বাণিজ্যিক সিনেমায় অনুদান বন্ধের দাবির প্রতিবাদ



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
বাণিজ্যিক সিনেমায় অনুদান বন্ধের দাবির প্রতিবাদ

বাণিজ্যিক সিনেমায় অনুদান বন্ধের দাবির প্রতিবাদ

  • Font increase
  • Font Decrease

 

বাণিজ্যিক চলচ্চিত্রে সরকারি অনুদান বন্ধের জন্য গুটিকয়েক নির্মাতার দাবিকে চলচ্চিত্র শিল্প ধ্বংসের ষড়যন্ত্র ও হীন স্বার্থপর অপতৎপরতা বলে এর তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছেন দেশের চলচ্চিত্র শিল্পী, পরিচালক, প্রযোজক, প্রদর্শক ও চলচ্চিত্রগ্রাহক সমিতি এবং ফিল্ম এডিটরস গিল্ডসহ সম্মিলিত চলচ্চিত্র পরিষদ।

বুধবার (০৬ জুলাই) পৃথক পৃথক স্বাক্ষরিত বিবৃতিতে তারা বলেন- 'গত ৪ জুলাই সোমবার রাজধানীর শাহবাগে কয়েকজন চলচ্চিত্র নির্মাতা বাণিজ্যিক চলচ্চিত্রে সরকারি অনুদান বন্ধের দাবি জানান। চলচ্চিত্র শিল্পের জন্য, দেশের জন্য এবং সর্বোপরি মানুষের সুস্থ বিনোদনের জন্য ক্ষতিকর এই দাবি আমরা কোনোভাবেই সমর্থন করি না এবং এটিকে প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে চলচ্চিত্র শিল্পের ঘুরে দাঁড়ানোর বিরুদ্ধে একটি ষড়যন্ত্র। আমরা সিনেমা অঙ্গনের মতলববাজ-ধান্দাবাজদের বিচার প্রার্থনা করি।'

চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সভাপতি ইলিয়াস কাঞ্চন বলেন, দেশের মানুষ যে চলচ্চিত্র দেখতে চায়, হলে যায়, সেই চলচ্চিত্রকে সহায়তা দেওয়া যারা বন্ধ করতে বলে, তাদের সাথে আমরা শিল্পীরা নেই। আমরা তাদের এ ধরনের স্বার্থপর দাবির তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।

চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির সভাপতি ও সম্মিলিত চলচ্চিত্র পরিষদের নেতা সোহানুর রহমান সোহান বলেন, সরকারি নীতিমালা পুরোপুরি অনুসরণ করে দেশের চলচ্চিত্র নির্মাতা-বোদ্ধাদের নিয়ে গঠিত কমিটিই অনুদান প্রদান করে। 'সরকার যে চলচ্চিত্র শিল্পকে রক্ষার চেষ্টা করছে, একে ধ্বংসের হাত থেকে রক্ষা করতে সম্মিলিত চলচ্চিত্র পরিষদ বুকের রক্ত দিতেও দ্বিধা করবে না' বলেন তিনি।

চলচ্চিত্র প্রযোজক সমিতির পক্ষে সাবেক সভাপতি খোরশেদ আলম খসরু বলেন, স্বার্থপর আন্দোলনকারীদের বক্তব্য ভিত্তিহীন, উদ্দেশ্য প্রণোদিত এবং স্বার্থসিদ্ধিমূলক। আমরা এ ধরণের অপতৎপরতার তীব্র প্রতিবাদ জানাই।

বাণিজ্যিক সিনেমায় না দিয়ে আর্ট ফিল্মে অনুদান দেয়াকে জনগণের অর্থে জনগণের সাথে প্রতারণা উল্লেখ করে চলচ্চিত্র প্রদর্শক সমিতির প্রধান উপদেষ্টা সুদীপ্ত কুমার দাস বলেন, সরকার যখন আর্ট ফিল্মের জন্য লাখ লাখ টাকা দিচ্ছে, তখন থেকেই আমরা বলে আসছি, সাধারণ দর্শক যে সিনেমা দেখার জন্য হলে আসে না, সেসব সিনেমাকে সরকারি অর্থ দেয়া প্রকৃত সিনেমাপ্রেমীদের সাথে প্রতারণা।

চলচ্চিত্র প্রযোজক সমিতির পক্ষে সাবেক সভাপতি খোরশেদ আলম খসরু, চলচ্চিত্রগ্রাহক সমিতির সভাপতি আবদুল লতিফ বাচ্চু এবং ফিল্ম এডিটরস গিল্ড সভাপতি আবু মুসা দেবুও পরিচালক সমিতির সঙ্গে একমত হয়ে বিবৃতিতে স্বাক্ষর করেন।

