Barta24

বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০১৯, ৩ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

তথ্যপ্রযুক্তি খাতে অবদান রাখবে নেদারল্যান্ডস

তথ্যপ্রযুক্তি খাতে অবদান রাখবে নেদারল্যান্ডস
ছবিঃ সংগৃহীত
স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

বাংলাদেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতে যে সহযোগিতা করছে নেদারল্যান্ডস তা অব্যাহত রাখার কথা জানিয়েছেন দেশটির রানী ম্যাক্সিমা। 

বুধবার (১০ জুলাই)  বাংলাদেশে সফররত নেদারল্যান্ডের রানী ম্যাক্সিমার সাথে এক বৈঠকের পর এ তথ্য জানান  তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী  জুনাইদ আহমেদ পলক।

 বৈঠকে দুই দেশের পারস্পরিক স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিষয়ে বিশেষ করে তথ্যপ্রযুক্তি খাতের সর্বশেষ উন্নয়ন ও অগ্রগতি নিয়ে আলোচনা করেন।

প্রতিমন্ত্রী জানান, বাংলাদেশ গত ১০ বছরে তথ্যপ্রযুক্তি খাতসহ সামাজিক সূচকের সকল খাতে অভাবনীয় উন্নতি করেছে। তৃণমূল পর্যন্ত প্রযুক্তি সেবা পৌঁছে দিতে পাঁচ হাজারের অধিক ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার স্থাপন করা হয়েছে। বর্তমানে ৯০ মিলিয়নের অধিক ইন্টারনেট ব্যবহারকারীসহ বৈদ্যুতিক সংযোগ, স্বাস্থ্য ও বিভিন্ন প্রকার সেবার ব্যাপক প্রসার ও উন্নয়ন ঘটেছে।

এছাড়াও নারী ক্ষমতায়নে, ব্যাংকিংসহ বিভিন্ন খাতের উন্নয়নের কথা তুলে ধরেন তিনি।

প্রতিমন্ত্রী আরও জানান,  তরুণ উদ্যোক্তাদের পরিচর্যা, আর্থিক ও কারিগরি সহযোগিতার জন্য আইডিয়া প্রকল্প, মহিলাদের জন্য শি পাওয়ার প্রকল্প বাস্তবায়ন করেছে। ই-কমার্স ও ই-সেবা প্রসারের লক্ষ্যে জাতীয় পরিচয়পত্রের তথ্য ব্যবহার করে পরিচিতি যাচাই করণের সুবিধা আইসিটি বিভাগ হতে করা হচ্ছে বলে রানীকে অবহিত করেন।

সাইবার নিরাপত্তা বিধানের জন্য সরকার ডিজিটাল নিরাপত্তা এজেন্সি স্থাপন, সমন্বিত ডিজিটাল পেমেন্ট প্লাটফর্মের কাজ সরকার হাতে নিয়েছে। যার মাধ্যমে গার্মেন্টস কর্মীদের ব্যাংকিং সুবিধা প্রদানের জন্য আরএমজি ওয়ালেট সেবা বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। ৪র্থ শিল্প বিপ্লবকে সামনে রেখে তরুণদের মাঝে ইমার্জিং প্রযুক্তি, এর মধ্যে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা, বিগ ডেটা, ব্লকচেইন ইত্যাদি বিষয়ে প্রশিক্ষণ কার্যক্রম গ্রহণ ও বাস্তবায়ন করেছে বলেও জানান প্রতিমন্ত্রী। 

নেদারল্যান্ডের রানী ম্যাক্সিমা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃতে বিগত ১০ বছরে বাংলাদেশের বিভিন্ন খাতের উন্নয়নের প্রসংশা করেন।

সরকারের এ সকল উদ্যোগকে সফল করার জন্য তিনি কেন্দ্রিয়ভাবে নতুন ব্যবসা আইনগত অনুমোদনের একক প্রতিষ্ঠান চালু করার সুপারিশ করেন। এ উদ্যোগের জন্য নেদারল্যান্ডস সরকারের পক্ষ থেকে প্রয়োজনীয় কারিগরি সহযোগিতা প্রদানের আশ্বাস দেন রানী ম্যাক্সিমা।

তিনি বাংলাদেশের ব্যাংকিং সুবিধা তৃণমূল পর্যায়ে সম্প্রসারণের জন্য মোবাইল ব্যাংকিংয়ের ওপর গুরুত্ব আরোপ করেন। সরকার কর্তৃক ইন্টারঅপারেবল পেমেন্ট প্লাটফর্ম বাস্তবায়ন ত্বরান্বিত করার প্রয়োজন মর্মে অভিমত ব্যক্ত করেন। সবশেষে উভয়দেশ তথ্যপ্রযুক্তি খাতে পারস্পরিক সহযোগিতা অব্যহত রাখার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

বৈঠকে তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের সচিব এনএম জিয়াউল আলম, নেদারল্যান্ডস ও তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। 

আপনার মতামত লিখুন :

