শুভ জন্মদিন হুমায়ুন ফরীদি



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
হুমায়ুন ফরীদি

হুমায়ুন ফরীদি

  • Font increase
  • Font Decrease

তার রক্তে মিশে ছিলো অভিনয়, নাট্য জগতের সবাই বুঝে ফেলেছিলো ধূমকেতুর জন্ম হয়েছে, একদিন শাসন করবে এই যুবক। সেদিনের হিসেব এক চিলতেও ভুল হয়নি, টানা তিন দশক তার ম্যাজিকাল অভিনয় বুঁদ করে রেখেছিলেন পুরো বাঙালি অভিনয় প্রিয় জাতিকে। কথা হচ্ছে- হুমায়ুন ফরীদিকে নিয়ে।

খুব আয়োজন করে না হলেও আজ হয়তো রাজধানীর ধানমন্ডির ৯/এ’র ৭২ নাম্বার বাসায় একটা কেক আসতো। আর সেই কেকের উপর মোটা করে লেখা থাকতো ‘শুভ জন্মদিন হুমায়ুন ফরীদি’। যদি না ২০১২ সালের ১৩ই ফেব্রুয়ারি, বসন্তের প্রথম সকালে ঢাকা হঠাৎ কালো মেঘে ঢেকে না যেত।

১৯৫২ সালের ২৯ মে ঢাকার নারিন্দায় জন্মেছিলেন হুমায়ুন ফরীদি। আজ প্রয়াত এই তারকার ৬৯তম জন্মদিন।

হুমায়ুন ফরীদির বাবার নাম এটিএম নুরুল ইসলাম, মায়ের নাম বেগম ফরিদা ইসলাম। চার ভাই-বোনের মধ্যে ফরীদি ছিলেন দ্বিতীয়। ইউনাইটেড ইসলামিয়া সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্র ছিলেন তিনি। ১৯৭০ সালে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা দেন চাঁদপুর সরকারি কলেজ থেকে। একই বছর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্গানিক কেমিস্ট্রিতে ভর্তি হন স্নাতক করতে। কিন্তু পরের বছরই মুক্তিযুদ্ধ শুরু হওয়ায় খাতা-কলম বাক্সবন্দি করে কাঁধে তুলে নেন রাইফেল। দীর্ঘ ৯ মাস পাকিস্তানি হানাদারদের বিরুদ্ধে দামাল ছেলের মতো লড়াই করেছেন ফরীদি।

১৯৫২ সালের আজকের এই দিনে ঢাকার নারিন্দায় জন্মগ্রহণ করেছিলেন বাংলা চলচ্চিত্রের অন্যতম সেরা অভিনেতা হুমায়ুন ফরীদি।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্র থাকাকালীন হুমায়ুন ফরিদী নাট্য সংগঠনের সঙ্গে জড়িত হয়েছিলেন। ১৯৬৪ সালে প্রথম কিশোরগঞ্জে মহল্লার মঞ্চনাটকে অভিনয় করেছিলেন তিনি। টিভি নাটকে প্রথম অভিনয় করেন ‘নিখোঁজ সংবাদ’ শিরোনামের নাটকে। ফরিদীর প্রথম অভিনয় করা সিনেমার নাম ‘হুলিয়া’।

এরপর মঞ্চ, টেলিভিশন ও চলচ্চিত্র এই মাধ্যমেই সমান তালে তিন দশক আলো ছড়িয়ে হয়ে উঠেছিলেন দেশের শোবিজের অন্যতম সেরা অভিনেতা। নায়ক-খলনায়ক দুই চরিত্রেই তিনি ছিলেন সাবলীল। তবে ফরিদী বাংলাদেশ টেলিভিশনে প্রচারিত বিখ্যাত সংশপ্তক নাটকে ‘কানকাটা রমজান’ চরিত্রে অভিনয়ের জন্য দেশজুড়ে তুমুল আলোচিত হয়েছিলেন।

