Barta24

শনিবার, ২০ জুলাই ২০১৯, ৫ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

দেশেও পালিত হলো ইন্টারন্যাশনাল গার্লস ইন আইসিটি ডে

দেশেও পালিত হলো ইন্টারন্যাশনাল গার্লস ইন আইসিটি ডে
ছবিঃ সংগৃহীত
স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪ডটকম


  • Font increase
  • Font Decrease

তরুণ প্রজন্মের মেয়ে ও তরুণ নারীদের তথ্যপ্রযুক্তি খাতে ক্যারিয়ার গড়তে এবং এই খাতে যুক্ত হতে অনুপ্রেরণা যোগানোর লক্ষ্যে সারা বিশ্বের পাশাপাশি বাংলাদেশেও পালিত হলো ইন্টারন্যাশনাল গার্লস ইন আইসিটি ডে’। দক্ষিণপূর্ব এশিয়ায় বিশেষ করে প্রযুক্তি খাতে লৈঙ্গিকসমতা ও নারী নেতৃত্ব এর মত বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা হয় এই দিন।

বৃহস্পতিবার (২৫ এপ্রিল)এই উপলক্ষ্যে জিপি হাউজে এক প্যানেল আলোচনার আয়োজন করে গ্রামীণফোন।এতে গ্রামীণফোনের প্রধান নির্বাহী মাইকেল ফোলি মূলপ্রবন্ধ উপস্থাপন করেন।

আলোচনা সভায় অংশ নেন তথ্যপ্রযুক্তি খাতের নেতৃত্ব স্থানীয় ব্যক্তিত্ব এবং বিশেষজ্ঞরা। সভায় লাদেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতে মেয়েদের বর্তমান অবস্থা, প্রাতিষ্ঠানিক সহায়তা এবং ভবিষ্যতে কিভাবে সুযোগ তৈরি করা যায় সেসব বিষয় নিয়ে অংশগ্রহণকারীদের মাঝে আলোচনা ও বিতর্ক হয়।

প্যানেল আলোচনা নিয়ে মাইকেল ফোলি বলেন, ‘শিল্প, ইতিহাস, পুরাতত্ত্ব, আইন, প্রাথমিক শিক্ষা কিংবা গ্রাফিক ডিজাইনের মতোই প্রযুক্তি খাত আগের চেয়ে অনেক বেশি জটিল হয়ে গেছে। আগামী ১০ বছরে প্রযুক্তি খাতে দুই লাখ কর্মসংস্থান তৈরি হবে কিন্তু দক্ষ তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক জনশক্তির অভাবে তা পূরণ করা যাবে না। বাংলাদেশের প্রবৃদ্ধিশীল একটি দেশ, যেখানে নারীরা প্রতিষ্ঠা লাভ করার পাশাপাশি ডিজিটাল বিনির্মাণের লক্ষ্যে তারা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে।’  

ইয়াসির আজমান ডেপুটি সিইও ও সিএমও বলেন, "ডিজিটাল ক্যারিয়ার গড়তে নারীর বহুমুখী বাধার মুখে পরে এবং এই চ্যালেঞ্জএর কোনো দেশ কাল পাত্র নাই, আমরা একসাথে কাজ করলে এই বাধা অতিক্রম করতে পারবো এবং সামগ্রিক উন্নতি নিশ্চিত করতে পারবো"

প্যানেল আলোচনায় উপস্থিত ছিলেন গ্রামীনফোনের হেড অফ এই ও টি রেদোয়ান হাসান খান, বাংলাদেশ সরকারের জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল বিভাগের সাবেক প্রধান প্রকৌশলী খালেদা আহসান; কোয়ান্টাম কনজ্যুমার সল্যুশনস লিমিটেডের সিনিয়র ম্যানেজার-রিসার্চ বুশরা মাহরিন এবং গ্রামীণফোনের হেড অব ডিজিটাল অ্যান্ড অ্যানালিটিক্স অপারেশনস সোওয়াবা সারওয়াত সিনথিয়া।

আপনার মতামত লিখুন :

মেয়েদের প্রোগ্রামিংয়ে আগ্রহ বাড়ছে: মোস্তাফা জব্বার

মেয়েদের প্রোগ্রামিংয়ে আগ্রহ বাড়ছে: মোস্তাফা জব্বার
ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর

অংশগ্রহণ কম হলেও প্রোগ্রামিংয়ে মেয়েদের আগ্রহ বাড়ছে বলে জানিয়েছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার।

নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ে শুক্রবার (২০ জুলাই) এসিএম-ইন্টারন্যাশনাল গার্লস প্রোগ্রামিং কনটেস্ট ২০১৯ -এ প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, কম্পিউটার প্রোগ্রামিং একটি সৃজনশীল কাজ। প্রোগ্রামিং কঠিন কোনো কাজ নয়। চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের প্রযুক্তি যাই আসুক না কেন, প্রযুক্তির চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করে টিকে থাকার জন্য প্রোগ্রামিং প্রয়োজন। দেশে প্রোগ্রামিং উৎসাহিত করতে এক বছর আগে জাতীয় পর্যায়ে জাতীয় শিশু-কিশোর প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা শুরু করেছি।

Mostofa Jabbar

দেশে নারী শিক্ষার অগ্রগতির চিত্র তুলে ধরে তিনি বলেন, দেশে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমূহে মোট শিক্ষার্থীর শতকরা ৫৩ ভাগ নারী।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর আতিকুল ইসলাম, উপ-উপাচার্য জিইউ আহসান ও সহযোগী অধ্যাপক ডা. সাজ্জাত হোসেন।

প্রতিযোগিতায় ৪০টি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী অংশ নেন। পরে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন মোস্তাফা জব্বার।

আরো ১ হাজার স্টার্টআপ তৈরিতে সরকার সহায়তা করবে

আরো ১ হাজার স্টার্টআপ তৈরিতে সরকার সহায়তা করবে
‘সহজ’ -এর প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক/ ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর

২০২১ সালের মধ্যে আরও এক হাজার স্টার্টআপ তৈরি করতে অর্থ সহায়তা দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

অনলাইনভিত্তিক ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান ‘সহজ’ -এর পঞ্চম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে রাজধানীর একটি হোটেলে বুধবার (১৭ জুলাই) রাতে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী বলেন, সরকার চায় তরুণরা শুধু চাকরির পেছনে না ছুটে সফল উদ্যোক্তা হবে। তারা হোমগ্রোন সলিউশনের মাধ্যমে প্রযুক্তিনির্ভর বাংলাদেশ বিনির্মাণে অবদান রাখবে। আমরা বিশ্বাস করি- একজন উদ্যোক্তা সফল হলে কর্মসংস্থান সৃষ্টি মাধ্যমে লক্ষ তরুণের স্বপ্ন পূরণ হবে।

অনুষ্ঠানে ‘সহজ’ -এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মালিহা এম কাদির সভাপতিত্ব করেন। আরও বক্তব্য দেন বাংলাদেশ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের নির্বাহী চেয়ারম্যান কাজী এম আমিনুল ইসলাম। ‘সহজ’ -এর ভবিষ্যত ব্যবসায়িক পরিকল্পনা তুলে ধরেন হার্ভার্ড বিজনেস স্কুলের সহকারী অধ্যাপক ড. এন্ডি উ।

অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেসের (বেসিস) সভাপতি সৈয়দ আলমাস কবির, তৈরি পোশাক শিল্প মালিকদের শীর্ষ সংগঠন- বিজিএমইএ’র সভাপতি রুবানা হক সহ বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিগণ।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র