কেন্দ্রে এজেন্ট নেই, বিএনপির অভিযোগ, ‘ঢুকতে দিচ্ছে না’

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ভোটার স্লিপ বিতরণ

ভোটার স্লিপ বিতরণ

  • Font increase
  • Font Decrease

ঢাকা দক্ষিণ ও উত্তর সিটি নির্বাচনের বিভিন্ন কেন্দ্রে ধানের শীষ প্রতীকের পক্ষে একজন পোলিং এজেন্টও পাওয়া যায়নি। এ বিষয়ে বিএনপির অভিযোগ, বিএনপির পক্ষের পোলিং এজেন্টদের কেন্দ্রে ঢুকতে সমস্যা হচ্ছে, ঢুকতে পারলেও কোথাও কোথাও বের করে দেওয়া হচ্ছে। অনেক কেন্দ্রে ঢুকতেই দেওয়া হচ্ছে না। তবে আওয়ামী লীগের দাবি, নির্বাচন নিয়ে বিএনপির মিথ্যা অভিযোগ তাদের রাজনৈতিক কৌশল।

এদিকে দুই সিটির বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা যায়, বাড্ডা হাইস্কুল ভোট কেন্দ্রে সকাল সাড়ে ৯ টার দিকেও বিএনপির কোনো পোলিং এজেন্টকে দেখা যায়নি। দিলকুশা সরকা‌রি প্রাথমিক বিদ্যাল‌য়ের ভোট কেন্দ্রেও বিএনপি কোনো পোলিং এজেন্ট খুঁজে পাওয়া যায়নি।  

দিলকুশা সরকা‌রি প্রাথমিক বিদ্যাল‌য়ের প্রিজাই‌ডিং অ‌ফিসার আবুল হো‌সেন বার্তা২৪.কমকে বলেন, মেয়র প্রার্থী (নৌকা), কাউ‌ন্সিলর প্রার্থীসহ মোট ৯ জন পোলিং এ‌জেন্টের তথ্য পে‌য়ে‌ছি। এর ম‌ধ্যে ধা‌নের শী‌ষের কো‌নো পোলিং এ‌জেন্ট নেই বলে জানান তিনি।

কোন সমস্যা হয়েছে কিনা জানতে চাইলে নির্বাচনী এই কর্মকর্তা বলেন, গতকাল রাত্রে দুই কাউন্সিলর প্রার্থীর (ফারহানা আহমেদ ও মোজাম্মেল হক) সমর্থকদের মধ্যে ঝামেলা হয়েছিল। তবে আজকে কোন সমস্যা নেই সুষ্ঠুভাবে ভোটগ্রহণ চলছে। আশা করছি এটি অব্যাহত থাকবে।

এছাড়া নিউ মার্কেট, আজিমপুর ও কলাবাগান এলাকার কোনো কেন্দ্রে বিএনপির পোলিং এজেন্ট পাওয়া যায়নি। ওই এলাকাগুলোর বিএনপি কাউন্সিলর প্রার্থীরা অভিযোগ করে বলেন, পোলিং এজেন্ট থাকবে কিভাবে, তাদের ভয়-ভীতি দেখানো হচ্ছে। কেন্দ্রে প্রবেশ করতে দেওয়া হচ্ছে না।

রাজধানীর শেরে বাংলা নগর সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে সকাল ১০টা পর্যন্ত ভোটার উপস্থিতি অনেকটাই কম। এই প্রতিষ্ঠানের ৮৮২ নম্বর কেন্দ্রের ৭টি ভোটকক্ষের একটিতেও বিএনপি সমর্থিত প্রার্থীর কোন এজেন্ট নেই প্রিসাইডিং অফিসারের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ৭নম্বর কক্ষের পোলিং অফিসার মো: কবির বার্তা২৪.কমকে বলেন, নৌকা প্রার্থী ছাড়া অন্য কোন প্রার্থীর এজেন্ট আসেনি। তারা কেউ রিপোর্টও করেনি। তবে ভোটের সিস্টেমে কোন সমস্যা নেই।

এদিকে বিএনপির পোলিং এজেন্ট না থাকার বিষয়ে ডিএসসিসি নির্বাচনে বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী ইঞ্জিনিয়ার ইশরাক হোসেন অভিযোগ করে জানান, কেন্দ্র থেকে এজেন্ট বের করে দেওয়া হচ্ছে, এজেন্ট থাকবে কোথা থেকে। একই অভিযোগ করেছেন উত্তর সিটির বিএনপির মেয়র প্রার্থী তাবিউ আউয়ালও।

তবে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের নৌকার মেয়র প্রার্থী ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস জানিয়েছেন, বিএনপির সাংগঠনিক ক্ষমতা নেই তাই এজেন্ট দিতে পারে নি।

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিম বলেন, এখন পর্যন্ত ভোটের পরিবেশ শান্তিপূর্ণ রয়েছে। আমাদের কাছে কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনার খবর আসেনি। বিএনপির লোকজন কিছু কিছু জায়গায় বানোয়াট মিথ্যা অভিযোগ দিচ্ছে। তারা ঠিকই ভোটকেন্দ্রে সুষ্ঠুভাবে ভোট দিয়ে আসছে তারপরও তারা মিথ্যা অভিযোগ দিচ্ছে। এটা তো তাদের একটি রাজনৈতিক কৌশল। 

আপনার মতামত লিখুন :