‘মাতৃত্ব’ সিনেমার জন্য ২০০৪ সালে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেছিলেন হুমায়ুন ফরিদী। এছাড়া নৃত্যকলা ও অভিনয় শিল্পের জন্য ২০১৮ সালের একুশে পদক (মরণোত্তর) লাভ করেছিলেন এই অভিনেতা।

এরপর ২০১২ সালের ১৩ই ফেব্রুয়ারি, বসন্তের প্রথম সকাল। ঢাকা বাসন্তী রঙে বসন্তকে বরণ করে নিতে প্রস্তুত। সকাল ১০টায় হঠাৎ সব রঙ কেড়ে নিলো রাজধানীর ধানমন্ডির ৯/এ’র ৭২ নাম্বার বাসা। খবর এলো, বাংলা চলচ্চিত্রের অন্যতম সেরা অভিনেতা হুমায়ুন ফরিদী আর নেই।

এরপর থেকে হুমায়ুন ফরীদির শহরে নিয়ম করে বসন্ত নামে। সেই বসন্তের আগমনে শহরের চারদিকে রঙের ছড়াছড়ি হয়। শুধুই থাকেন না একজন হুমায়ুন ফরিদী।

ইয়ুথ ইমারজিং লিডারশিপ অ্যাওয়ার্ড পেলেন নির্মাতা হেমন্ত সাদীক



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
প্রযোজক হেমন্ত সাদীকের হাতে ‘দ্য ইয়ুথ ইমারজিং লিডারশিপ অ্যাওয়ার্ড’ তুলে দিচ্ছেন আয়োজকরা

প্রযোজক হেমন্ত সাদীকের হাতে ‘দ্য ইয়ুথ ইমারজিং লিডারশিপ অ্যাওয়ার্ড’ তুলে দিচ্ছেন আয়োজকরা

  • Font increase
  • Font Decrease

থাইল্যান্ডের ব্যাংকক শহরে অনুষ্ঠিত হলো গ্লোবাল ইয়ুথ লিডারশিপ সামিট-২০২২। এই সামিটে ‘দ্য ইয়ুথ ইমারজিং লিডারশিপ অ্যাওয়ার্ড’ পেলেন তরুণ চলচ্চিত্র নির্মাতা ও প্রযোজক হেমন্ত সাদীক। তিনি তরুণদের চলচ্চিত্র সংসদ সিনেমা বাংলাদেশের সভাপতি ও গ্লোবাল ইয়ুথ ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল বাংলাদেশের উৎসবের প্রযোজক।

গত ২৪ জুন (শনিবার) ব্যাংককের রয়েল থাই আর্মি ক্লাবের বলরুমে গ্লোবাল ইয়ুথ পার্লামেন্ট আয়োজিত দু’দিনব্যাপী এই সামিটের উদ্বোধনী দিনে হেমন্ত’র হাতে এই পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন থাইল্যান্ডের শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ডেপুটি মিনিস্টার এইচ ই ড. কালায়া সফনপানিচ, বিশেষ অতিথি ছিলেন ইউনাইটেড নেশন পিস কিপারস ফেডারেল কাউন্সিল (ইউএনপিকেএফসি) এর প্রেসিডেন্ট এইচ ই ড. আফিনিতা চৈচনা, থাই রাজপরিবারের সদস্য এইচ ই ওয়ানচাই নাওয়ারাত, গ্লোবাল ইউথ পার্লামেন্টের সভাপতি দিওয়াকার আরয়াল প্রমুখ।

চলচ্চিত্র চর্চাকে বিকেন্দ্রীকরণের লক্ষ্য নিয়ে ২০১৫ সালে হেমন্ত সাদীক প্রতিষ্ঠা করেন চলচ্চিত্র সংসদ সিনেমা বাংলাদেশ। তার নেতৃত্বে এই চলচ্চিত্র সংসদ ২০১৭ সাল থেকে প্রতি বছর তরুণদের নির্মিত চলচ্চিত্র নিয়ে বিভাগীয় ও জেলা শহর দেশের নানা প্রান্তে আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের আয়োজন করে আসছে। ‘গ্লোবাল ইয়ুথ ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল বাংলাদেশ’ নামে পরিচিত এই উৎসব এরই মধ্যে লক্ষ্মীপুর, রংপুর, ময়মনসিংহ, বান্দরবান ও নাটোরে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

