বিজয়ের মাসে বিটিভির বর্ণাঢ্য আয়োজন



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

মহান বিজয়ের মাস ডিসেম্বর। এছাড়াও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী, মুজিব বর্ষের সমাপনী, শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস, বিজয় দিবস ও বাংলাদেশ টেলিভিশনের ৫৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে পুরো ডিসেম্বর জুড়ে বর্ণাঢ্য আয়োজনে সেজেছে বিটিভির অনুষ্ঠানসূচি।

এ মাসে প্রচারিত হবে একাধিক বিশেষ অনুষ্ঠান। মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক অনুষ্ঠানের পাশাপাশি থাকছে আলেখ্যানুষ্ঠান, প্রামাণ্য অনুষ্ঠান, আলোচনা, নাটক, নৃত্য, সঙ্গীতানুষ্ঠান, শিশুতোষ, শিল্প-সাহিত্য এবং নারী বিষয়ক অনুষ্ঠান। এমনটাই জানিয়েছেন বিটিভির পরিচালক (অনুষ্ঠান ও পরিকল্পনা) জগদীশ এষ।

তিনি বলেন, ‘ডিসেম্বর মাস মহান বিজয়ের মাস। বর্ণাঢ্য আয়োজনে সাজানো হয়েছে বিটিভির এ মাসের অনুষ্ঠানসূচি। মাসব্যাপি অনুষ্ঠানের মাধ্যমে মুক্তিযুদ্ধকে স্বাধীনতা উত্তর প্রজন্মের কাছে সুন্দর এবং সঠিকভাবে তুলে ধরার চেষ্টা করেছি আমরা।’

বিটিভির এক মেইল বার্তায় আরো জানা গেছে, ডিসেম্বরে প্রচারিত হবে আলোচনা অনুষ্ঠান ‘বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ’, বঙ্গবন্ধুর চীন সফর নিয়ে ‘আমার দেখা নয়াচীন’ গ্রন্থ থেকে অনুষ্ঠান, বঙ্গবন্ধুকে নিবেদিত ‘শতবর্ষে শতগান’, বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে গাওয়া গানের বিশেষ চিত্রায়ণ, বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে ১০০টি কবিতার উপর অনুষ্ঠান, বঙ্গবন্ধুর জেল জীবনের উপর প্রামাণ্য অনুষ্ঠান ও খ্যাতিমান চিত্রশিল্পীদের অংশগ্রহণে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে চিত্রাঙ্কন এবং ৫টি বিশেষ নাটক।

৫টি নাটক হলো, বিটিভির মহাপরিচালক সোহরাব হোসেনের মূল ভাবনায় ও লিটু সাখাওয়াতের রচনা এবং শাহ জামান মিয়ার প্রযোজনায় ‘অনুতপ্ত’, ফুলেশ্বরী প্রিয়নন্দিনীর রচনা ও আফরোজা সুলতানার প্রযোজনায় ‘অশ্রুত ৭১’, ইকবাল খন্দকারের রচনা ও সাদিকুল ইসলাম নিয়োগীর প্রযোজনায় ‘একটি ময়না পাখির গল্প’, মাসুম রেজার রচনা ও আব্দুল্যাহ আল মামুনের প্রযোজনায় ‘পানু কমান্ডার’ ও হারুন রশীদের রচনা এবং এল রুমা আকতারের প্রযোজনায় ‘সেই পুরানো শকুন’।

