আড়াইশো বছর আগের ঢাকা দেখাবে ‘জিন্দাবাহার’



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা ২৪.কম
নাটকের একটি দৃশ্য

নাটকের একটি দৃশ্য

  • Font increase
  • Font Decrease

নাট্যকার-অভিনেতা ও নির্দেশক মামুনুর রশীদের কলমে উঠে আসছে ঢাকার অষ্টাদশ শতাব্দীর ইতিহাস। বাংলাদেশ টেলিভিশনের (বিটিভি) জন্য তিনি রচনা করেছেন ‘জিন্দাবাহার’ নামে দীর্ঘ একটি ধারাবাহিক নাটক।

এর প্রযোজনা ও নির্দেশনায় রয়েছেন ফজলে আজিম জুয়েল। আগামী ১৬ জানুয়ারি রবিবার থেকে প্রচার শুরু হচ্ছে তারকাবহুল ৫২ পর্বের এই ধারাবাহিকটি।

ধারাবাহিক নাটকটির রচয়িতা মামুনুর রশীদ বলেন, “ঢাকা শহরটা খুব অভাগিনী। কয়েকবার রাজধানী পরিবর্তিত হয়েছে। ঢাকার দুঃখ-দুদর্শা নিয়ে গবেষণা হলেও সেভাবে কোনো ফিকশন নির্মিত হয়নি। একসময় জিনজিরা প্রাসাদও ঝলমলে ছিল। পরবর্তীকালে পরিত্যাক্ত হয়ে যায়। রাজধানী মুর্শিদাবাদে স্থানান্তরিত হলে ঢাকাও একসময় পরিত্যাক্ত হয়ে পড়ে। তখন ঢাকার অবস্থা কেমন ছিল? এসবেরই প্রতিচ্ছবি আছে ‘জিন্দাবাহার’ নাটকে।

একপর্যায়ে আবার নীলকুটি স্থাপন, মসলিনশিল্পের বিপ্লবের মধ্য দিয়ে ধীরে ধীরে ঢাকা আবার সরব হতে থাকে। আসলে আমাদের ঢাকার অনেক করুণ ইতিহাস আছে। আমার অনেকদিনের ইচ্ছে ছিল তা নিয়ে কিছু লেখা। সেই প্রয়াস থেকেই ‘জিন্দাবাহার’। জিন্দা মানে জীবিত আর বাহার হলো বসন্ত। আসলে ঢাকা একটা জীবিত বসন্তের জায়গা।”


নির্মাতা ফজলে আজিম জুয়েল জানান, “২০০ বা ৩০০ বছর আগের ইতিহাস নিয়ে বাংলা নাটক কিংবা টেলিভিশন চ্যানেলে সেভাবে কাজ হয়নি। সে সময়ের ঢাকা আমাদের কাছে অনেকটাই অজানা। দীর্ঘ এই ধারাবাহিকের মধ্য দিয়ে এ সময়ের দর্শকরা অষ্টাদশ শতাব্দীর ঢাকাকে জানতে পারবে। শেষ নবাবের মৃত্যুর পর আট বছর কারাবন্দি ছিলেন নবাবের আপনজনেরা। আমরা এই আট বছরের গল্পটাই দেখাবো।”

এই ধারাবাহিকে দর্শকরা কী নতুনত্ব পাবে জানতে চাইলে তিনি বলেন, “নাটকের সব কাজই হয়েছে ইনডোরে। আড়াইশো বছর আগের এই গল্পটা দেখাতে গিয়ে আমরা ডিফরেন্ট লাইটিং প্যাটার্ন, দুর্দান্ত সেট ডিজাইন ও ভিএফএক্স প্রযুক্তির ব্যবহার করেছি। আমাদের টেলিভিশন নাটকে এটার ব্যবহার নেই বললেই চলে। ফোর-কে প্রযুক্তি ব্যবহার করে এই নাটকটি সিনেমাটিকভাবে উপস্থাপনের চেষ্টা করেছি। সবমিলিয়ে দর্শকরা ভালো একটা কাজ উপভোগ করতে পারবে।”


সপ্তাহে প্রতি রবিবার, সোমবার ও মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৯টায় প্রচারিত হবে এ নাটকটি। ধারাবাহিকটিতে একসঙ্গে দেখা মিলবে জনপ্রিয় সব তারকাদের।

