ইলিয়াস কাঞ্চনকে জায়েদ- ‘এইসব নোংরামি বন্ধ করেন’



বিনোদন রিপোর্ট, বার্তা ২৪.কম
ইলিয়াস কাঞ্চন ও জায়েদ খান

ইলিয়াস কাঞ্চন ও জায়েদ খান

  • Font increase
  • Font Decrease

সোমবার সকালে চিত্রনায়িকা শিমু হত্যাকাণ্ডে বস্তাবন্দী লাশ উদ্ধারের সন্দেহের তীর ওঠে চিত্রনায়ক জায়েদ খানের বিরুদ্ধে। স্যোসাল মিডিয়ায় গুঞ্জন, আসন্ন শিল্পী সমিতি নির্বাচনের ঠিক দশদিন আগে এমন রহস্যময় হত্যাকাণ্ডে সাধারণ সম্পাদক পদপ্রার্থী জায়েদের সংশ্লিষ্টতার কথা।

হাওয়ায় সেই গুঞ্জন বাড়তে না দিয়ে এ বিষয়ে মুখ খুলতে মধ্যরাতেই গণমাধ্যমের মুখোমুখি হন জায়েদ খান। সঙ্গে নিয়ে উপস্থিত হন শিমুর ভাই শহিদুল ইসলাম খোকনকে। জানান, তিনি ষড়যন্ত্রের শিকার।

গণমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে খোকন দাবি করেন, শিমুকে হত্যার পেছনে দায়ি তার স্বামী। জায়েদ খানকে নির্দোষ দাবি করেন তিনি।

অন্যদিকে জায়েদ খান জানান, হত্যাকাণ্ডের খবর জানার পর থেকে শিমুর বড়ভাইকে তিনিই সহযোগিতা করেছেন আইনি আশ্রয় নিতে।

তিনি বলেন, “শিমুর হত্যার তীব্র প্রতিবাদ জানাই আমি। আমি র‌্যাবকে ধন্যবাদ জানাই যে, তারা ইতোমধ্যে আসামিকে ধরে ফেলেছে। গতকাল বিকেলে আমি যখন শিল্পী সমিতির নির্বাচন নিয়ে ব্যস্ত তখন শিমুর ভাই আমাকে পাশে ডেকে নিয়ে বললেন, জায়েদ ভাই, কাল থেকে শিমুকে খুঁজে পাচ্ছি না। কলাবাগান থানায় জিডি করেছি। আপনার সহযোগিতা চাই। আমি তাৎক্ষণিক এ বিষয়ে সহযোগিতার হাত বাড়াই।

আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য আমার ভাই নাজমুলকে বিষয়টি জানাই। শিমুর ফোন নম্বর দিয়ে তার সর্বশেষ লোকেশনটা কোথায় তা জানতে বলি। এরপরেই নাজমুল জানান, কেরানীগঞ্জে শিমুর ডেডবডি পাওয়া গেছে।”

নির্বাচনকে ঘিরে তার নামে এ ধরণের ষড়যন্ত্র ও মিথ্যা অভিযোগ ছড়ানোয় বিরোধী শিবিরকে দায়ি করেন জায়েদ খান। তিনি বলেন, “ঘটনার পর পর আমাকে জড়ানোর ষড়যন্ত্র চলছে। বলা হচ্ছে, ১২দিন আগে শিমুর সঙ্গে আমার ঝগড়া হয়েছে। অথচ গত দুই বছর ধরে আমার সঙ্গে তার কোনো যোগাযোগ নাই।”

“একদল লোক আছে যারা সুন্দর একটি নির্বাচনকে কলঙ্কিত করতে চাচ্ছে। এরা সবখানে রাজনীতি করার চেষ্টা করছে! একটা হত্যাকাণ্ড ঘটেছে তার বিচার চাইবে কী, সেটা নিয়ে রাজনীতি করার চেষ্টা করছে। আসন্ন শিল্পী সমিতির নির্বাচনে আমাকে চাপে ফেলার চেষ্টা করছে। আমি চাই, প্রকৃত খুনিদের খুঁজে বের করা হোক।”-যোগ করেন জায়েদ খান।

তিনি জানান, কয়েকজন নামধারী শিল্পী তার বিরুদ্ধে অপপ্রচার করছেন। তাদের বিরুদ্ধে তিনি শিগগিরই আইনি আশ্রয় নিবেন।