চলতি বছরের ডিসেম্বরে তারুণ্যের এ চলচ্চিত্র উৎসব অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে কক্সবাজারে। উৎসব আয়োজন ছাড়াও দেশজুড়ে এ পর্যন্ত ১৫টি শহরে তরুণদের জন্য চলচ্চিত্র নির্মাণ কর্মশালা আয়োজন করেছে সংগঠনটি।

এর আগে ২০২০ সালে সম্মানজনক ‘জয়বাংলা ইয়ুথ অ্যাওয়ার্ড’ পায় সিনেমা বাংলাদেশ।

;

হলিউড-বলিউড অভিনেতাদের সঙ্গে এবার এলিনা শাম্মী



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা ২৪.কম
এলিনা শাম্মী

এলিনা শাম্মী

  • Font increase
  • Font Decrease

বেশ কয়েকটি চলচ্চিত্রে অভিনয় করে আলোচনায় উঠে আসেন এ সময়ের অভিনেত্রী এলিনা শাম্মী। এবার ‘এমআর-নাইন’ সিনেমায় নাম লেখালেন এই অভিনেত্রী। ‘মাসুদ রানা: ধ্বংসপাহাড়’ উপন্যাস অবলম্বনে নির্মিত হচ্ছে সিনেমাটি।

‘এমআর-নাইন’ সিনেমার চিত্রনাট্য রচনা করেছেন আসিফ আকবর, আব্দুল আজিজ এবং নাজিম উদ দৌলা। বাংলাদেশের প্রযোজনা সংস্থা জাজ মাল্টিমিডিয়া, লস অ্যাঞ্জেলেসভিত্তিক আল ব্রাভো ফিল্মস এবং এমআর-নাইন ফিল্মস সিনেমাটি প্রযোজনা করছে।

দুই দিন আগে সিনেমাটিতে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন এলিনা। তা জানিয়ে এ অভিনেত্রী বলেন, চরিত্রটি গুরুত্বপূর্ণ। রাজধানীর মিরপুর সুইমিং কমপ্লেক্সে গত বৃহস্পতিবার থেকে শুটিং শুরু হয়েছে, চলবে ২৯ জুন পর্যন্ত। সিনেমার পরিচালক আসিফ আকবর। তার পরিচালনায় আমেরিকার লাস ভেগাসে হয়েছে সিনেমাটির দৃশ্যধারণের কাজ। তাঁর অভিনীত অন্য সিনেমাগুলোর মধ্যে রয়েছে ‘টুঙ্গিপাড়ার দু:সাহসী খোকা’ , জলরঙ, ছায়াবৃক্ষ, ওয়েবফিল্ম সিন্ডিকেট, মধ্যবিত্ত ।

এমআর-নাইন সিনেমাটিতে আরো অভিনয় করছেন বলিউড অভিনেত্রী সাক্ষী প্রধান (পয়জন), হলিউড অভিনেতা নিকো ফস্টার (আর্মি অব ওয়ান), বলিউড অভিনেতা ওমি বৈদ্য (থ্রি ইডিয়টস), হলিউড অভিনেতা ওলেগ প্রুডিয়াস (উলফ ওয়ারিয়র টু), আমেরিকান মডেল-অভিনেত্রী জ্যাকি সিগেল (দ্য কুইন অব ভার্সাই)।

এ ছাড়াও আনিসুর রহমান মিলন এবং শহিদুল আলম সাচ্চু যুক্ত হয়েছেন ‘এমআর-নাইন’ সিনেমায়। সিনেমাটিতে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করছেন-বাংলাদেশি অভিনেতা এ বি এম সুমন।

;

বাবা-মা হচ্ছেন হিল্লোল-নওশীন



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা ২৪ কম
বাবা-মা হচ্ছেন হিল্লোল-নওশীন