উল্লেখ্য তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয় গত তিন বছরে (২০২০-২১-২২) ৫৭টি পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রের পাশাপাশি আর্টফিল্ম, ডকুড্রামা ও প্রামাণ্যচিত্রসহ ২৫টি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রকে অনুদান দিয়েছে, যা আগের বছরগুলোর তুলনায় সংখ্যা ও অনুদানের অর্থ দুই মাপকাঠিতেই বেশি।

শিগগিরই মুক্তি পাচ্ছে ‘বিউটি সার্কাস’, জানালেন পরিচালক



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
চলতি মাসেই ‘বিউটি সার্কাস’র পোস্টার প্রকাশ, শিগগিরই মুক্তি

চলতি মাসেই ‘বিউটি সার্কাস’র পোস্টার প্রকাশ, শিগগিরই মুক্তি

  • Font increase
  • Font Decrease

বহু প্রতীক্ষার পর অবশেষে মুক্তি পেতে যাচ্ছে ইমপ্রেস টেলিফিল্ম প্রযোজিত ও মাহমুদ দিদার পরিচালিত জয়া আহসান অভিনীত ছবি ‘বিউটি সার্কাস’। ইতোমধ্যে সেন্সর ছাড়পত্র পেয়েছে ছবিটি।

প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ইমপ্রেস টেলিফিল্ম জানিয়েছে, শিগগির ‘বিউটি সার্কাস’ সিনেমা হলে মুক্তি দেয়া হবে।চলতি মাসেই ‘বিউটি সার্কাস’র অফিসিয়াল পোস্টার প্রকাশ হবে। সেদিনই মুক্তির তারিখ জানানো হবে সরকারি অনুদান প্রাপ্ত এ ছবির।

সার্কাসকে কেন্দ্র করে এক নারীর টিকে থাকার গল্প ‘বিউটি সার্কাস’। সার্কাস পুড়িয়ে দেওয়ার পর হুমকির মুখে পড়ে এক নারী। কিন্তু সে আপন শক্তিতে টিকে থাকে। জয়া আহসান ছাড়াও এই ছবির বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন ফেরদৌস, তৌকীর আহমেদ, এ বি এম সুমন, হুমায়ূন সাধু প্রমুখ।


পরিচালক মাহমুদ দিদারের এটি প্রথম সিনেমা। তিনি জানান, করোনার কারণে গত দু’বছর মুক্তি থেমে ছিল। তবে শিগগির আনুষ্ঠানিকভাবে মুক্তির দিন ঘোষণা করা হবে। করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে থাকায় কিছুই করার ছিল না।

সিনেমাটি প্রসঙ্গে জয়া আহসান আগেই জানিয়েছেন, তার অভিনয় জীবনের খুব রোমাঞ্চকর কাজ “বিউটি সার্কাস”। তিনি বলেন, অভিনয়শিল্প এমন কিছু জায়গায় নিয়ে যায়, যেখানে আগে কোনো দিন যাওয়া হয়নি। এমন কিছু চরিত্র প্রদর্শন করার সুযোগ করে দেয়, যার অভিজ্ঞতা একেবারে নতুন। এমনি একটি চরিত্রে অভিনয় করার সুযোগ পেয়েছি। সার্কাসের অভিজ্ঞতা আমার জন্য একেবারেই নতুন ছিল।

২০১৭ সালের ফেব্রুয়ারিতে শুরু হয়েছিল ‘বিউটি সার্কাস’র শুটিং। করোনা না এলে ২০২০ এই মুক্তি পেত সিনেমাটি।

;

কুমার শানুর সঙ্গে গাইলেন বেলি আফরোজ



কন্ট্রিবিউটিং এডিটর, বার্তা২৪.কম
কুমার শানুর সঙ্গে গাইলেন বেলি আফরোজ

কুমার শানুর সঙ্গে গাইলেন বেলি আফরোজ

  • Font increase
  • Font Decrease

‘পাওয়ার ভয়েজ’ খ্যাত গায়িকা বেলি আফরোজ। বছরের পুরোটা সময় বিভিন্ন লাইভ কনসার্ট ও টিভি শো নিয়ে ব্যস্ত থাকলেও মৌলিক গানও মাঝে মধ্যে প্রকাশ করে থাকেন তিনি। এবার এই গায়িকা এবার কিংবদন্তি ভারতীয় কণ্ঠশিল্পী কুমার শানুর সঙ্গে একটি গানে কণ্ঠ দিয়েছেন।