এদিকে, শিল্পী সমিতির নির্বাচনে ২০১৭ সালে জায়েদ খান সাধারণ সম্পাদক হয়ে দায়িত্ব পাওয়ার পর ১৮৪জন শিল্পীর সদস্য পদ হারানো নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে ক্ষোভ ও বঞ্চনার কথা বলে আসছিলেন শিল্পীরা। তাদের মধ্যে ছিলেন চিত্রনায়িকা শিমুও। হত্যাকাণ্ডের ঘটনার পর জায়েদ খানের বিরুদ্ধে সংবাদ মাধ্যমে চিত্রনায়িকা শিমুর একটি পুরনো সাক্ষাতকারও স্যোসাল মিডিয়ায় নতুন করে ভাইরাল হয়েছে।

সোমবার রাতে, এফডিসিতে সদস্যপদ হারানো শিল্পীদের সঙ্গে মতবিনিময় কালে চিত্রনায়ক রিয়াজ আবেগাক্রান্ত হয়ে কেঁদে ফেলেন। বিষয়টিকে ‘মেকি কান্না’ বলে অভিহিত করে, বিরোধী প্যানেলের সভাপতি প্রার্থী ইলিয়াস কাঞ্চনকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, “ইলিয়াস কাঞ্চন ভাইকে বলবো, আপনারা সম্মানিত মানুষ, ভালোবাসার মানুষ এইসব নোংরামি বন্ধ করেন। রিয়াজ ভাই অভিনয় করে মেকি কান্না করছে। উনিই এদেরকে সহযোগি সদস্য করেছিলেন।”

প্রসঙ্গত, সোমবার (১৭ জানুয়ারি) রাতে নায়িকা শিমুকে হত্যাকাণ্ডে জড়িত সন্দেহে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য স্বামী সাখাওয়াত আলী নোবেলকে গ্রেফতার করেছিল পুলিশ। হত্যার সঙ্গে জড়িত বন্ধু ফরহাদকেও গ্রেফতার করেছে পুলিশ। রাতভর জিজ্ঞাসাবাদের পর দায় স্বীকার করে নোবেল। সোমবার সকালে রাজধানীর কেরানীগঞ্জের হযরতপুর ব্রিজের নীচ থেকে শিমুর মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ ঢাকায় স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ (মিটফোর্ড) হাসপাতালে মর্গে রাখা হয়।

১৯৯৮ সালে কাজী হায়াৎ পরিচালিত ‘বর্তমান’ সিনেমা দিয়ে রুপালি পর্দায় তার অভিষেক হয়। একে একে অভিনয় করেছেন ৫০টিরও বেশি নাটকে। অভিনয়ের পাশাপাশি প্রযোজক হিসেবেও দর্শকরা তাকে পর্দায় পেয়েছে। ২৩টি সিনেমায় তিনি অভিনয় করেছিলেন বলে জানা গেছে।

গোপনে বিয়ে সারলেন আলোচিত মডেল সানাই!



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, নীলফামারী
গোপনে বিয়ে সারলেন আলোচিত মডেল সানাই!

গোপনে বিয়ে সারলেন আলোচিত মডেল সানাই!

  • Font increase
  • Font Decrease

নীলফামারীতে গোপনে বিয়ের পিড়িতে বসেছেন আলোচিত সমালোচিত সানাই মাহবুব।

গত বছর অভিনয় ছেড়ে দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছিলেন এই সানাই মাহবুব। তারপর থেকেই আর আলোচনায় নেই তিনি। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সচল থাকলেও আগের মতো খোলামেলাভাবে আর দেখা যায় না তাকে।

তবে নতুন খবর হচ্ছে, শুক্রবার (২৭ মে) নীলফামারী পৈতিক নিবাসে গোপনে বিয়ের পিঁড়িতে বসলেন আলোচিত এই অভিনেত্রী। বর আবু সালেহ মুসা ঢাকায় একটি বেসরকারি ব্যাংকে কর্মরত আছেন। তিনি নীলফামারী জেলার কিশোরগঞ্জ উপজেলার বাহাগিলি ইউনিয়ন দক্ষিণ দুরকুঠি এলাকার বাসিন্দা আনছার আলির পুত্র।


সানাই সাবেক এক মন্ত্রীকে বিয়ে করছেন-এমন খবর প্রকাশ পেয়েছিল ২০১৯ সালে। সেসময় একটি সংবাদমাধ্যমকে আলোচিত এই অভিনেত্রী নিজেই সে খবরের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেছিলেন, 'পারিবারিকভাবেই বিয়ে করতে যাচ্ছি। আজ (২৩ ফেব্রুয়ারি) সকালে আমাদের বাগদান হয়ে গেল। আমার বাসাতেই আয়োজন হলো। সবার কাছে দোয়া চাই আমার নতুন জীবনের জন্য।'

