সরকারি কর্মকর্তাদের জন্য ডিজিটাল নিরাপত্তা বিষয়ক কোর্স

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম, ঢাকা
ডিজিটাল নিরাপত্তা বিষয়ক অনলাইন কোর্স চালু করেন প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

ডিজিটাল নিরাপত্তা বিষয়ক অনলাইন কোর্স চালু করেন প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

সরকারি কর্মকর্তাদের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির নিরাপদ ব্যবহার এবং ডিজিটাল নিরাপত্তা বিষয়ক সচেতনতা বৃদ্ধিতে কোর্স চালু করা হয়েছে।

এটুআইয়ের ই-লার্নিং প্লাটফর্ম 'মুক্তপাঠে'র মাধ্যমে অনলাইন এবং মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে সরকারি কর্তাদের ডিজিটাল মাধ্যমের নিরাপদ ব্যবহারের ওপর এ প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে।

রোববার (৮ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর আগারগাওয়ে আইসিটি টাওয়ারে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে এ কোর্সের উদ্বোধন করেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

এ সময় কোর্সের বিভিন্ন দিক তুলে ধরে জানানো হয়, আইসিটি বিভাগের এটুআই এবং ডিজিটাল নিরাপত্তা এজেন্সির যৌথ উদ্যোগে পরিচালিত হবে ডিজিটাল নিরাপত্তা কোর্স। ১৭টি প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিদের মতামত এবং পরামর্শের ভিত্তিতে কোর্সটি সাজানো হয়েছে। এতে আছে আটটি মডিউল, ২৩টি ভিডিও অধ্যায়, ১৬টি হ্যান্ড আউট এবং একটি ফাইনাল পরীক্ষা।

উদ্বোধনের আগে প্রধান অতিথির বক্তব্যে জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, সাইবার হামলা থেকে রক্ষার্থে সচেতনতা প্রথম জিনিস। দ্বিতীয় বিষয় হচ্ছে, সক্ষমতা। সক্ষমতা অর্জনের জন্য সরকার, বেসরকারি খাত, ইন্ডাস্ট্রি এবং একাডেমিয়াকে এক সঙ্গে কাজ করতে হবে। আর তৃতীয় বিষয় হচ্ছে, ভৌত অবকাঠামো নির্মাণ। এর জন্য আমরা কাজ করছি।

সাইবার হামলার মাধ্যমে বড় ধরনের ক্ষতি করা সম্ভব উল্লেখ করে পলক বলেন, এখন কারো ক্ষতি করতে হলে হাতে আঘাত করতে হয় না। কোনো প্রতিষ্ঠানকে আঘাত করতে হলে বড় কিছু করতে হয় না। একটি রাষ্ট্রকে ধ্বংস করে দিতে এখন আর পারমাণবিক বোমা নিক্ষেপ করতে হয় না। সাইবার হামলা করলেই হয়।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এসডিজি বিষয়ক মুখ্য সমন্বয়ক আবুল কালাম আজাদ বলেন, আমরা বলেছিলাম, প্রতিটি প্রতিষ্ঠানকে অন্তত একটি অনলাইন কোর্স দেব। এর জন্য সব ধরনের সাপোর্ট আমরা দেব। পর্যায়ক্রমে অনেকগুলো কোর্স অনলাইনে নিয়ে যাব। এছাড়া মুক্ত পাঠে বিভিন্ন কনটেন্ট রেখে দিতে পারি। তাতে অল্প সময়ে অনেককে প্রশিক্ষণ দেওয়া যাবে।

আইসিটি বিভাগের সচিব এন এম জিয়াউল আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ডিজিটাল নিরাপত্তা এজেন্সির (ডিএসএ) মহাপরিচালক রাশেদুল ইসলাম। কী-নোট স্পিকার হিসেবে বক্তব্য দেন ডিএসএর পরিচালক তারেক এম বরকত উল্লাহ এবং এটুআইয়ের চিফ টেকনিক্যাল অফিসার আরফে এলাহি।

আপনার মতামত লিখুন :