আরও থাকছে প্রামাণ্য অনুষ্ঠান ‘বিজয় গাঁথা-৭১’, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক অনুষ্ঠান ‘মুক্তিযুদ্ধের ৯ মাস’ প্রামাণ্য অনুষ্ঠান ‘‘উন্নয়ন ও বিজয় দিবস’, আলোচনা অনুষ্ঠান ‘স্মৃতি গাঁথায় বিজয়’, বঙ্গবন্ধুর উপর লেখা কবিতার চিত্রায়ণ, শিশুদের নিয়ে বিশেষ অনুষ্ঠান, শহীদ বুদ্ধিজীবী পরিবারের সদস্যদের স্মৃতিচারণ নিয়ে বিশেষ অনুষ্ঠান, প্রামাণ্য অনুষ্ঠান ‘একাত্তরের বধ্যভূমি’, আলোচনা অনুষ্ঠান ‘শহিদের স্মরণে নানান দিক’, স্বরচিত কবিতা পাঠের অনুষ্ঠান, স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের শিল্পীদের গান নিয়ে অনুষ্ঠান, প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে জুম সংযোগে বিশেষ অনুষ্ঠান, একাত্তরে জন্ম এবং মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও পরিবারের সদস্যদের নিয়ে অনুষ্ঠান, বিশেষ অনুষ্ঠান ‘৫০ বছরের কথা’, ‘রণাঙ্গনের চিঠি’, ‘বঙ্গবন্ধু এবং উন্নয়নের উপর দশ গান’ নিয়ে সঙ্গীতানুষ্ঠান এবং মুক্তিযুদ্ধে বাঙালি নারীর অবদান নিয়ে বিশেষ অনুষ্ঠান।

বাংলাদেশকে অভিনন্দন জানালেন লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিও



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
হলিউড তারকা লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিও

হলিউড তারকা লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিও

  • Font increase
  • Font Decrease

বাংলাদেশের একমাত্র প্রবাল দ্বীপ সেন্টমার্টিন সংলগ্ন বঙ্গোপসাগরের ৭০ মিটার গভীর সমুদ্রের ১ হাজার ৭৪৩ বর্গ কিলোমিটার এলাকাকে মেরিন প্রটেক্টেড এরিয়া হিসেবে ঘোষণা করেছে সরকার। এই উদ্যোগ নেয়ায় সাধুবাদ জানিয়ে বার্তা দিয়েছেন হলিউড তারকা লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিও।

শুক্রবার (২১ জানুয়ারি) নিজের ভেরিফায়েড টুইটার অ্যাকাউন্টে ডিক্যাপ্রিও সেন্টমার্টিনের একটি দৃষ্টিনন্দন ছবি শেয়ার করেছেন। ওয়াইল্ডলাইফ কনজারভেশন সোসাইটির মাধ্যমে এটি পেয়েছেন বলে জানিয়েছেন তিনি। 

টুইটারে ডিক্যাপ্রিও লেখেন, সেন্টমার্টিন দ্বীপের চারপাশে নতুন প্রতিষ্ঠিত সামুদ্রিক সুরক্ষিত অঞ্চলের জন্য বাংলাদেশ সরকার, স্থানীয় জনগোষ্ঠী এবং এনজিওগুলোকে অভিনন্দন। এতে জীববৈচিত্র্যের একটি অসাধারণ পরিমণ্ডলকে রক্ষা করবে এবং বাংলাদেশের একমাত্র প্রবাল প্রাচীরের জন্য প্রাকৃতিক আবাসস্থল জোগান দেবে।

৪৭ বছর বয়সী এই আমেরিকান তারকা অনেক বছর ধরেই জলবায়ু পরিবর্তনের বিরুদ্ধে সোচ্চার। সেই লক্ষ্যে সামাজিকমাধ্যমে জলবায়ু-সম্পর্কিত খবর তুলে ধরেন ডিক্যাপ্রিও।

লিওনার্দো ডিকাপ্রিওকে সর্বশেষ দেখা গেছে নেটফ্লিক্সের ‘ডোন্ট লুক আপ’ ছবিতে। মুক্তির অপেক্ষায় আছে মার্টিন স্করসিস পরিচালিত ‘কিলার্স অব দ্য ফ্লাওয়ার মুন’ ছবিটি।

;

শাহরুখের সন্তানদের জন্য এডিট করা হয়েছিল ‘কাল হো না হো’



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
সাইফ আলি খান, প্রীতি জিনতা ও শাহরুখ খান

সাইফ আলি খান, প্রীতি জিনতা ও শাহরুখ খান

  • Font increase
  • Font Decrease

শাহরুখ খানের তার ক্যারিয়ারের শুরু থেকে এখনও পর্যন্ত যতো জনপ্রিয় ছবি দর্শকদের উপহার দিয়েছেন তার মধ্যে ‘কাল হো না হো’ অন্যতম। ২০০৩ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত এই ছবিটি জনপ্রিয়তার পাশাপাশি সিনেমা প্রেমিরা এর প্রশংসায় পঞ্চমুখও হয়েছে। সেই সঙ্গে পেয়েছে বেশ কয়েকটি পুরস্কারও।

