করোনাকালে মানবিকতা, অমানবিকতা

মো: মোসলেহ উদ্দিন
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

বিশ্ব দাপিয়ে বেড়াচ্ছে কোভিড-১৯ বা প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস। নানা উপায়ে নানা দেশ এই ভয়াবহ বিপদ কাটানোর আপ্রাণ চেষ্টা করলেও নতুন সংক্রমণ এবং মৃত্যুর রাশ টেনে ধরা সম্ভব হচ্ছে না। প্রতিষেধক আবিষ্কারে মরিয়া উন্নত অর্থনীতি ও জ্ঞান-বিজ্ঞানে পারদর্শী দেশগুলো। তবে এখনো সফল হতে পারেনি কেউ। ফলে বিশ্বব্যাপী এই রোগের সঙ্গে মানুষের তীব্র লড়াই চলছেই।

এমতাবস্থায় বাংলাদেশের একটি কোম্পানিও দুঃসাহস দেখিয়েছে। গ্লোব বায়োটেক নামীয় দেশীয় প্রতিষ্ঠনের পক্ষে তরুণ বিজ্ঞানী আসিফ সংবাদ সম্মেলনে সাহসের যে দৃষ্টান্ত দেখিয়েছেন তা এক কথায় অসাধারণ। আসিফদের কথায় দৃঢ়তা রয়েছে, এই মহাসংকটে দুর্দশাগ্রস্ত মানুষের প্রতি তাঁদের সহানুভূতি ও দায়িত্ব  রয়েছে। সংবাদ সম্মেলনে তাঁর তাৎক্ষণিক অভিব্যক্তির অকৃত্রিম হৃদ্যতা সবার হৃদয় ছুঁয়েছে।

ভ্যাকসিন আবিষ্কার মোটেও সহজ কাজ নয়, এটি অতীব বিশেষায়িত কাজ। এর জন্য প্রয়োজন শক্ত রিসার্চ আর ডেভেলপমেন্টের ভিত, সুদক্ষ বিজ্ঞানী, অত্যন্ত কঠিন নিয়ম-নীতি, স্বচ্ছতা আর আর্থিক সংগতি। তাছাড়া ভ্যাকসিন নিয়ে এই কাজগুলো অনেক কারণেই ঝুঁকিপূর্ণ। সেজন্য প্রয়োজন জৈব-নিরাপত্তা বা সংবেদনশীল (containment) ল্যাবরেটোরি এবং যথাযথ নিয়ম।

এই ধরনের গবেষণা কাজগুলোয় ঝুঁকি এড়াতে আন্তর্জাতিকভাবে পালনীয় নিয়মনীতির পাশাপাশি দেশীয় নিয়মনীতিও পালন করা অত্যাবশ্যক। আর তাই সঙ্গত কারণেই পুরো প্রক্রিয়ার সাথে সরকারের সম্পৃক্ততা ও পরিবীক্ষণ অতীব জরুরি। গবেষণার প্রাক্কালে এসব সামগ্রিক পরিস্থিতি ও ইস্যু বিবেচনা করা বাঞ্ছনীয়।

করোনার বিরুদ্ধে গবেষণা ও চিকিৎসা সেবার এইসব মানবিক দৃষ্টান্তের পাশে অমানবিকতার উদাহরণও কম নয়। তথাকথিত বুদ্ধিমান ও সুবিধাবাদীদের নানা কৌশল-অপকৌশলে মাল কামানোর ধান্ধার বিকৃত চিত্রও চোখে পড়ে। করোনার জাল সার্টিফিকেট বিক্রি ছাড়াও হাসপাতালে ভেজাল পিপিই সাপ্লাইয়ের ঘটনার কথা মিডিয়ায় এসেছে—যা মোটেও কাম্য নয়।

অথচ করোনা টেস্ট এবং চিকিৎসা জালিয়াতির হোতা রিজেন্ট হাসপাতালের শাহেদ চক্র কিংবা জিকেজির হেল্থ কেয়ারের ডা: সাবরিনা গংরা যা করেছেন তা চরম অমানবিকতা এবং স্বার্থান্বেষী তৎপরতা। মানুষের জীবন-মরণ নিয়ে এ খেলা প্রমাণ করে যে, তথাকথিত মানুষ নামধারীরা মানবিক বিষয়ে কতটা অমানবিক হতে পারে!

বলার অপেক্ষা রাখেনা, মানবিক কাজে অমানবিকভাবে লাভের মতলব বাংলাদেশে দেখা গেলেও তা সারা পৃথিবীতেই বিরল ও অকল্পনীয় ঘটনা। শুধুমাত্র ব্যক্তি কিংবা গোষ্ঠী স্বার্থে এমন অপকর্মের জন্য দেশের মানুষের জানমালের প্রভূত ক্ষতির পাশাপাশি বিশ্বের দরবারে বাংলাদেশের নাগরিকের মর্যাদা হানি ও বিপদের ঘটনা ঘটছে। লজ্জিত ও অপমানিত হচ্ছেন বিদেশের মাটিতে কঠোর পরিশ্রম করে দেশ গড়ার অর্থের যোগানদাতা কোটি কোটি প্রবাসী ভাইবোন। এমনকি, বিভিন্ন দেশে বাংলাদেশের ফ্লাইট বন্ধ হওয়া কিংবা ভিন্নদেশের ফ্লাইটে যাওয়া বাংলাদেশী নাগরিকদের ফেরৎ পাঠানোর মতো অপমানজনক ঘটনারও অবতারণা হচ্ছে।

কিন্তু লজ্জার আচঁ কতিপয় লোভী, স্বার্থপর ও হীনমনাদের গায়ে লাগে না। দেশ ও দেশবাসীর যত ক্ষতিই হোক, অমানবিকরা থামতে চায় না। কিন্তু জাতির বৃহত্তর স্বার্থে এইসব ক্ষুদ্র, স্বার্থান্ধ, লোভী ও অমানবিকদের দমন না করলে এরা সবার সর্বনাশ করবে।   

লেখক: মো: মোসলেহ উদ্দিন, কবি, কলামিস্ট ও ব্যাংকার।

আপনার মতামত লিখুন :