পরীর কণ্ঠে কলকাতার গান, আপ্লুত রণজয়



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা ২৪.কম
পরী মনি ও রণজয় ভট্টাচার্য

পরী মনি ও রণজয় ভট্টাচার্য

  • Font increase
  • Font Decrease

 “কেন রোদের মতো হাসলে না, আমায় ভালোবাসলে না, আমার কাছে দিন ফুরোলেও আসলে না।”- আপন মনে সোমবার (৯ নভেম্বর) রাতে গাইছিলেন পরী মনি। ঘরের জানালা থেকে রাতের শহরের দূরের আলোয় কাউকে খুঁজছিলেন? ছোট্ট একটা ভিডিও ক্লিপস এ পরীমনির বিসন্ন কন্ঠের গানটি ছুঁয়ে গেছে ভক্তদের। এমন করে গানও গাইতে জানেন পরী? গানটি কলকাতার শিলাদিত্য মৌলিকের ‘হৃৎপিণ্ড’ চলচ্চিত্রের একটি গান।

গানটির সুরকার রণজয় ভট্টাচার্য। পরীর কন্ঠে গানটি শুধু বাংলাদেশে নয়, কলকাতার ভক্তদের প্রাণ ছুঁয়ে পৌঁছে গেছে গানের স্রষ্টার কাছেও।

পশ্চিমবঙ্গের একটি গণমাধ্যমে ‘প্রেমে পড়া বারন’খ্যাত রণজয় জানালেন, সোমবার রাত থেকেই অনেকেই তাকে গানটি পৌঁছে দিয়েছেন। দারুণ উচ্ছ্বসিত রণজয়। বললেন, “‘মন কেমনের জন্মদিন’ গানটিকে বাংলার সবাই ভালবেসেছেন। সেটা যে বাংলাদেশে পৌঁছবে এবং পরী মণি গাইবেন, ভাবতেই পারিনি! খুব লোভ হচ্ছে বাংলাদেশ আর পরী মণির সঙ্গে কাজ করার।”

পরী মনিরও কি কলকাতাকে মিস করছেন? এই কিছুদিন আগেই কলকাতা থেকে ঘুরে এলেন পরী। জানালেন, ব্যক্তিগত কাজেই গিয়েছিলেন। তবে, ফিরে এসেও কলকাতা নিয়ে তার আবেগ থামেনি। অনেকদিনের পুরনো কলকাতায় নিজের ছবি কেন প্রকাশ করছেন পরী মনি? সে কথা সময়ই বলে দিবে।

তবে, পরী মনি এখন ব্যস্ততা নেই। গিয়াস উদ্দিন সেলিমের ‘গুনিন’ শেষ হলো মাত্র। কিছুটাদিন ঘরে আপন খেয়ালে সময় কাটছে পরীর। একা ঘরে পরীর কি মন খারাপ? পরীর স্ট্যাটাস বলছে, ‘একা ঘরে থাকতে শিখে গেছি প্রিয়’।

অতো কারণ না খুঁজে কলকাতা থেকে পরীর হয়ে উত্তর দিয়েছেন রণজয়, “এই গানটি ভীষণ নরম, পেলব। এর সুর অনুভূতিপ্রবণ মানুষের মন ছুঁয়ে গিয়েছে। তাই হয়তো ‘মন কেমনের জন্মদিন’ পরী মণিও ভালবেসেছেন।”

আসছে ২০ নভেম্বর থেকে অরণ্য আনোয়ারের মা চলচ্চিত্রের শুটিং এ অংশ নেবেন তিনি। কুয়াশা নামার অপেক্ষায় রয়েছে চলচ্চিত্র ‘প্রীতিলতা’ টিম।

পরীর কণ্ঠে গানটি

 

হলদে পরীর বিয়ে আজ, বর সেই শরিফুল রাজ



বিনোদন রিপোর্ট, বার্তা ২৪.কম
রাজ ও পরী

রাজ ও পরী

  • Font increase
  • Font Decrease

গিয়াস উদ্দিন সেলিমের মুক্তি প্রতীক্ষিত ‘গুণিন’ চলচ্চিত্রে শুটিং করতে গিয়ে তাদের সখ্যতা ও প্রেম। তারপর লুকিয়ে গত বছরের ১৭ অক্টোবর বিয়ে হয় অভিনেতা শরিফুল রাজ ও পরীমনির। তারপর এল সন্তান ধারণের খবর। ফের ‘টক অব দ্য কান্ট্রি’ পরীমনি।