‌‌‘কাল হো না হো’র শেষ দৃশ্যে শাহরুখের মৃত্যু কাঁদিয়েছিল চলচ্চিত্র প্রেমীদের। কিন্তু জানেন কি বলিউড বাদশার সন্তানদের জন্য বিশেষভাবে এডিট করা হয়েছিলো এই ছবিটি।

মুক্তির এক যুগ পর সে কথা নিজে মুখেই স্বীকার করেছিলেন শাহরুখ খান। বলিউড কিং জানিয়েছিলেন ‘কাল হো না হো’তে তার মৃত্যুর দৃশ্যটি তার সন্তানদের কখনও দেখানো হয়নি।

ছবিটির নির্মাতা করণ জোহর নিজে শাহরুখ খানের সন্তানদের জন্য সেই দৃশ্যটি এডিট করেছিলেন বলেও জানান শাহরুেখ।

শাহরুখ খান ছাড়াও ‘কাল হো না হো’তে অভিনয় করেছিলেন সাইফ আলি খান ও প্রীতি জিনতা। এছাড়াও ছিলেন জয়া বচ্চন ও প্রয়াত অভিনেত্রী রীমা লাগু।

;

নিক-প্রিয়াঙ্কার ঘরে এলো রাজকন্যা



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
প্রিয়াঙ্কা চোপড়া ও নিক জোনাস

প্রিয়াঙ্কা চোপড়া ও নিক জোনাস

  • Font increase
  • Font Decrease

বছর খানেক প্রেমের পর ২০১৮ সালে বিয়ের বন্ধনে আবদ্ধ হন নিক জোনাস ও প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। বিয়ের পর থেকে এই তারকা দম্পতি সবচেয়ে বেশি যে প্রশ্নের সম্মুখীন হয়েছেন তা হলো- তাদের ঘরে কবে নতুন অতিথির আগমন ঘটতে যাচ্ছে? অবশেষে নিক-প্রিয়াঙ্কার ভক্তদের অপেক্ষার অবসান ঘটলো।


শনিবার (২২ জানুয়ারি) মধ্যরাতে মা হওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ইনস্টাগ্রামে সাবেক এই বিশ্বসুন্দরী জানিয়েছেন, সারোগেসির মাধ্যমে সন্তান এসেছে তাদের কোলে। সবার আশীর্বাদ প্রার্থনা করেছেন তারা। একইসঙ্গে সকলকে অনুরোধ করে তিনি জানান, আপাতত তাদের ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে বাড়তি কৌতূহল দেখানো যেন বন্ধ করেন সবাই। 


পশ্চিমা সংবাদমাধ্যম টিএমজেড’র প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে জানা গেছে, সারোগেসি পদ্ধতির মাধ্যমে কন্যা সন্তানের বাবা-মা হয়েছেন নিক জোনাস ও প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। শনিবার (২২ জানুয়ারি) রাতে সাউদার্ন ক্যালিফোর্নিয়া হাসপাতালে এই তারকা দম্পতির রাজকন্যার জন্ম হয়। যদিও বা নবজাতকের নাম এখনও পর্যন্ত প্রকাশ করা হয়নি।

ক’দিন আগে ভ্যানিটি ফেয়ার ম্যাগাজিনে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ফ্যামিলি প্ল্যানিং নিয়ে খোলাখুলি আলোচনা করেছিলেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। বলিউডের এই সুন্দরী সেখানে বলেছিলেন, সন্তান তাদের ভবিষ্যতের একটি অংশ। ঈশ্বরের আশীর্বাদ যখন হওয়ার হবে তখন হয়ে যাবে।


কিন্তু এই তারকা দম্পতি যে এভাবে সুখবরটি দেবেন তা হয়ত কেউ ধারণা করেননি।

;