তারপর সে বিয়ে নিয়ে তেমন কিছু আর শোনা যায়নি। তিনবছর পর আবার বিয়ের পিঁড়িতে বসলেন এই অভিনেত্রী। তবে এ প্রসঙ্গে সানাইর সঙ্গে যোগাযোগ করলে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি তিনি। জানা যায়, অনেকটা চুপিসারে বিয়েটা সারছেন এই অভিনেত্রী।

অভিনেত্রী হিসেবে ক্যারিয়ারে সুবিধা করতে পারেননি সানাই। আলোচিত হওয়ার বদলে বিভিন্ন কর্মকাণ্ডের কারণে সমালোচিতই হয়েছেন বেশি। গত বছর অভিনয় ছেড়ে আল্লাহর পথে বাকি জীবন কাটানোর ঘোষণা দিয়েছিলেন তিনি। তারপর থেকেই হিজাব পরে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে উপস্থিত হতে দেখা যেত তাকে।


প্রসঙ্গত, সানাই এর জন্ম ঢাকার ধানমন্ডিতে হলেও তার পৈত্রিক নিবাস নীলফামারীতে। পড়াশোনার জন্য তিনি বেশ কিছুদিন রংপুরে ছিলেন। তার বাবা-মা উচ্চপদস্থ বেসরকারি কর্মকর্তা। সানাই এখন ঢাকায় স্থায়ীভাবে বসবাস করেন। নাবিলা, স্মার্টেক্স, নাগরদোলা ইত্যাদি ফ্যাশন হাউজে মডেল হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন তিনি। জনপ্রিয়তা পাওয়ার পর বিভিন্ন টেলিভিশন চ্যানেলে উপস্থাপিকা হিসেবেও কাজ করেছেন। এরপর ২০১৬ সালের নভেম্বর মাসে ঢাকার গুলশান ক্লাবে একটু ফ্যাশন শো চলাকালীন সময়ে বাংলাদেশি চলচ্চিত্র নির্মাতা গাজী মাহবুবের সঙ্গে সানাই এর পরিচয় হয়। গাজী মাহবুব তখন তার নির্মাণাধীন চলচ্চিত্র ভালোবাসা ২৪×৭ এর জন্য সানাইকে চিত্রনায়িকা হিসেবে পছন্দ করেন। এই চলচ্চিত্রে সানাই এর বিপরীতে অভিনয় করেন জায়েদ খান।

এরপর তিনি সুপ্ত আগুন, সাহসী যোদ্ধা, ময়নার ইতিকথা, প্রতিশোধ, প্রতীক্ষাসহ প্রায় ৮টি চলচ্চিত্রে চিত্রনায়িকা হিসেবে অভিনয় করার জন্য চুক্তিবদ্ধ হন।

;

মাদককাণ্ডে বেকসুর খালাস আরিয়ান



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
আরিয়ান খান

আরিয়ান খান

  • Font increase
  • Font Decrease

কোন প্রমাণ না পাওয়ায় মাদক মামলা থেকে আরিয়ান খানকে বেকসুর খালাস (ক্লিনচিট) ঘোষণা করলো নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো (এনসিবি)।

এনসিবির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, শাহরুখপুত্রর বিরুদ্ধে কোনওরকম প্রমাণ মেলেনি। শুধুই আরিয়ান খান নয়, মাদক মামলায় অভিযুক্ত আরও ৫ জনকেও বেকসুর খালাস ঘোষণা করেছে এনসিবি।

এর আগে, মাদকযোগে কোন প্রমাণ না পাওয়ায় আরিয়ান খানকে ক্লিনচিট দিয়েছিলো নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরোর স্পেশাল ইনভেস্টিগেশন টিম (SIT)।

গত বছর অক্টোবর মাসে মাদককাণ্ডে জড়িয়ে পড়েছিলেন শাহরুখপুত্র আরিয়ান খান। প্রায় ২৬ দিন হাজতবাসও করেছিলেন তিনি। ছেলের এই অবস্থায় স্বাভাবিকভাবে ভেঙে পড়েছিলেন শাহরুখ খান। সমস্ত শুটিং বাতিল করে ছেলেকে জামিন পাওয়ানোর জন্যই শত চেষ্টা করছিলেন শাহরুখ।

মাদককাণ্ডে ছেলের জেল হওয়ায় নিজেকে ঘরেই বন্দি করে ফেলেছিলেন তিনি। শেষমেশ আরিয়ান জামিন পান। তবে মাদক বিতর্কে জড়িয়ে আরিয়ানও নিজেকে ঘরবন্দি করে রেখেছিলেন। এরপর আইপিলের নিলামে আরিয়ানকে দেখা যাওয়ায় কিছুটা স্বস্তি পেয়েছেন শাহরুখের অনুরাগীরা। যেখানে বোন সুহানা খানকে নিয়ে হাজির হয়েছিলেন তিনি।

