বিশৃঙ্খলা রুখতে যৌথভাবে কাজ করবে সোশ্যাল মিডিয়াগুলো

টেক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ বড় বড় প্রযুক্তি নির্মাতা প্রতিষ্ঠানগুলো সম্প্রতি বিভিন্ন চলমান ইস্যুগুলোতে তাদের নৈতিক অবস্থান নিয়ে প্রশ্নবিদ্ধ হয়েছে। তাছাড়া এর সঙ্গে যুক্ত হয়েছে মানুষের নিরাপত্তা এবং সাইবার ক্রাইমের মত অপরাধগুলো এখন সংঘটিত হচ্ছে এ সকল মাধ্যমগুলো ব্যবহার করে।

তাই ফেসবুক, গুগল এবং স্ন্যাপচ্যাট অনলাইনে বিরাজমান এসকল ক্ষতিকর কনটেন্টের বিরুদ্ধে কঠোর নজরদারির মাধ্যমে সমাজ থেকে এর ভয়াবহ প্রভাব কমিয়ে আনার জন্য ব্রিটিশ অলাভজনক প্রতিষ্ঠান সামারিটান্সের সঙ্গে যৌথভাবে কাজ করবে এই টেক জায়ান্ট প্রতিষ্ঠানগুলো।

১৯৫৩ সালে প্রতিষ্ঠিত সামারিটান্স মানসিকভাবে সহযোগিতা প্রদানের জন্য তাদের কার্যক্রম শুরু করে। এর মধ্যে যারা মানসিকভাবে দুর্বল, হতাশাগ্রস্থ এবং আত্মহত্যা করার মত ঝুঁকির মধ্যে থাকে তাদেরকে এই প্রতিষ্ঠানটি বিভিন্ন সাহায্য করে থাকে।

বর্তমানে প্রযুক্তির বিবর্তনের সঙ্গে মানুষের এসকল সমস্যার ধরন পাল্টে গেছে তাই এ প্রতিষ্ঠনাটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোর সঙ্গে যৌথভাবে কাজ করবে। সমাজে উগ্রবাদ, সহিংসতা, অপরাধ, যৌন হয়রানি এবং আত্মহত্যার মত যে বিষয়গুলো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সংক্রমণের মত ছড়িয়ে পড়ছে তা বন্ধে কাজ করবে এই ব্রিটিশ প্রতিষ্ঠানটি।

ব্রিটিশ স্বাস্থ্য বিষয়ক কর্মকর্তা ম্যাট হ্যানকক ২৯ এপ্রিল আনুষ্ঠানিকভাবে এই মহৎ উদ্যোগের কথা সবার সামনে তুলে ধরেন।

সামারিটান্সের নির্বাহী কর্মকর্তা রুথ সুথারলান্ড বলেন, এই যৌথ উদ্যোগের গবেষোণার মাধ্যমে ব্যবহারকারীদের থেকে অর্জিত জ্ঞান এবং পরিকল্পিত সঠিক দিক নির্দেশনা অনুসরণ করে এর বাস্তবায়ন করতে হবে। যাতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম কিংবা ইন্টারনেটের মাধ্যমে মানুষের অপমৃত্যু না ঘটে।

মূলত সবার জন্য একটি নিরাপদ অনলাইন প্লাটফর্ম গড়ে তুলতে একটি খসড়া প্রদান করা হয়। যেখানে বলা হয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহারের ক্ষেত্রে একটি স্বতন্ত্র নজরদারি ব্যবস্থা গড়ে তুলতে হবে।

ফেসবুক ও ইনস্টাগ্রাম ইতিমধ্যে অপ্রীতিকর কনটেন্ট বন্ধ করতে বিশেষ উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। এছাড়া ফেসবুক এবং হোয়াটসঅ্যাপও তাদের প্লাটফর্মে ভুয়া খবর বন্ধ করতে বিভিন্ন উদ্যোগ হাতে নিয়েছে।

সূত্র: গ্যাজেটস নাও

আপনার মতামত লিখুন :