লকডাউন এলাকায় ব্যাংক বন্ধ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

করোনাভাইরাসের সংক্রামণ রো‌ধে প্রশাসন যেসব এলাকা লকডাউন কর‌বে ওই এলাকায় অবস্থিত সকল ব্যাংকের শাখা বন্ধ থাকবে।

বুধবার (৮এপ্রিল) বাংলাদেশ ব্যাংক মৌ‌খিকভা‌বে বাণিজ্যিক ব্যাংকগু‌লো‌কে এই নির্দেশনা জানিয়েছে। ব্যাংকগু‌লো এ সংক্রান্ত স্ব স্ব অফিশিয়াল আদেশ জারি করেছে।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক আবু ফরাহ মো. নাসের বলেন, সবার আগের মানুষের জীবন। করোনার সংক্রমণ রোধে প্রশাসনের সাথে আলোচনা করে ব্যাংক বন্ধ রাখা যাবে। সংক্রমিত এলাকায় মানুষের যাতায়াত বন্ধ রাখতে ব্যাংক বন্ধ করা যেতেই পারে।

একই কথা বলছেন পূবালী ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আব্দুল হালিম চৌধুরি। তিনি জানান, লকডাউন ঘোষিত সব এলাকায় ব্যাংক বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছি আমরা। সংক্রমিত এলাকায় ব্যাংকের শাখা খোলা রাখার কোনো প্রশ্নই আসেনা। ব্যাংকারদের নিরাপত্তার বিষয়টা সবার আগে প্রাধান্য দিতে চান তিনি।

তথ্যমতে, ব্যাংক কর্মকর্তা করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ায় রাজধানীর মতিঝিলে অগ্রণী ব্যাংকের প্রিন্সিপাল শাখা লকডাউন করা হয়েছে। ব্যাংকটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মোহম্মদ শামসুল ইসলাম জানান, ব্যাংকের প্রিন্সিপাল শাখার এক কর্মকর্তার জ্বর ছিল। টেস্ট করার পর রেজাল্ট কোভিড-১৯ পজিটিভ পাওয়া গেছে। তাই শাখাটি লকডাউন করে দিয়েছি। যে কর্মকর্তা করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন, তিনি ব্যাংকের বৈদেশিক লেনদেন শাখায় কাজ করতেন। তার সঙ্গে এই সময় ব্যাংকে ছিলেন ৬২ জন, তাদের সবাইকে হোম কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে। আগামী ১৪ দিন ব্যাংক লকডাউন থাকবে। প্রিন্সিপাল শাখার কার্যক্রম মতিঝিল আমিন কোর্ট শাখায় স্থানান্তর করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

এদিকে, মার্কেন্টাইল ব্যাংকের দারুসসালাম শাখার এক কর্মকর্তার কোভিড-১৯ পজিটিভ পাওয়া গেছে। তবে ব্যাংকটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক কামরুল ইসলাম চৌধুরি জানান, শাখাটিতে ২৫ তারিখ অফিস সময় শেষে সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয়। এখনও বন্ধ রয়েছে শাখাটি। তবে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, আক্রান্ত ব্যক্তি ক্রমেই সুস্থ হয়ে উঠছেন।

কৃষি ব্যাংকের বরিশাল শাখার ইউসুফ আলী নামের এক কর্মকর্তা সম্প্রতি মৃত্যু বরণ করেছেন। বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে লোকটি করোনায় আক্রান্ত হয়ে মার গেছের বলে প্রচার হলেও আসলে তিনি হার্ট অ্যাটাক করে মারা গেছেন বলে নিশ্চিত করেছেন ব্যাংকটির এমডি।

সর্বশেষ তথ্যমতে, বাংলাদেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর সংখ্যা ২০ জন। অপর দিকে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ২১৮ জন।

আপনার মতামত লিখুন :