ঠানটি। কিন্তু গেমিংয়ের বাজারের সঙ্গে খাপ খাওয়াতে প্রস্তুত নয় ফেসবুকের এই ভার্চুয়াল রিয়েলিটি।

সিএনবিসি’র এক প্রতিবেদনে বলা হয়, বিশেষ করে গেমিংয়ের বাজার ধরতেই ফেসবুক তাদের ভিআর ওকুলাস বাজারে ছাড়ে। কিন্তু ওকুলাসের সহ প্রতিষ্ঠাতা জ্যাক ম্যাকাউলি মনে করেন বর্তমান বাজার ধরতে এটি যথেষ্ঠ নয়।

তিনি বলেন, যখন একজন ইউজার ভিআর হেডসেট পরে গেম খেলবেন কিন্তু অপর প্রান্তে থাকা তার বন্ধু দ্বিমাত্রিক (২ডি) মুডে খেলবে। যার মধ্যে কোনো সমন্বয় থাকবে না। ফলে এই ভিআর গেমিংয়ের বাজারে চাহিদা মেটাতে পারবে না।

গত ২০১৭ সালে ফেসবুক ‘ওকুলাস গো’ বাজারে ছাড়ে। যার বাজারমূল্য নির্ধারণ করা হয়েছিল ১৯৯ মার্কিন ডলার। মার্কেট রিসার্চ সুপার ডাটার মতে, ২ মিলিয়ন ইউনিট বিক্রি হয়েছিল ওকুলাস গো।

অন্যদিকে এবছরের মে মাসে ওকুলাস কুয়েস্ট বিক্রি হয়েছিল ১ মিলিয়ন ইউনিট এবং ওকুলাস রিফট ৫ লাখ ৪৭ হাজার ইউনিট।

তবে সম্প্রতি বাজারে আসা ‘ওকুলাস রিফট এস’ পিসি ভার্সনের জন্য অবমুক্ত করা হয়। যার বাজারমূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ৩৯৯ মার্কিন ডলার। কিন্তু ম্যাকাউলি মনে করেন বাজারের অন্যান্য ভিআর হেডসেটের সঙ্গে পাল্লা দিতে পারবে ফেসবুকের ওকুলাস।

সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র