অভিনয় করেছেন মামুনুর রশীদ, লুৎফর রহমান জর্জ, আজাদ আবুল কালাম, আহমেদ রুবেল, অনন্ত হীরা, শতাব্দী ওয়াদুদ, শাহ আলম দুলাল, সমু চৌধুরী, শামীম ভিস্তি, শ্যামল জাকারিয়া, রোজী সিদ্দিকী, মুনিরা বেগম মেমী, নাজনীন চুমকি, শর্মীমালা, নাইরুজ সিফাত, নিকিতা নন্দিনী, আলিফ চৌধুরী, সাদমান প্রত্যয়, ইউসুফ রাসেল, শাকিলসহ আরো অনেকে।

করোনা আক্রান্ত হয়েও শুটিং করলেন অমিতাভ



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা ২৪.কম
অমিতাভ রেজা চৌধুরী

অমিতাভ রেজা চৌধুরী

  • Font increase
  • Font Decrease

করোনা আক্রান্ত হলেন নির্মাতা অমিতাভ রেজা চৌধুরী। তথ্যটি নিজেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জানান ‘আয়নাবাজি’খ্যাত এ নির্মাতা। তিনি জানান, করোনা আক্রান্ত হলেও তিনি থেমে থাকেন নি। বিজ্ঞাপনের শুটিং চালিয়ে গেছেন ঘরে বসেই।

অমিতাভ রেজা বলেন, “আমি কোভিড পজেটিভ। হেয়ার স্পেশালিস্ট এসেছে বিদেশ থেকে। দুর্দান্ত একটা শুটের জন্য আমাদের পুরো টীম তৈরি। এর মাঝে এই বিপদ। অসুখ বিসুখ কখনো কিছু করতে পারে নাই আমাকে, ৩০ বছরের অ্যাঙ্কিলোসিস স্পডিলিটিস নিয়ে যখন পার করছি তখন কোভিড কি করবে? শুটিং অবশ্য সময় মতো হতে হবে। নিজে ঘরে থেকে পুরো শুটিং শেষ হলো। ”

তার মতে, বিজ্ঞাপনচিত্র নির্মাণ খুব বিশেষ কিছু না , কিন্তু যেকোনো পরিস্হিতিতে শুট চালিয়ে যাওয়া যায় যদি সঠিক পূর্ব প্রস্তুতি এবং পেশাদার দল থাকে। বিজ্ঞাপনচিত্রটিতে অভিনয় করেছেন বিদ্যা সিনহা মিম।

খুব শিগগিরই এটি টিভি পর্দায় দেখা যাবে।

;

করোনায় আক্রান্ত শাবনাজ, জানালেন নাঈম



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা ২৪.কম
শাবনাজ ও নাঈম

শাবনাজ ও নাঈম

  • Font increase
  • Font Decrease

করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন চিত্রনায়িকা শাবনাজ। তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন তার স্বামী নায়ক নাঈম। আক্রান্ত হওয়ার পর নিজ ঘরেই আইসোলশনে আছেন শাবনাজ। বাসায় সবার থেকে আলাদা থাকছেন।

নাঈম জানান, গতকাল (২২ জানুয়ারি) জ্বর ছিল শাবনাজের। তাৎক্ষণিক পরীক্ষায় করোনা শনাক্ত হয়। বর্তমানে ডাক্তারের পরামর্শ মেনে চলছেন তিনি।

নাঈম বলেন, “শাবনাজ করোনায় আক্রান্ত, আপনারা সবাই শাবনাজের সুস্থতার জন্য দোয়া করবেন। আপনাদের সবাইকে অনুরোধ করছি সাবধানে থাকবেন এবং অবশ্যই মাক্স ব্যাবহার করবেন।
আল্লাহ শাবনাজকে তারাতারী সুস্থতা দান করুন।

১৯৯১ সালের ৪ অক্টোবর ‘চাঁদনী’ সিনেমায় জুটি হয়ে সবার সামনে আসেন নাঈম-শাবনাজ। বাংলা চলচ্চিত্রের রোমান্টিক জুটি হিসেবে খ্যাত এই দম্পতি বর্তমানে বসবাস করছেন টাঙ্গাইলে।

;

এফডিসিতে মোম জ্বেলে নায়করাজকে স্মরণ



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা ২৪.কম
নায়করাজ রাজ্জাকের জন্মদিন উদযাপন

