দেশের মেয়ে অভিনয় করেছে বলে না, গল্পের জন্য ‘কণ্ঠ’ দেখুন

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম, ঢাকা
জয়া আহসান, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

জয়া আহসান, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

বাংলাদেশের জয়া আহসান অভিনীত শিবপ্রসাদ মুখোপাধ্যায় ও নন্দিতা রায়ের আলোচিত ‘কণ্ঠ’ সিনেমা কলকাতায় মুক্তি পেয়েছিল চলতি বছরের ১০ মে। এবার সাফটা চুক্তির আওতায় সিনেমাটি বাংলাদেশে মুক্তি পাচ্ছে ৮ নভেম্বর (শুক্রবার)। এই উপলক্ষ্যে সিনেমাটি পরিবেশক ইমপ্রেস টেলিফিল্ম ৬ নভেম্বর দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে। যেখানে উপস্থিত ছিলেন শিবপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়, নন্দিতা রায়, জয়া আহসান ও বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির সভাপতি মুশফিকুর রহমান গুলজার।

সংবাদ সম্মেলন জয়া আহসান বলেন, সিনেমাটি আমার জন্য স্পেশাল। এটা আমার জন্য জার্নির মতো। আমি এই সিনেমার মাধ্যমে লড়াই করা শিখেছি। জীবনকে নতুন করে দেখতে শিখেছি। বাংলাদেশের মেয়ে অভিনয় করেছে বলে না, লড়াইয়ের গল্পের জন্য ‘কণ্ঠ’ দেখুন। সিনেমাটি শুধু ক্যানসার রোগীদের জন্য নয়, যারা জীবনযুদ্ধে হতাশায় ডুবে যান, হেরে যান এ সিনেমাটি তাদের জন্যও। এই সিনেমায় অভিনয় করে আমি আত্মতৃপ্তি পেয়েছি। আমার কাছে এটি অনবদ্য একটি সিনেমা।

সংবাদ সম্মেলন সিনেমার পরিচালক ও অন্যতম অভিনেতা শিবপ্রসাদ মুখোপাধ্যায় জয়ার প্রশংসা করে বলেন, দুই বাংলা মিলিয়ে জয়া ভীষণ ব্যস্ত। আগামী দুই বছর বোধহয় তার সিডিউল সব বুকড। জয়া আহসান বাংলাদেশ ও পশ্চিমবঙ্গের গর্ব। অভিনেত্রী হিসেবে তিনি অসাধারণ। তিনি একের পর এক কাজ করে চলেছেন। এই সিনেমার জন্য তিনি যা করে দেখিয়েছেন তা অবিশ্বাস্য। জয়ার অভিনয়টা দেখতে হলেও সবার ছবিটি দেখা উচিত।

সংবাদ সম্মেলনে ‘কণ্ঠ’ টিম

সিনেমাটি নিয়ে পরিচালক নন্দিতা রায় বলেন, আমরা যখন কাজ শুরু করি তখন আমি আর শিবু (শিবপ্রসাদ) এক প্রকার প্রতিজ্ঞা করেছিলাম যে, সিনেমাটি নিয়ে বাংলাদেশে নিয়ে আসবোই। কারণ এটি নির্দিষ্ট কোনও দেশের ছবি নয়। এটি জীবন জয়ের গল্প।

‘কণ্ঠ’ সিনেমায় রমিলা চৌধুরী চরিত্রে অভিনয় করে ভারতের দর্শক সমালোচকদের প্রশংসা কুড়িয়েছেন অভিনেত্রী জয়া আহসান। মাত্র ১১ দিনে পশ্চিমবঙ্গে ছবিটি আয় করে ২ কোটি রুপি। শুধু পশ্চিমবঙ্গেই নয়, মুক্তি পেয়েছে দিল্লি, মুম্বাই, পুণে, আহমেদাবাদ, বেঙ্গালুরু, হায়দ্রাবাদে। পাশাপাশি লন্ডনসহ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ১৬টি শহরে মুক্তি পেয়ে অভাবনীয় সাফল্য পেয়েছে সিনেমাটি। মালায়ালাম ভাষাতেও ‘মেরি আওয়াজ সুনো’ নামে নির্মিত হচ্ছে ‘কণ্ঠ’।

আপনার মতামত লিখুন :