২০ কোটি রুপির কর ফাঁকি দিয়েছেন সোনু



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
সোনু সুদ

সোনু সুদ

  • Font increase
  • Font Decrease

করোনাভাইরাসের ভয়াবহ পরিস্থিতির মধ্যে হাজার হাজার অভিবাসী শ্রমিককে নিজ বাড়িতে ফিরিয়ে দিয়ে সকলের কাছে ‘মাসিহা’ হয়ে উঠেছিলেন সোনু সুদ। অসহায় ও দরিদ্রের মুখে তুলে দিয়েছিলেন খাবার। করেছিলেন তাদের জন্য রেশনের ব্যবস্থাও। আর সেই সোনুর বিরুদ্ধে উঠল ২০ কোটি রুপির কর ফাঁকির অভিযোগ।

গত ১৫ সেপ্টেম্বর মুম্বাইয়ে সোনু সুদের অফিসে আয়কর কর্মকর্তারা অভিযান চালায়। পরদিন ১৬ সেপ্টেম্বর তার বাড়িতে তল্লাশি চালানো হয়। গত কয়েকদিনে অভিনেতার সঙ্গে যুক্ত মুম্বাই, লখনৌ, কানপুর, জয়পুর, দিল্লি এবং গুরুগ্রামের মোট ২৮টি জায়গায় একযোগে কয়েক ঘণ্টা ধরে অনুসন্ধান চালিয়েছেন ইনকাম ট্যাক্স কর্মকর্তারা। এই তল্লাশি চলাকালীনই অভিনেতার বিরুদ্ধে কর ফাঁকি তথ্য-প্রমাণ হাতে এসেছে।

শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) আনুষ্ঠানিক বিবৃতি দিয়ে আয়কর দফতর থেকে জানানো হলো, ২০ কোটি রুপির কর ফাঁকি দিয়েছেন বলিউডের এই অভিনেতা ও তার সহকর্মীরা।

আয়কর দফতরের দাবি, সোনু সুদের এনজিও-র তরফে বিদেশে থেকে প্রায় ২.১ কোটি টাকা অনুদান হিসেবে তোলা হয়েছে বিভিন্ন ক্রাউডফান্ডিং প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে, যা সরাসরি ফরেন কন্ট্রিবিউশন (রেগুলেশন) অ্যাক্টের লঙ্ঘন।

আয়কর দফতর জানিয়েছে, যেই রোজগারের হিসেব সোনু সুদ লুকাতে চাইতেন, সেটা বেনামী সংস্থাদের থেকে ভুয়া ঋণ নেওয়ার খাতে দেখানো হত। তদন্তকারীরা ইতিমধ্যেই এই ধরণের ২০টি বেনামী লেনদেনের হদিশ পেয়েছেন, যারা সেই ভুয়া ঋণ দিয়েছেন তারা জেরায় স্বীকার করে নিয়েছেন এই জালিয়াতির কথা।

CBDT (The Central Board of Direct Taxes)-এর তরফে জানানো হয়েছে, কেবলমাত্র ১ এপ্রিল ২০২১ থেকে এখনও পর্যন্ত মোট ১৮.৯৪ কোটি রুপি অনুদান হিসেবে সংগ্রহ করেছে সোনু সুদের সংস্থা, যার মধ্যে কেবলমাত্র ১.৯ কোটি সমাজ সেবার কাজে ব্যয় হয়েছে, ফাউন্ডেশনের ব্যাঙ্ক খাতায় ১৭ কোটি টাকা পড়ে রয়েছে। তল্লাশির পর সোনুর অফিস থেকে নগদ ১.৮ কোটি টাকা বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে, পাশাপাশি সোনুর সংস্থার ১১টি লকার পরবর্তী নির্দেশ না আসা পর্যন্ত সিজ করা হয়েছে।