বাবা-মা হচ্ছেন হিল্লোল-নওশীন

  • Font increase
  • Font Decrease

জনপ্রিয় তারকা জুটি অভিনেত্রী-উপস্থাপিকা নওশীন নাহরিন মৌ ও অভিনেতা আদনান ফারুক হিল্লোল বাবা-মা হতে চলেছেন। এ দম্পতির ঘরে আসছে তাদের প্রথম সন্তান।

বিষয়টি যুক্তরাষ্ট্র থেকে নিশ্চিত করেছেন নওশীন নিজেই। এ সময় তিনি নিজের ও অনাগত সন্তানের জন্য দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন।  

বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী নওশীন-হিল্লোল। জানা যায়, শনিবার (২৫ জুন) নিউ ইয়র্কে আয়োজন করা হয় নওশীনের বেবি সাওয়ার। যেখানে অংশ নেন রিচি সোলায়মান, কাজী মারুফ, মোনালিসা, তমালিকা কর্মকার, কল্যাণ কোরাইয়া ও রোমানাসহ বেশ কয়েকজন বাংলাদেশি তারকা।  

চলতি বছর হিল্লোল বাংলাদেশে এলেও তখন নওশীন আসেননি। বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কে স্থায়ীভাবে বসবাস করছেন তারা।

;

‘শান্তি চাই’ লিখে উঠতি মডেলের আত্মহত্যার চেষ্টা



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা ২৪.কম
দেবলীনা দে

দেবলীনা দে

  • Font increase
  • Font Decrease

সম্প্রতি কলকাতায় পল্লবী দে, বিদিশা মজুমদার ও মঞ্জুষা নিয়োগীসহ বেশ কয়েকজন মডেল-অভিনেত্রী আত্মহত্যা করেছেন। তাদের আত্মহত্যার রেশ কাটতে না কাটতেই খবর এল কলকাতার এক উঠতি মডেলের আত্মহননের চেষ্টার।

এই মডেলের নাম দেবলীনা দে। ২৭ বছর বয়সী এই তরুণী বিভিন্ন সিরিয়াল ও মিউজিক ভিডিওতে কাজ করেন। শুক্রবার রাতে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে বেশ কয়েকটি ঘুমের ওষুধ খেয়ে নেন তিনি। তবে পূর্ব যাদবপুর থানার পুলিশের তৎপরতায় প্রাণে বাঁচলেন ওই তরুণী। বর্তমানে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তিনি।

শুক্রবার রাতে একটি ফেসবুক পোস্টে দেবলীনা লেখেন, ‘আমি বেঁচে থাকার জন্য অনেক লড়াই করেছি। আমার পরিবার সব কিছুর জন্য দায়ী… এখন আমি শান্তি চাই। বিদায়।’

মুহূর্তেই সোশ্যাল মিডিয়ার পোস্টটি নজরে আসে তার বন্ধু-বান্ধবদের। নজরে আসে পুলিশেরও। তড়িঘড়ি করে পূর্ব যাদবপুর থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। পুলিশ গিয়ে দেখে, ঘরে অচেতন অবস্থায় পড়ে রয়েছেন তিনি। তাকে উদ্ধার করে তড়িঘড়ি পাশের একটি হাসপাতালে নেওয়া হয়। চিকিৎসকরা জানান, অতিরিক্ত ঘুমের ওষুধ খেয়ে নিয়েছেন তিনি।

জানা গেছে, দেবলীনা দে আদতে কালনার বাসিন্দা। তবে কর্মসূত্রে যাদবপুরের আবাসনে থাকতেন। শুক্রবার কালনার বাড়িতে গিয়েছিলেন উঠতি মডেল। সেই সময় পরিবারের লোকজনের সঙ্গে একপ্রকার তর্কাতর্কিও হয় তার। ফিরে আসেন যাদবপুরের আবাসনে। ফিরে রাতেই চূড়ান্ত অবসাদে ভরা ফেসবুক পোস্ট করেন ওই উঠতি মডেল। তবে কী কারণে পরিবারের লোকজনের সঙ্গে তর্কাতর্কি হলো তার, সে বিষয়ে এখনো কিছু জানা যায়নি।

;