পুঁজিবাজারে তারল্য বাড়ানোর প্রস্তাব বিএমবিএর

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপ করেন বিএমবিএ‘র প্রতিনিধিরা, ছবি: বার্তা২৪.কম

বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপ করেন বিএমবিএ‘র প্রতিনিধিরা, ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

একটি স্থিতিশীল পুঁজিবাজারের লক্ষ্যে তারল্য বাড়ানোর প্রস্তাব দিয়েছে মার্চেন্ট ব্যাংকগুলোর সংগঠন বাংলাদেশ মার্চেন্ট ব্যাংকার্স অ্যাসোসিয়েশন (বিএমবিএ)। একই সঙ্গে পুঁজিবাজারের সমস্যা সমাধান এবং বাজার বৃদ্ধির লক্ষ্যে প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) অনুমোদন দেওয়ার প্রস্তাবও জানানো হয়।

সোমবার (২০ জানুয়ারি) রাজধানীর মতিঝিলের ইনভেস্টমেন্ট করপোরেশন অব বাংলাদেশের (আইসিবি) বোর্ড সভায় পুঁজিবাজারের উন্নয়নের জন্য অর্থমন্ত্রণালয়ের গঠিত সমন্বয় ও তদারকি কমিটির বৈঠক শেষে সাংবাদিকের এ তথ্য জানিয়েছেন বিএমবিএর সভাপতি ছায়েদুর রহমান।

কমিটির আহ্বায়ক অতিরিক্ত সচিব মাকসুরা নূরের সভাপতিত্বে বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন- বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক মো. মাসুদ বিশ্বাস, বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) নির্বাহী পরিচালক মো. সাইফুর রহমান, আইসিবির ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) এবং বিএমবিএর সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকরা।

এদিকে, প্রায় তিন ঘণ্টা ধরে চলা বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গ কথা বলতে আসেন বিএমবিএর প্রতিনিধিরা। এ সময় পেছনের একটি গেট দিয়ে বেরিয়ে যান অর্থ মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ ব্যাংক ও বিএসইসির প্রতিনিধিরা।

ছায়েদুর রহমান বলেন, ‘বৈঠকে বর্তমান অবস্থা ও ভবিষ্যৎ উন্নয়নের বিষয়ে আলোচনা হয়। সভায় আমাদের প্রস্তাবগুলো তুলে ধরেছি। সরকার পুঁজিবাজারে সমস্যা সমাধানে আন্তরিক। এরইমধ্যে বেশ কিছু পদক্ষেপ নিয়েছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘পুঁজিবাজারে বর্তমান সংকট দূর করতে তারল্য বাড়ানোর বিষয়ে কথা হয়েছে। সরকার পক্ষ থেকে বলা হয়েছে তারল্য বাড়াতে সব ধরনের সহযোগিতা করা হবে। একই সঙ্গে আইপিওর প্রাইস ও মান দুটোর দিকে খেয়াল রাখা হবে। ভালো মানের আইপিও আনা হবে।’

বিএমবিএর সভাপতি বলেন, ‘পুঁজিবাজারে উন্নয়নে আইপিও অনুমোদন কখনো বন্ধ করা উচিত নয়। বরং যাচাই বাছাই করে ভালো কোম্পানিকে আইপিওর অনুমোদন দেওয়া উচিত। ভালো কোম্পানিকে পুঁজিবাজারে আনতে কর রেয়াত সুবিধা ১০ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ১৫-২০ শতাংশ রাখা এবং দ্বৈত কর প্রত্যাহারে প্রস্তাব দিয়েছি।’

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘আমরা কিন্তু অ্যামাউন্ট নিয়ে কথা বলছি না। আমরা বলছি অর্থের জোগান বৃদ্ধি করতে হবে। এর জন্য আমরা একটা প্রস্তাব দিয়েছিলাম। কিন্তু যারা বাস্তবায়ন করবেন তারা তো তাদের প্রচলিত নিয়মকানুন যাচাই-বাছাই করে পদক্ষেপ নিবেন। এখানে আমাদের শব্দ এবং ওনার শব্দের মধ্যে পার্থক্য খুঁজলে তো হবে না। নিয়ন্ত্রক সংস্থার ভিউ, আর আমাদের ভিউ কিন্তু পুরোপুরি একরকম হবে না।’

আপনার মতামত লিখুন :