অনলাইনে ক্রেতাকে দিতে হবে দুইবার ভ্যাট শঙ্কিত সংশ্লিষ্টরা

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ছবিঃ বার্তা২৪.কম

ছবিঃ বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

ই-কমার্সে পণ্য কেনাবেচা সাড়ে সাত শতাংশ ভ্যাট আরোপ করায়  একজন ক্রেতাকে দুইবার ভ্যাট দিতে হবে বলে   উল্লেখ করে এই খাতে ভ্যাট আরোপের পূর্বে আরো সময় চাইলেন ই-কমার্স সংশ্লিষ্টরা। এছাড়াও বাজেটে এই খাতে ভ্যাট প্রদানের জন্য একটি দীর্ঘমেয়াদি বাজেট পরিকল্পনা ও দাবি করেন তারা । ৪

বুধবার (১৯ জুন) বেসিস মিলনায়তনে আয়োজিত এক গোলটেবিল বৈঠকে এসব দাবি তুলে ধরেন ই-কমার্স সংশ্লিষ্টরা। গোলটেবিল বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন বেসিস সভাপতি সৈয়দ আলমাস কবির এ সময় উপস্থিত ছিলেন কমিশনের সাধারণ সম্পাদক মোঃ আব্দুল ওয়াহেদ তমাল, বেসিসের জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি ফারহানা এ রহমান , সহ-সভাপতি মুশফিকুর রহমান পরিচালক এবং বেসিস ডিজিটাল কমার্স স্থায়ী কমিটির দায়িত্ব প্রাপ্ত পরিচালক দিদারুল আলম।

আলমাস কবির বলেন আইসিটি খাতে গৃহীত উন্নয়ন প্রকল্পের জন্য বাজেটে বরাদ্দকৃত অর্থের পরিমাণ সর্বশেষ অর্থবছরের চেয়ে দুই হাজার ১৭৬ কোটি টাকা বৃদ্ধি পেয়েছে পাশাপাশি অর্থবছরের সংশোধিত বাজেটের তুলনায় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগে বরাদ্দ এবছর ১৯৩  কোটি টাকা বৃদ্ধি পেয়েছে স্টার্টাপদের  জন্য সরকার ১০০  কোটি টাকা বরাদ্দ করেছে পাশাপাশি বাজেটে সোশ্যাল মিডিয়ার উপরে ৭.৫ শতাংশ ভ্যাট আরোপ করা হয়েছে হয়েছে যা প্রশংসনীয় ।

কিন্তু একই সাথে ভার্চুয়াল বিজনেস তথা ডিজিটাল কমার্স এর উপর ১ শতাংশ থেকে বেড়ে সাড়ে সাত শতাংশ করা হয়েছে যা বিকাশমান এ খাতের প্রবৃদ্ধির জন্য অন্তরায়। 

বেসিস ডিজিটাল কমার্স স্থায়ী কমিটির চেয়ারম্যান মোঃ কামাল বলেন বাংলাদেশের মানুষ অনলাইনে কেনাকাটা অবস্থা তো শুরু করেছে অনলাইন কেনাকাটায় ভ্যাট আরোপ করলে বেশি দামে মানুষ আর অনলাইনে কেনাকাটা করতে চাইবে না ফলে এক খাতে আমরা এখন ভ্যাট  চাচ্ছি না।

ফারহানা এ রহমান বলেন, আইসিটি খাতে এখন অনেক নারীরা এগিয়ে আসছে তারা প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকেও এই খাতে অবদান রাখার চেষ্টা করছে কিন্তু এই ভ্যাট  আরোপের ফলে তাদেরকে যে অর্থনৈতিক মূলধারা আনার চেষ্টা করা হচ্ছিল সেই কাজটি ব্যাহত হবে। 

অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন অনলাইনে যাদের ফিজিক্যাল স্টোর নেই তারা মূলত বাজার থেকে একটি পণ্য ক্রয় করে অনলাইনে ক্রেতার কাছে পৌঁছে দেন যার ভ্যাট সরকার আগেই পেয়ে থাকে। কিন্তু নতুন করে ভ্যাট আরোপের ফলে ভ্যাট দেয়া পণ্যের উপরই আবার ক্রেতাকে ভ্যাট দিতে হবে যার ফলে এখন মানুষ যে অনলাইনে কেনাকাটায় আগ্রহী হচ্ছিলো তার ব্যাঘাত ঘটবে। 

এ সময় বক্তারা একটি ভ্যাট আরোপের পূর্বে ন্যূনতম পাঁচ বছর সময় দেয়া, পাশাপাশি একই পণ্যের উপর যাতে দুইবার ভ্যাট না প্রদান করতে হয় সে ব্যাপারটি নিয়ে রাজস্ব বোর্ড কর্তৃপক্ষের সাথে এর সাথে কথা বলবে বলে জানান তারা।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিকাশ রকেট আইপে সূসূর্যমুখ প্রিয়সপ, বাগডুম ডট কম ,আজকের ডিল, অথবা ডটকম, চাল ডাল , হাংরি নাকি, পিকাবু , সেবা এক্স ওয়াই জেড , ডেলিগ্রাম, প্রপার্টি বাজার এর শীর্ষ কর্মকর্তারা

আপনার মতামত লিখুন :