তারপর পারিবারিকভাবে এই প্রথম আনুষ্ঠানিক আয়োজন। গতকাল শুক্রবার (২২ জানুয়ারি) দুই পরিবারের কাছের সদস্যদের উপস্থিতিতে ঘরোয়া আযোজনে হয় পরী ও রাজের গাযে হলুদ। বিয়ের অনুষ্ঠান হতে যাচ্ছে আজ। তার আগে গাযে হলুদের এক ঝলক দেখা যাক।

মেহেদী হাতে রাজ ও পরী

 

গায়ে হলুদ মাখা রাজ-পরী 

পরীর অভিবাবক হিসেবে ছিলেন নির্মাতা গিয়াস উদ্দিন সেলিম ও চয়নিকা চৌধুরী

উপস্থিত ছিলেন অভিনেতা ডিএ তায়েব

গর্ভের সন্তান কি কান পেতে শুনছেন পরী ও রাজের আনন্দোৎসব?

ভালোবাসার বন্ধন দেখিয়ে দিলেন রাজ

 

 

 

 

 

;

বাবা ও মেয়ের গল্পে ‘কাজল’



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা ২৪.কম
তারিক আনাম ও মেহজাবিন

তারিক আনাম ও মেহজাবিন

  • Font increase
  • Font Decrease

ভালোবাসা দিবস উপলক্ষে নির্মিত হচ্ছে নাটক ‘কাজল’। মোস্তফা কামাল রাজের পরিচালনায় নাটকটিতে অভিনয় করছেন মেহজাবিন চৌধুরী ও তারিক আনাম খান।

তাদের নতুন কাজের নাম ‘কাজল’। বাবা ও মেয়েকে কেন্দ্র করে সাজানো হয়েছে এর গল্প।

কাজল মেয়েটি বেশ আত্মবিশ্বাসী। নাটকে নাম ভূমিকায় দেখা যাবে মেহজাবিনকে। তার বাবার চরিত্রে আছেন তারিক আনাম খান। ঘরে-বাইরে বাবা-মেয়ের সম্পর্কের বিভিন্ন বাঁক থাকছে এতে।

‘কাজল’ প্রসঙ্গে মুহাম্মদ মোস্তফা কামাল রাজ বলেন, ‘নাটকটি ভালোবাসা দিবসকে সামনে রেখে বানাচ্ছি। সাধারণত এই বিশেষ দিনে প্রেমিক-প্রেমিকার ভালোবাসার কথা বলাবলি হয়। আমি ভাবলাম, বাবা-মেয়ের ভালোবাসার গল্প বলবো। তাই এটি লিখেছি। তারিক আনাম ভাই আমাদের নাট্যাঙ্গনের সম্পদ। তিনি দারুণ আন্তরিক একজন অভিনেতা। আর মেহজাবিনের গুণের কথা আমরা সবাই জানি। তারা দুই জনই আমার মনের মতো অভিনয় করেছেন এই নাটকে। বাকিটা দর্শকদের ওপর নির্ভর করছে।’

ঢাকার উত্তরায় গত ২০ ফেব্রুয়ারি থেকে নাটকটির দৃশ্যধারণ চলছে। আজ শেষ দিনের কাজ করবেন চিত্রগ্রাহক রাজু রাজ। অন্য দুটি চরিত্রে অভিনয় করছেন মিলি বাশার ও অপ্সরা।

নাটকটির জন্য মেয়ের দৃষ্টিকোণ থেকে বাবাকে নিয়ে একটি গান বানিয়েছেন নির্মাতা মুহাম্মদ মোস্তফা কামাল রাজ। এর সুর ও সংগীত পরিচালনা করেছেন নাভেদ পারভেজ। আবহসংগীত তারই। সম্পাদনা ও রঙ বিন্যাস করবেন রাশেদ রাব্বি।

আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারি ভালোবাসা দিবসে ইউটিউবে সিনেমাওয়ালা চ্যানেলে মুক্তি পাবে ‘কাজল’।

মুহাম্মদ মোস্তফা কামাল রাজের পরিচালনায় সর্বশেষ ‘ম্যাজিক অব লাভ’ নাটকে অভিনয় করেছিলেন মেহজাবিন। তার সহশিল্পী ছিলেন জিয়াউল ফারুক অপূর্ব। ২০১৯ সালের ৬ ডিসেম্বর এটি মুক্তি পায় সিনেমাওয়ালা চ্যানেলে।

;

বাংলাদেশকে অভিনন্দন জানালেন লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিও



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
হলিউড তারকা লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিও

