অপরিকল্পিত বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় স্যামসাংকে অর্থদণ্ড

টেক ডেস্ক, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম
স্যামসাংকে জরিমানা, ছবি: সংগৃহীত

স্যামসাংকে জরিমানা, ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ভারতের উত্তর প্রদেশের শহর নোদিয়া কর্তৃপক্ষ দক্ষিণ কোরিয়ার টেক জায়ান্ট স্যামসাংকে পরিবেশ দূষণের দায়ে ১৫ লাখ টাকা জরিমানা করেছে।

নোদিয়া শহরে স্যামসাং অপরিকল্পিতাভাবে তাদের বর্জ্য সেখানে উন্মুক্তভাবে ফেলে রেখেছে। এজন্য স্থানীয়দের লিখিত-মৌখিক অভিযোগের ভিত্তিতে নোদিয়া কর্তৃপক্ষ স্যামসাংকে জরিমানা করে।

উত্তর প্রদেশ পরিবেশ নিয়ন্ত্রণ বোর্ডের কর্মকর্তা অনিল সিং বলেন, ‘স্যামসাং সঠিকভাবে বর্জ্য ব্যস্থাপনা করতে না পারায় এর বিরুদ্ধে তিনটি মামলা দায়ের করেছি। প্রত্যেকটির জন্য  পাঁচ লাখ করে মোট ১৫ লাখ টাকা জরিমানা করেছি।’

স্যামসাং বলছে, এবিষয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ থেকে তারা আগে কোনো নোটিশ পায়নি।

অন্যদিকে জনস্বাস্থ্য বিভাগ প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে অপরিকল্পিতভাবে বর্জ্য ফেলার দায়ে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে।

পরিবেশ বাঁচাও আন্দোলনের একজন স্বেচ্ছাসেবী ভিকরান্ট টংগাদ বলেন, 'পরিবেশ নিয়ন্ত্রণ বোর্ড প্রথমে এ সমস্যাটি ধরতে পারেনি। কিন্তু স্যামসাং বেশ কিছু দিন ধরেই উন্মুক্তস্থানে অপরিকল্পিতভাবে কারখানার বর্জ্য ফেলছে। কিন্তু আমরা গুগল ম্যাপস ব্যবহার করে দেখি যে, তারা নির্ধারিত স্থানে ময়লা ফেলছে না।’

স্থানীয়রা বলছেন, তাদের মহল্লা থেকে মাত্র ১০০ মিটার দূরেই স্যামসাং বর্জ্য ফেলছে, প্রতিদিন ১০০ বেশি ট্রাক এখানে আসা-যাওয়া করছে। যার ফলে বাতাসে ধুলোবালির পরিমাণ অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে। যা এই এলাকার জনগণের জন্য মারাত্নক স্বাথ্য ঝুঁকির কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

সূত্র: টাইমস অব ইন্ডিয়া

আপনার মতামত লিখুন :