প্রতিবেশীর প্রতি পোষা কুকুর হত্যার অভিযোগ আনলেন সোনিয়া রিফাত



বিনোদন রিপোর্ট, বার্তা ২৪.কম
সোনিয়া রিফাত ও নিহত কুকুর

সোনিয়া রিফাত ও নিহত কুকুর

  • Font increase
  • Font Decrease

প্রাণবিক মানুষ হিসেবেই স্যোসাল মিডিয়ায় পরিচিত মডেল ও উপস্থাপিকা সোনিয়া রিফাত। তার পোষা কুকুরকে গাড়ি চাপা দিয়ে হত্যা করা হয়েছে বলে তিনি অভিযোগ আনলেন।

তার দাবি, ঘাতক গাড়ির চালক একই বিল্ডিংয়ের একটি ফ্লাটের বাসিন্দার ড্রাইভার। গাড়িটির মালিক গৌতম, একটি ফাইন্যান্স কোম্পানিতে কর্মরত। জানা যায়, কুকুরটি ‘গার্ড ডগ’ হিসেবে থাকতো বিল্ডিংয়ের সামনে। খুব আদর যত্নে পুষতেন সোনিয়া রিফাত।

বিগত কয়েক মাস ধরে বিল্ডিংয়ের কয়েকজন বাসিন্দা কুকুরটারে বিনা কারণে অপসারনের জন্য চাপ দিয়ে যাচ্ছিলেন। তারপর হঠাৎ ১৬ জানুয়ারি রাত ৯টার দিকে বিল্ডিংয়ের গ্যারেজের সামনে ঘুমিয়ে থাকা কুকুরটার উপর দিয়ে গাড়ি চালিয়ে গ্যারেজে ঢুকে যায় গাড়িটি। দু’দিন চিকিৎসা চলার পর ১৯ জানুয়ারি সকালে মারা যায় কুকুরটি। কুকুরটির নাম ছিলো কুকি।

ঘাতক ড্রাইভারের সাথে যোগাযোগ করে কেন এরকমটা করেছেন জানার চেষ্টা করলে গাড়ির মালিক গৌতম তার ড্রাইভারের সাথে কোন রকম কথা বলতেও দেননি সোনিয়া রিফাতকে। এতে তার সন্দেহ হয় যে, গৌতম ইচ্ছাকৃতভাবে ড্রাইভারকে দিয়ে ব্যাপারটা ঘটিয়েছেন যেহেতু আগেও কুকুর নিয়ে তাদের আপত্তি ছিলো।

এদিকে, বিষয়টি নিয়ে মামলা করতে থানায় গেলে তিনটি থানা ঘুরেও মামলা করতে পারেন নি বলে জানিয়েছেন সোনিয়া। তিনি জানান, বৃহস্পতিবার প্রথমে কাফরুল থানায় মামলা করতে যান তিনি। তারা দাবি করেন ঘটনাস্থল শেওড়াপাড়া তাদের এরিয়ায় না। তারা মিরপুর-২ থানায় যোগাযোগ করতে বলে। তিনি সেখানে গেলে তারা কুকুরের হত্যার মামলা করতে চাওয়ায় ভৎর্সনা পাওয়ারও অভিযোগ করেন তিনি। থানার পক্ষ থেকে বলা হয়-‘এই এলাকা আমাদের অধীনে না আপনি শেরে বাংলা থানায় যোগাযোগ করেন’। শেরে বাংলা থানায় গেলে সেখানে তারা তদন্ত করবে বলে আশ্বাস দেয়। বিষয়টা আন্তরিকতার সাথে নেয়। কিন্তু বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় সেই থানা থেকেও তদন্তে এসে, পুলিশ জানায় এই এলাকা শেরে বাংলা থানার অধীনেও না।

সোনিয়া রিফাতের প্রশ্ন. তাহলে তিনি এবং তার হতভাগা কুকুরটি আসলে কোন থানার বাসিন্দা? সোনিয়া রিফাত বলেন, “আমি আদালতের মাধ্যমে মামলা লড়ার প্রস্তুতি নিচ্ছি। প্রাণী অধিকার আইনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হলে প্রানীদের প্রতি সহিংসতা চালাতে অনেকেই ভয় পাবে বলে মনে করি।”

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেও বিষয়টি নিয়ে বিভিন্ন মন্তব্য ও আলোচনা করছেন নেটিজেনরা।

;