হুয়াওয়ের সঙ্গে পিচাইয়ের সম্পর্ক কী জানতে চায় মার্কিন সিনেটররা

টেক ডেস্ক, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম
সুন্দর পিচাই, গুগল প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা, ছবি: সংগৃহীত

সুন্দর পিচাই, গুগল প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা, ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

যুক্তরাষ্ট্রের তিনজন সিনেটর কর্তৃক এক লিখিত চিঠিতে গুগলের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সুন্দর পিচাইয়ের কাছে হুয়াওয়ের সঙ্গে তার সম্পর্ক কী তা জানতে চাওয়া হয়েছে।

সম্প্রতি গুগল এবং হুয়াওয়ের মধ্যে স্মার্ট স্পিকার তৈরির যৌথ উদ্যোগের প্রতিবেদন প্রকাশের পরে বুধবার (৭ আগস্ট) সিনেটররা এই চিঠি পাঠান।

চিঠিতে বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্রের মানুষের কথোপকথনে আড়ি পাতার জন্য হুয়াওয়ের যন্ত্রাংশ ব্যবহৃত হয়েছে। যা একটি দেশের রাজনৈতিক এবং সামাজিক পরিবেশের জন্য বড় হুমকি। কিন্তু তিন সপ্তাহ আগে চীনের প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে আপনার (সুন্দর পিচাই) নমনীয়তার বিষয়টি লক্ষ্য করা গেছে। পাশাপাশি হুয়াওয়ের সঙ্গে আপনার (পিচাই) নিবিড় সম্পর্কের বহিঃপ্রকাশ উদ্বেগের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

সেখানে বলা হয়, স্মার্ট স্পিকার তৈরির যে উদ্যোগ নিয়েছেন তা আরো বড় হুমকিস্বরূপ হবে যুক্তরাষ্ট্রের জন্য। আপনার এ উদ্যোগের পেছনে কি কারণ রয়েছে তা আমাদের কাছে পরিষ্কার নয়। মনে হচ্ছে আপনি দেশের নিরাপত্তা থেকে মুনাফার বিষয়টিকে বড় করে দেখছেন। নাকি আপনি পরিকল্পনা করছেন হুয়াওয়েকে সাহায্য করার জন্য।’

সিনেটররা পিচাইকে চিঠির জবাব দেওয়ার জন্য ৩০ আগস্ট পর্যন্ত সময় বেঁধে দিয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের অনলাইন নিউজ পোর্টাল দ্য ইনফরমেশনে, বিগত মাসে প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়, গুগল ও হুয়াওয়ে যৌথভাবে নতুন প্রোডাক্ট তৈরির পরিকল্পনা করছে।

গত মে মাসে, মার্কিন প্রশাসন দেশের নিরাপত্তা স্বার্থে চীনের প্রযুক্তি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়েসহ ৬৮ প্রতিষ্ঠানকে কালো তালিকাভুক্ত করে। এছাড়া যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিষ্ঠানগুলোকেও নির্দেশ দেওয়া হয় হুয়াওয়ের সঙ্গে বাণিজ্যিক সম্পর্ক ছিন্ন করার জন্য।

সূত্র: গ্যাজেটস নাও

আপনার মতামত লিখুন :

এ সম্পর্কিত আরও খবর