‘ন ডরাই’ সিনেমার প্রদর্শনী বন্ধে আইনি নোটিশ

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম,ঢাকা
সিনেমাটির পোস্টার

সিনেমাটির পোস্টার

  • Font increase
  • Font Decrease

ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত এবং অশ্লীলতার অভিযোগে ‘সার্ফিং’ চলচ্চিত্র ‘ন ডরাই’র সেন্সর সনদ বাতিল ও প্রদর্শনী বন্ধে আইনি নোটিশ পাঠানো হয়েছে। বুধবার (৪ ডিসেম্বর ) ডাক ও রেজিস্ট্রি যোগে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মো. হুজ্জাতুল ইসলাম এই নোটিশ পাঠান।

আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ না করলে হাইকোর্টে রিট করা হবে বলে নোটিশে জানিয়েছেন আইনজীবী।

নোটিশে বলা হয়েছে, এই সিনেমার প্রধান চরিত্রের সঙ্গে হযরত মুহাম্মদ (সা.) স্ত্রী হযরত আয়শার (রা) মিল রাখা হয়েছে। হযরত আয়শা (রা) ইসলাম ধর্মে অত্যন্ত পবিত্র ও সম্মানিত। কুরআনে বলা হয়েছে, তিনি বিশ্বাসীদের মা।

সিনেমাটির পোস্টার ও নায়ক-নায়িকা

সিনেমার প্রধান চরিত্রের সঙ্গে হযরত আয়শার নাম ব্যবহার করে অশ্লীল দৃশ্য ধারণ করা হয়েছে যা মুসলমানদের ধর্মীয় মূল্যবোধে আঘাতের শামিল। শুধু তাই নয়, কমিক বই ও এনিমেটেড ভিডিওতে আপত্তিকর এসব বিষয় রয়েছে। সস্তা বাজার পাওয়ার জন্য পরিচালক মুসলমানদের ধর্নীয় অনুভূতিতে আঘাতের আশ্রয় নিয়েছেন। যা ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ২৮ ধারা অনুযায়ী শাস্তিযোগ্য অপরাধ।

চলচিত্র সেন্সরবোর্ড সিনেমাটি প্রদর্শনের অনুমতি দিয়ে আইন লঙ্ঘন করেছেন। আইনি নোটিশে ‘ন ডরাই’ চলচিত্রের সেন্সরশিপ বাতিল, প্রেক্ষাগৃহে প্রদর্শনী বন্ধ করা এবং বাজার সিনেমাটির কমিক ও এনিমেটেড ভিডিও প্রত্যাহারের দাবি জানানো হয়েছে।

একই সঙ্গে এই সিনেমার মাধ্যমে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত এবং হযরত আয়েশা (রা) কে অপমান করায় নিঃশর্ত ক্ষমা প্রার্থনার দাবি জানানো হয়েছে।

এছাড়া লিগ্যাল নোটিশ বলা হয়েছে, ‘ন ডরাই’ চলচ্চিত্রে এমন দৃশ্য আছে যেগুলো বাংলাদেশী সিনেমায় এই প্রথম ও সাহসী বলা যেতে পারে। তবে পরিবারের সদস্যদের নিয়ে দেখা যাবে এমন নিশ্চয়তা দেওয়া যায় না।

গত ২৯ নভেম্বর (শুক্রবার) দেশের ৮টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছে বছরের বহুল প্রতীক্ষিত ছবি ‘ন ডরাই’। এদিকে মুক্তি আগেই সিনেমাটি সংলাপ নিয়ে সেন্সর জটিলতায় পড়ে। বৃহত্তর চট্টগ্রাম অঞ্চলের ভাষায় নির্মিত সিনেমাটি নারী সার্ফার নাসিমার জীবনের সত্যি ঘটনা অবলম্বনে তৈরি করা হয়েছে। এতে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন সুনেরাহ বিনতে কামাল। তার বিপরীতে অভিনয় করেছেন শরিফুল রাজ।

‘ন ডরাই’ সিনেমাটি প্রযোজনাও করেছে দেশের সর্বাধুনিক প্রেক্ষাগৃহ ‘স্টার সিনেপ্লেক্স’। এর ইংরেজি নাম ‘ডেয়ার টু সার্ফ’। চিত্রনাট্য লিখেছেন ভারতের ‘বুনোহাঁস’ ও ‘পিংক’ সিনেমার চিত্রনাট্যকার শ্যামল সেনগুপ্ত। পরিচালনা করেছে তানিম রহমান অংশু। সিনেমাটির দৃশ্য ধারণ হয়েছে কক্সবাজার ও সেন্টমার্টিনে।

আপনার মতামত লিখুন :