নায়করাজ রাজ্জাকের জন্মদিন উদযাপন

  • Font increase
  • Font Decrease

কিংবদন্তি অভিনেতা প্রয়াত নায়করাজ রাজ্জাকের ৮১তম জন্মদিন আজ। এফডিসিতে মোম জ্বালিয়ে দিনটি উদযাপন করলেন শিল্পীদের একাংশ।

আসন্ন শিল্পী সমিতির নির্বাচনে সভাপতি প্রার্থী ইলিয়াস কাঞ্চন তার প্যানেলের প্রার্থী ও সমর্থকদের নিয়ে মোমবাতি জ্বালিয়ে উদযাপন করলেন সিনিয়র অভিনেতার জন্মদিন। কাটলেন কেক।

কেক কাটার আগে নায়ক রাজের আত্মার শান্তি কামনা করে ইলিয়াস কাঞ্চন বলেন, “নয়নের সামনে আজ রাজ্জাক ভাই নাই। কিন্তু তিনি আছেন আমাদের সবার অন্তরে। তিনি আমাদের অভিভাবক ছিলেন, শিল্পী সমিতির প্রথম নির্বাচিত সভাপতি। তার সঙ্গে আমার সম্পর্ক কেমন ছিলো তা আপনারা সবাই জানেন। অভিনয়ে আসার আগে থেকেই রাজ্জাক ভাইয়ের স্নেহ পেয়েছি। আজ ওনার জন্য দোয়া করি। যেখানেই থাকেন, আল্লাহ যেন তাকে ভালো রাখেন। তিনি ইন্ডাস্ট্রি রেখে গেছেন, যে সমিতির দায়িত্ব পালন করেছেন, আমরাও যেন সেভাবে দায়িত্ব পালন করতে পারি সেই তৌফিক চাইছি।”


তিনি আরও বলেন, 'রাজ্জাক ভাইয়ের আত্মা শান্তিতে থাকুক। তার স্ত্রী আছেন, ছেলেরা আছে, নাতি নাতনিরা আছে। সবার জন্য সুভকামনা করি। সবাই যেন সুস্থ থাকে, শান্তিতে থাকে।'

এসময় উপস্থিত ছিলেন সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী অভিনেত্রী নিপুণ। আরও ছিলেন নায়ক রিয়াজ, ফেরদৌস, সাইমন, ইমন, নিরব, নায়িকা কেয়া, শাহনূর, জেসমিনসহ অনেকে।

;

লাইফ সাপোর্টে অভিনেতা তুষার খান



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা ২৪.কম
তুষার খান

তুষার খান

  • Font increase
  • Font Decrease

মঞ্চ, টেলিভিশন ও চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় অভিনেতা তুষার খান অসুস্থ হয়ে রাজধানীর গ্রীন লাইফ হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। তার করোনা পরীক্ষার রেজাল্ট পজেটিভ এসেছে। বর্তমানে তাকে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়েছে। গণমাধ্যমকে খবরটি নিশ্চিত করেছেন অভিনয়শিল্পী সংঘের সাধারণ সম্পাদক আহসান হাবিব নাসিম।

নাসিম জানান, বেশ ক’দিন ধরেই তুষার খান অসুস্থ। শনিবার (২২ জানুয়ারি) অবস্থার অবনতি হলে তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে ডাক্তাররা তাকে ভর্তি করিয়ে নেন। ফুসফুসে সংক্রমণের কারণে তার কথা বলতেও সমস্যা হচ্ছে। তার করোনা পজেটিভ এসেছে। এ মুহূর্তে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়েছে। রবিবার (২৩ জানুয়ারি) তার করোনা পরীক্ষার রেজাল্ট পজিটিভ আসে।

উল্লেখ্য, তিন যুগের বেশি সময় ধরে অভিনয় করে যাচ্ছেন তুষার খান। ১৯৮২ সালে ‘আরণ্যক’ নাট্যদলের সঙ্গে যুক্ত হয়ে তার পথচলার সূচনা। এরপর দলটির প্রায় সব নাটকে অভিনয় করেছেন তিনি। মঞ্চের গণ্ডি ছাড়িয়ে টেলিভিশন ও সিনেমার পর্দায় নিয়মিত হন তুষার খান। অসংখ্য নাটকে তার অভিনয় দর্শককে মুগ্ধ করেছে। সিনেমায়ও তার অভিনয় আলাদাভাবে প্রশংসিত হয়েছে।

;