মুম্বাই থেকে বেলি গানটি নিয়ে জানান, গানটি রোমান্টিক ঘরানার। পরিকল্পনা আছে কলকাতা ও ঢাকা থেকে একই সঙ্গে গানটি প্রকাশ করার।

সংগীতজীবনের শুরু থেকেই কুমার শানুর সঙ্গে গান গাওয়ার ইচ্ছা ছিল। এবার পরিচালক এম এইচ রিজভী ভাই সেই সুযোগ করে দিয়েছেন। এরই মধ্যে স্টুডিওতে গানটির ভিডিও ধারণ করেছি আমরা। মুম্বাইয়ের কিছু লোকেশনে আউটডোর শুটিংও করব। গান ও ভিডিও দুটিই দর্শক-শ্রোতারা পছন্দ করবে আশা করি।’

মুম্বাইয়ের ‘পঞ্চম স্টুডিও’তে ১২ আগস্ট গানটির রেকর্ডিং সম্পন্ন হয়েছে। ‘হামসফর’ শিরোনামের গানটি বাংলা ও হিন্দি ভাষার মিশেলে তৈরি। এর কথা ও সুর করেছেন কলকাতার পল্লব গৌতম।রেকর্ডিং শেষে কুমার শানুর সঙ্গে তোলা বেশ কিছু ছবি ও গানটির স্টুডিও ভার্সনের অংশবিশেষ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রকাশ করেছেন বেলি।

উল্লেখ্য, সবশেষ ‘তোকে চাই’ শিরোনামে গান-ভিডিও প্রকাশ করেছিলেন বেলি।

;

ফিনল্যান্ড-সুইডেন- ডেনমার্ক যাচ্ছে ‘পরাণ’



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ফিনল্যান্ড-সুইডেন- ডেনমার্ক যাচ্ছে ‘পরাণ’

ফিনল্যান্ড-সুইডেন- ডেনমার্ক যাচ্ছে ‘পরাণ’

  • Font increase
  • Font Decrease

লাইভ টেকনোলজির প্রযোজনায় বিদ্যা সিনহা মিম, শরিফুল রাজ, ইয়াশ রোহান, রাশেদ অপু, শহীদুজ্জামান সেলিম, রোজি সিদ্দিকী অভিনীত ‘পরাণ’ সাফল্যের ধারাবাহিকতায় ঢাকার পর বর্তমানে চলছে অস্ট্রেলিয়াতে।

লাইভ টেকনোলজির ডিরেক্টর ইয়াসির আরাফাত জানান, ‘পরাণ’ ব্লকবাস্টার হিট সিনেমা। দেশের বাইরের দর্শকরা সিনেমাটি পছন্দ করছে। ইউরোপে ছবিটি মুক্তি পাচ্ছে এবার। ফিনল্যান্ড, সুইডেন এবং ডেনমার্ক যাচ্ছে ছবিটি। আমেরিকায় ও মধ্যপ্রাচ্যেও ‘পরাণ’ মুক্তি পেতে যাচ্ছে।

তিনি আরও জানান, যে অর্থ এই সিনেমা থেকে এসেছে, এটা আমাদের ধারণার বাইরে ছিল। সিনেপ্লেক্স থেকে রেকর্ড পরিমাণ লভ্যাংশ পেয়েছি। সিঙ্গেল স্ক্রিনেও সিনেমাটি হিট। আর সিনেমাকে ঘিরে অনেক ঘটনা ঘটছে ।

প্রসঙ্গত, ‘পরাণ’ ও ‘হাওয়া’ সিনেমা দুটি মুক্তি পেয়েছে অস্ট্রেলিয়ায়। সেখানেও একই অবস্থা। দুটি সিনেমার অগ্রিম টিকিট নিয়ে সেখানকার বাঙালি দর্শকের এখন হাহাকার! অনেকেই আফসোস করে বলছিলেন, ‘টিকিট পাচ্ছি না। সাব্বির চৌধুরীর দীর্ঘদিনের বন্ধু সালমিন সুলতানা তানহা। তিনিও তাঁর পরিবার ও বন্ধুদের জন্য টিকিট পাচ্ছিলেন না। পরে মাথায় বুদ্ধি আসে। দুই বন্ধু পরিকল্পনা করলেন এই সিনেমা দুটির একটি করে পুরো শো কিনে নিলে কেমন হয়? যেই ভাবা সেই কাজ। ‘হাওয়া’ এবং ‘পরাণ’-এর অস্ট্রেলিয়ান ডিস্ট্রিবিউটরদের সঙ্গে যোগাযোগ করলেন। তারপর আলোচনার মাধ্যমে তাঁদের থেকে কিনে নিলেন দুই সিনেমার দুই শো।