হলিউড তারকা লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিও

  • Font increase
  • Font Decrease

বাংলাদেশের একমাত্র প্রবাল দ্বীপ সেন্টমার্টিন সংলগ্ন বঙ্গোপসাগরের ৭০ মিটার গভীর সমুদ্রের ১ হাজার ৭৪৩ বর্গ কিলোমিটার এলাকাকে মেরিন প্রটেক্টেড এরিয়া হিসেবে ঘোষণা করেছে সরকার। এই উদ্যোগ নেয়ায় সাধুবাদ জানিয়ে বার্তা দিয়েছেন হলিউড তারকা লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিও।

শুক্রবার (২১ জানুয়ারি) নিজের ভেরিফায়েড টুইটার অ্যাকাউন্টে ডিক্যাপ্রিও সেন্টমার্টিনের একটি দৃষ্টিনন্দন ছবি শেয়ার করেছেন। ওয়াইল্ডলাইফ কনজারভেশন সোসাইটির মাধ্যমে এটি পেয়েছেন বলে জানিয়েছেন তিনি। 

টুইটারে ডিক্যাপ্রিও লেখেন, সেন্টমার্টিন দ্বীপের চারপাশে নতুন প্রতিষ্ঠিত সামুদ্রিক সুরক্ষিত অঞ্চলের জন্য বাংলাদেশ সরকার, স্থানীয় জনগোষ্ঠী এবং এনজিওগুলোকে অভিনন্দন। এতে জীববৈচিত্র্যের একটি অসাধারণ পরিমণ্ডলকে রক্ষা করবে এবং বাংলাদেশের একমাত্র প্রবাল প্রাচীরের জন্য প্রাকৃতিক আবাসস্থল জোগান দেবে।

৪৭ বছর বয়সী এই আমেরিকান তারকা অনেক বছর ধরেই জলবায়ু পরিবর্তনের বিরুদ্ধে সোচ্চার। সেই লক্ষ্যে সামাজিকমাধ্যমে জলবায়ু-সম্পর্কিত খবর তুলে ধরেন ডিক্যাপ্রিও।

লিওনার্দো ডিকাপ্রিওকে সর্বশেষ দেখা গেছে নেটফ্লিক্সের ‘ডোন্ট লুক আপ’ ছবিতে। মুক্তির অপেক্ষায় আছে মার্টিন স্করসিস পরিচালিত ‘কিলার্স অব দ্য ফ্লাওয়ার মুন’ ছবিটি।

;

শাহরুখের সন্তানদের জন্য এডিট করা হয়েছিল ‘কাল হো না হো’



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
সাইফ আলি খান, প্রীতি জিনতা ও শাহরুখ খান

সাইফ আলি খান, প্রীতি জিনতা ও শাহরুখ খান

  • Font increase
  • Font Decrease

শাহরুখ খানের তার ক্যারিয়ারের শুরু থেকে এখনও পর্যন্ত যতো জনপ্রিয় ছবি দর্শকদের উপহার দিয়েছেন তার মধ্যে ‘কাল হো না হো’ অন্যতম। ২০০৩ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত এই ছবিটি জনপ্রিয়তার পাশাপাশি সিনেমা প্রেমিরা এর প্রশংসায় পঞ্চমুখও হয়েছে। সেই সঙ্গে পেয়েছে বেশ কয়েকটি পুরস্কারও।

‌‌‘কাল হো না হো’র শেষ দৃশ্যে শাহরুখের মৃত্যু কাঁদিয়েছিল চলচ্চিত্র প্রেমীদের। কিন্তু জানেন কি বলিউড বাদশার সন্তানদের জন্য বিশেষভাবে এডিট করা হয়েছিলো এই ছবিটি।

মুক্তির এক যুগ পর সে কথা নিজে মুখেই স্বীকার করেছিলেন শাহরুখ খান। বলিউড কিং জানিয়েছিলেন ‘কাল হো না হো’তে তার মৃত্যুর দৃশ্যটি তার সন্তানদের কখনও দেখানো হয়নি।

ছবিটির নির্মাতা করণ জোহর নিজে শাহরুখ খানের সন্তানদের জন্য সেই দৃশ্যটি এডিট করেছিলেন বলেও জানান শাহরুেখ।

শাহরুখ খান ছাড়াও ‘কাল হো না হো’তে অভিনয় করেছিলেন সাইফ আলি খান ও প্রীতি জিনতা। এছাড়াও ছিলেন জয়া বচ্চন ও প্রয়াত অভিনেত্রী রীমা লাগু।

;