;

একফ্রেমে প্রীতি-ঐশ্বরিয়া-রানি-কারিনা



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
একফ্রেমে প্রীতি-ঐশ্বরিয়া-রানি-কারিনা

একফ্রেমে প্রীতি-ঐশ্বরিয়া-রানি-কারিনা

  • Font increase
  • Font Decrease

দু’দিন আগে ৫০তম জন্মদিনের কেক কেটেছেন করণ জোহর। জীবনের হাফ সেঞ্চুরি উপলক্ষে ধামাকাদার এক পার্টির আয়োজন করেছিলেন জনপ্রিয় এই পরিচালক-প্রযোজক। যেখানে উপস্থিত হয়েছিলেন নামি-দামি তারকারা। বলতে গেলে, সম্পূর্ণ বলিউডই উপস্থিত ছিলো করণের ৫০তম বার্থডে পার্টিতে।


এরইমধ্যে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে করণের ৫০তম বার্থডে পার্টির বেশ কয়েকটি ছবি। পাশাপাশি পার্টিতে উপস্থিত তারকারাও তাদের সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্টগুলোতেও করণের জন্মদিনে কাটানো নানা মুহূর্ত শেয়ার করেছেন।


তবে করণের পার্টিতে সবচেয়ে বেশি নজর কেড়েছেন প্রীতি জিনতা। স্বামী জেনে গুডেনাফকে নিয়ে বন্ধু করণের জন্মদিনের অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছিলেন বলিউডের এই অভিনেত্রী। সেখানে ঘনিষ্ঠ বন্ধু রানি মুখার্জী, ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন ও কারিনা কাপুরকে নিয়ে সেলফি তুলেছেন প্রীতি। যা নিজের ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে শেয়ার করেছেন তিনি।


এখানেই শেষ নয়, বার্থডে বয় করণ ও মাধুরীর সঙ্গেও সেলফি তুলেছেন তিনি। শেয়ার করা ছবিগুলোর ক্যাপশনে প্রীতি লিখেছেন, সর্বকালের সেরা রাতের জন্য করণ তোমাকে ধন্যবাদ। আমি জানি এটা তোমার সোনালী রাত ছিল কিন্তু আমি তোমার চেয়ে বেশি মজা করেছি। তুমি সর্বকালের সেরা হোস্ট।


বন্ধু করণের বার্থডে পার্টিতে সবুজ রঙের অফ শোল্ডার সিকোয়েন্সের পোশাক পরেছিলেন প্রীতি জিনতা।

;

পুত্র সন্তানের মা হলেন মারিয়া



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
মারিয়া নূর

মারিয়া নূর

  • Font increase
  • Font Decrease

পুত্র সন্তানের মা হলেন জনপ্রিয় সঞ্চালক-অভিনেত্রী মারিয়া নূর। শুক্রবার (২৭ মে) সকালে এমনটাই জানান তিনি।

পুত্রের নাম রেখেছেন সায়হান যারিব। জানা গেছে, মারিয়া মাতৃত্বকালীন ছুটিতে অবস্থান করছিলেন যুক্তরাষ্ট্রে।

সাইফুল আলম জুলফিকার ও মারিয়া নূর বিয়ে বন্ধনে আবদ্ধ হন ২০১১ সালের ১৫ জুন। সে হিসেবে টানা ১১ বছরের সংসার জীবনে তাদের ঘর আলো করে এলো সন্তান সায়হান।

মাতৃত্বকালীন বিরতিতে যাওয়ার আগে গত বছর মারিয়া নিজেকে নতুন আলোয় দাঁড় করালেন ওয়েব দুনিয়ায়। মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর ওয়েব সিরিজ ‘লেডিস অ্যান্ড জেন্টলম্যান’ দিয়ে ভালো প্রশংসা কুড়িয়েছেন অভিনেত্রী হিসেবে। এরপর মাসুম শাহরিয়ারের নাটক ‘লা পেরুজের সূর্যাস্ত’ এবং মেহেদি হাসান জনির ওয়েব ফিল্ম ‘হেরে যাবার গল্প’ দিয়েও অভিনেত্রী হিসেবে জনপ্রিয়তা কুড়িয়েছেন তিনি।

সর্বশেষ গত বছর ১৭ অক্টোবর থেকে ১৪ নভেম্বর পর্যন্ত ‘স্ট্রেট ড্রাইভ’ নামের শো সঞ্চালনা করেন মারিয়া নূর।

;