সুন্দরগঞ্জের নারী উদ্যোক্তাদের গরু দারাজে

সুন্দরগঞ্জের নারী উদ্যোক্তাদের গরু দারাজে
দারাজের ঈদ বিগ সেল

অনলাইন শপ দারাজ বাংলাদেশে পবিত্র ঈদ-উল-আযহা উপলক্ষ্যে তৃতীয়বারের মত আয়োজন করেছে ঈদ বিগ সেল। এই বছর ঈদ বিগ সেলের সবচেয়ে বড় আকর্ষণ হিসেবে থাকছে দারাজ “অনলাইন গরুর হাট”, যা দ্বিতীয়বারের মতন আয়োজন করেছে দারাজ। এই হাটের বিশেষত্ব হল- প্রতিটি গরু শতভাগ অর্গানিক এবং গরুগুলো লালন-পালন করেছে গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জের নারী উদ্যোক্তারা।

বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) থেকে ১২ই আগস্ট পর্যন্ত চলাকালীন এই ঈদ শপিং ক্যাম্পেইনে থাকছে বিশাল মূল্যছাড়, অনলাইন গরুর হাট, টপ রেটেড প্রোডাক্ট, মেগা ডিল, শেক শেক ভাউচার, আই লাভ ভাউচার, রাশ আওয়ার ভাউচার, ফায়ার ভাউচার সহ আরও অনেক আকর্ষণীয় ঈদ অফার।

এবারের দারাজের অনলাইন গরুর হাটের গরুগুলো দারাজ নন্দিনীর উদ্যোগে অ্যাকশনএইড-এর সহায়তায় নিয়ে আসা হচ্ছে প্রত্যন্ত গাইবান্ধা থেকে। ক্রেতারা খুব সহজেই কোরবানির পশুর সকল বিস্তারিত বিষয় জেনে গরুর ভিডিও দেখে দারাজ অ্যাপে (daraz app) তা অর্ডার করতে পারবেন। ১০৭ টি গরুর সমারোহে সাজানো এই হাটে রয়েছে ৪২,০০০ টাকা থেকে শুরু করে সর্বোচ্চ ১,৩০,০০০ টাকার গরু। দারাজে গরু অর্ডার করার শেষ তারিখ ৫ই আগস্ট আর গরুগুলো ডেলিভারি শুরু হয়ে যাবে ৯ তারিখ থেকে।

তাছাড়াও ক্যাম্পেইনে ঈদের নিত্য প্রয়োজনীয় হোম ও কিচেন অ্যাপ্লায়েন্স সামগ্রী পাওয়া যাবে আকর্ষণীয় মূল্যে, যার মধ্যে রয়েছে এসি, ফ্রিজ, এয়ার কুলার ও মাইক্রোওয়েভ কালেকশন। আর ইলেক্ট্রনিক্স পণ্য সামগ্রীর মধ্যে রয়েছে মোবাইল ফোন, টিভি, ডিএসএলআর ক্যামেরা ইত্যাদি।

এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের জন্য স্যামসাংয়ের বিশেষ ছাড়

এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের জন্য স্যামসাংয়ের বিশেষ ছাড়
ছবি: স্যামসাং মোবাইল বাংলাদেশ

২০১৯ সালের এইচএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের জন্য স্যামসাং মোবাইল বাংলাদেশ শুরু করেছে এইচএসসি স্টুডেন্ট ক্যাম্পেইন। এই ক্যাম্পেইনের আওতায় শিক্ষার্থীরা স্যামসাংয়ের বিভিন্ন ডিভাইসের ওপর ১৫% পর্যন্ত ছাড় পাবে।

বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) থেকে শুরু হয়ে ক্যাম্পেইন চলবে ২৮ জুলাই পর্যন্ত ।

এই ক্যাম্পেইন চলাকালে, শিক্ষার্থীরা  গ্যালাক্সি এ২কোর কিনতে পারবেন ৭,৫৯০ টাকার পরিবর্তে ৭,২১০ টাকায়, গ্যালাক্সি এম১০ পাওয়া যাবে ১১,৯৯৯ টাকার পরিবর্তে ১১,৪০০ টাকায় , গ্যালাক্সি এ১০ কেনা যাবে ১১,৯৯৯ টাকার পরিবর্তে ১১,৪০০ টাকায়,  গ্যালাক্সি এম২০ পাওয়া যাবে  ১৫,৯৯০ টাকার পরিবর্তে ১৫,১৯০ টাকায়, গ্যালাক্সি এ২০ কেনা  যাবে ১৫,৯৯০ টাকার পরিবর্তে ১৫,১৯০ টাকায়, গ্যালাক্সি এ৩০ কিনতে পারবেন ২২,৯৯০ টাকার পরিবর্তে ১৯,৯৪০ টাকায় ,  গ্যালাক্সি এ৫০ কিনতে পারবেন ২৬,৯৯০ টাকার পরিবর্তে ২৩,৭৪০ টাকায় , গ্যালাক্সি এ৭০ পাওয়া যাবে ৩৮,৯৯০ টাকার পরিবর্তে ৩৭,০৪০ টাকায় । এছাড়াও স্যামসাংয়ের অন্যান্য মডেলের হ্যান্ডসেটে কেনার ক্ষেত্রেও শিক্ষার্থীদের জন্য রয়েছে ছাড়।

এছাড়া, বিকাশ ব্যবহারকারীরাও ডিভাইস ক্রয়ের ক্ষেত্রে ৫০০ টাকা পর্যন্ত অতিরিক্ত ৫% ক্যাশব্যাক পাবে। এই অফারটি শুধু স্যামসাংয়ের অনুমোদিত নির্দিষ্ট আউটলেটগুলোতে পাওয়া যাবে।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র