;

‘দয়া করে লাল সিং চাড্ডাকে বয়কট করবেন না’, অনুরোধ কারিনার



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
‘দয়া করে লাল সিং চাড্ডাকে বয়কট করবেন না’, অনুরোধ কারিনার

‘দয়া করে লাল সিং চাড্ডাকে বয়কট করবেন না’, অনুরোধ কারিনার

  • Font increase
  • Font Decrease

মুক্তির আগে আগেই ‘বয়কট’য়ের ডাক উঠে ‘লাল সিং চাড্ডা’কে নিয়ে। গত ১১ অগস্ট সিনেমাহলে মুক্তি পেয়েছে এই ছবিতে। প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন আমির খান। তাঁর বিপরীতে অভিনয় করেছেন কারিনা কাপুর খান। সমালোচক এবং দর্শকদের কাছ থেকে মিশ্র প্রতিক্রিয়া পেয়েছে ছবি।

সিনেমার মুক্তির আগে, কারিনা কাপুর বলিউডে চলমান ‘বয়কট’ সংস্কৃতি সম্পর্কে তার চিন্তাভাবনা নিয়ে মন্তব্য করেছেন। অভিনেত্রী বলেন, প্রত্যেকেরই সবকিছু সম্পর্কে মতামত থাকতে পারে, তবে তিনি মনে করেন একটি ভালো সিনেমা সবকিছুকে ছাপিয়ে যেতে পারে। কারিনার সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারের পর চারিদিকে হৈ হৈ করে রব উঠেছিল তিনি দর্শকদের প্রতি অসম্মান করছেন।

এক অনুষ্ঠানে আরজে সিদ্ধার্থ কান্নন কারিনাকে জিজ্ঞেস করেছিলেন, এই বিষয়গুলি নিয়ে তিনি কতটা অবগত। দর্শককে এত হালকাভাবে নিচ্ছেন আপনি? অভিনেত্রী বলেছিলেন, ‘আমার মনে হয় একাংশ মানুষ আছে যারা শুধু ট্রোলিং করছে। তবে সত্যি বলতে, আমি মনে করি ছবিটি যে ভালোবাসা পাচ্ছে তা ভালো লাগছে। এগুলি জনগনের এমন একটি অংশ যারা সম্ভবত আপনার সোশ্যাল মিডিয়াতে রয়েছে, সম্ভবত ১ শতাংশের এর মতো।’

অভিনেত্রী আরও যোগ করেন, ‘প্রত্যেকটি মানুষের নিজস্ব মতামত দেওয়ার অধিকার আছে, তাই দর্শক মহলের ভালো-খারাপ মিশ্র প্রতিক্রিয়া আসবেই, কিন্তু বয়কট করার ছবিকে বয়কট করুন, ভালো ছবিকে নয়। আমি চাই মানুষ আমাকে এবং আমিরকে (খান) পর্দায় দেখুক। তিন বছর হয়ে গিয়েছে, আমরা এই দিনটার অপেক্ষা করছিলাম। সুতরাং, দয়া করে এই ছবিটি বয়কট করবেন না, কারণ এটি আসলে ভালো সিনেমা বয়কট করার মতো। সকলে এটার জন্য কঠোর পরিশ্রম করেছি। আমরা আড়াই বছর ধরে এই ছবির জন্য ২৫০ জন মিলে কাজ করেছি।’

১৯৯৬ সালে মুক্তি প্রাপ্ত 'ফরেস্ট গাম্প'-এর পুনর্নির্মাণ 'লাল সিং চাড্ডা'। ছবিতে টম হ্যাঙ্কসের জুতোয় পা গলিয়েছেন আমির। শুরু থেকেই এই ছবিকে ঘিরে বিতর্কের শেষ ছিল না। আমির এবং কারিনার অতীতের কিছু মন্তব্য নিয়ে নতুন করে জলঘোলা শুরু হয়। 'লাল সিং চাড্ডা'কে বয়কট করে দেওয়ার ডাক ওঠে। মুক্তির পর প্রথম দিনে ১০ থেকে ১১ কোটির ব্যবসা করেছে এই ছবি। শুক্রবার অর্থাৎ দ্বিতীয় দিনে সারা ভারত জুড়ে মাত্র ৭ কোটি টাকার ব্যবসা করেছে। অর্থাৎ দু'দিনে ছবির ভাঁড়ারে এসেছে প্রায় ১৯ কোটি টাকা।

;