ভোট দিতে গিয়ে না দিতে পারাটা ভোটারদের ব্যর্থতা: কবিতা খানম



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
র‌্যালিতে বক্তব্য দেন কবিতা খানম, ছবি: বার্তা২৪.কম

র‌্যালিতে বক্তব্য দেন কবিতা খানম, ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

জাতীয় সংসদ, সিটি করপোরেশন এবং স্থানীয় সরকার নির্বাচনে ভোট দিতে গিয়ে ভোট দিতে না পারাটা ভোটারদের ব্যর্থতা বলে দাবি করেছেন নির্বাচন কমিশনার কবিতা খানম।

সোমবার (২ মার্চ) সকালে ভোটার দিবসের র‌্যালি শেষে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রের পাশে এ দাবি করেন তিনি।

কবিতা খানম বলেন, এবারের প্রতিপাদ্য হচ্ছে ‘ভোটার হয়ে ভোট দেব, দেশ গড়ায় অংশ নেব’। এ প্রতিপাদ্যের মধ্যে একটা স্পিরিট আছে, ফোর্স আছে। নিজের অধিকারকে নিজেদের প্রতিষ্ঠা করতে হয়। অন্য কেউ এসে আপনার অধিকার প্রতিষ্ঠা করে দেবে না। শুধু এটুকু বললেই হবে না যে আমি ভোট দিতে গিয়ে দিতে পারিনি - এটা আপনার (ভোটার) ব্যর্থতা। ভোটার হবেন, ভোট কেন্দ্রে যাবেন এবং নিজের অধিকার স্বাধীনভাবে প্রতিষ্ঠা করার সর্বাত্মক চেষ্টা করবেন।

এ সময় ভোটার হওয়াটাই সবচেয়ে বড় কথা নয় বলে মন্তব্য করেন নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার।

তিনি বলেন, এবারের প্রতিপাদ্য- ভোটার হয়ে ভোট দেব, দেশ গড়ায় অংশ নেব। ভোটার হওয়াটাই সবচেয়ে বড় কথা নয়। আর সব ভোটার তো দেশ গড়ায় অংশ নেন না। যারা দেশ গড়ায় অংশ নিতে পারেন, এ রকম যোগ্য লোককে ভোটাররা ভোট দেবেন– এটাই আশা করা যায়।

অবসরপ্রাপ্ত ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শাহাদাত হোসেন চৌধুরী বলেন, স্কুল-কলেজের ছাত্র-ছাত্রী, যারা এখনও ভোটার হয়নি, ভবিষ্যতে ভোটার হবে, যারা এ বছর নতুন ভোটার হয়েছেন এবং যারা ইতোমধ্যে ভোটার আছেন– সবার প্রতি আমাদের আবেদন রইল, ভোটার হয়ে ভোট দেবেন, দেশ গড়ায় অংশ নেবেন।

ভোটারদের গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় অংশ নেয়ার আহ্বান জানিয়ে নির্বাচন কমিশনার মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, ভোটার হয়েছেন, গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় অংশ নিন। দেশটা গড়ে তোলার জন্য অংশগ্রহণ করুন।

এ সময় প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নুরুল হুদা ভোটার দিবসের উদ্বোধনী র‌্যালির সমাপন ঘোষণা করেন।