অস্ট্রেলিয়ায় বাংলাদেশ -ভারত মৈত্রী দিবস উদযাপন



স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

অস্ট্রেলিয়ার রাজধানী ক্যানবেরায় উদযাপিত হলো বাংলাদেশ-ভারত মৈত্রী দিবস। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী, বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী  এবং বাংলাদেশ ও ভারতের কূটনৈতিক সম্পর্কের ৫০ বছরকে স্মরণীয় করে রাখতে সেদেশের রাজধানীর হায়াত হোটেলে সোমবার (৬ ডিসেম্বর) বাংলাদেশ ও ভারতের হাইকমিশন যৌথভাবে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। 

অনুষ্ঠানের শুরুতে ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধে নিহত সকল শহীদের স্মরণে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। এ সময় আলোকচিত্র প্রদর্শনীতে জাাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে বাঙালির মুক্তির সংগ্রাম, ১৯৭১ সালে সংঘটিত গণহত্যা,  মহান মুক্তিযুদ্ধ ও এতে ভারতীয় সহায়তা, বঙ্গবন্ধু কর্তৃক স্বাধীনতার ঘোষণা, বিশ্ব মিডিয়ায় বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে প্রচারণা, বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ ও আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি অর্জনে তৎকালীন ভারত সরকারের ভূমিকা এবং স্বাধীনতা পরবর্তী দু’দেশের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক ও উন্নয়ন সহযোগিতা তুলে ধরা হয়। 

অনুষ্ঠানে বঙ্গবন্ধু কর্তৃক বাংলাদেশের উন্নয়নের সূচনা, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার উন্নয়নের অগ্রযাত্রা এবং বাংলাদেশ ও ভারতের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের বিষয়ে একটি ভিডিও প্রদর্শন করা হয়। বাংলাদেশি ও ভারতীয় শিল্পীরা পৃথকভাবে সংক্ষিপ্ত সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে নৃত্য পরিবেশন করেন। 

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের হাইকমিশনার মোহাম্মদ সুফিউর রহমান, ভারতের হাইকমিশনার মনপ্রীত ভোরা এবং অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি হারিন্দার সিধু বক্তৃতা করেন। এছাড়া রাশিয়াসহ অস্ট্রেলিয়ায় নিযুক্ত ৩১টি দেশের মিশনপ্রধান, বাংলদেশে নিযুক্ত অস্ট্রেলিয়ার হাইকমিশনার, অস্ট্রেলিয়ার বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা, শিক্ষাবিদ, থিংকট্যাঙ্ক, মুক্তিযোদ্ধা, প্রবাসী বাংলাদেশি ও ভারতীয়সহ শতাধিক ব্যক্তিবর্গ এ সময় উপস্থিত ছিলেন। 

বাংলাদেশের হাইকমিশনার সুফিউর রহমান ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধে ভারতের ভূমিকা, স্বাধীন বাংলাদেশের যুদ্ধবিধ্বস্ত প্রেক্ষাপটে ভারতীয় সহায়তা এবং প্রধানমন্ত্রী মুজিব ও ইন্দিরা কর্তৃক দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের সুদৃঢ় ভিত্তি স্থাপনের বিষয়কে স্মরণ করেন। তিনি ভারত-বাংলাদেশের জনগণের মধ্যে নিবিড় যোগাযোগ এবং দু’দেশের সকল ক্ষেত্রে ঘনিষ্ঠ সম্পর্কের ওপর আলোকপাত করেন, যা প্রধনমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধনামন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির গতিশীল নেতৃত্বে বেগবান হয়েছে। 

ভারতের হাইকমিশনার মনপ্রীত ভোরা বলেন, ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় বাংলাদেশের পাশে থাকতে পেরে ভারতের জনগণ গর্বিত । বাংলাদেশ ও ভারতের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ এবং বাংলাদেশ ভারতের গুরুত্বপূর্ণ বাণিজ্যিক অংশীদার । তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্বে বাংলাদেশের উন্নয়ন অগ্রযাত্রার ভূয়সী প্রশংসা করেন। 

 অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি হারিন্দার সিধু বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে ভারতের মানবিক সহায়তার প্রশংসা করেন। তিনি মুক্তিযুদ্ধের সময় এবং পরবর্তীতে যুদ্ধবিধ্বস্ত বাংলাদেশের পুনর্গঠনে অস্ট্রেলিয়ার অবদানের কথা স্মরণ করেন। ১০ লক্ষ রোহিঙ্গা আশ্রয়দানের জন্য বাংলাদেশের উদারতার প্রশংসা করেন। শান্তি, নিরাপত্তা ও উন্নয়নের ক্ষেত্রে অস্ট্রেলিয়া বাংলাদেশ ও ভারতের সাথে একযোগে কাজ করবে বলে তিনি উল্লেখ করেন। 

অস্ট্রেলিয়াসহ ১৮টি দেশে বাংলাদেশ ও ভারতীয় দুতাবাস যৌথভাবে দিবসটি পালন করা হচ্ছে । গত মার্চ মাসে ভারতের প্রধানমন্ত্রীর বাংলাদেশ সফরকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি যৌথভাবে ভারত কর্তৃক বাংলাদেশকে আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতির দিবস ৬ ডিসেম্বরকে মৈত্রী দিবস হিসেবে পালনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন। 

গোলাপগঞ্জে ইউরোপ বাংলাদেশ প্রেস ক্লাবের সংবর্ধনা 



কবির আল মাহমুদ, স্পেন
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

গোলাপগঞ্জ সাংবাদিক কল্যাণ সমিতির প্রতিষ্ঠাকালীন সহ সভাপতি ও ইউরোপ বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক কবির আল মাহমুদের স্বদেশ আগমন উপলক্ষে সংবর্ধনা প্রদান করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২০ জানুয়ারি) রাত ৯টায় গোলাপগঞ্জ সাংবাদিক কল্যাণ সমিতির কার্যালয়ে এ সংবর্ধনা প্রদান করা হয়।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সমিতির সভাপতি ও গোলাপগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি অজামিল চন্দ্র নাথের সভাপতিত্বে এবং সমিতির সাধারণ সম্পাদক ও সিলেট জেলা প্রেসক্লাবের সদস্য সাকিব আল মামুনের সঞ্চালনায় সংবর্ধিত অতিথির বক্তব্য রাখেন গোলাপগঞ্জ সাংবাদিক কল্যাণ সমিতির প্রতিষ্ঠাকালীন সহ সভাপতি ও ইউরোপ বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক কবির আল মাহমুদ।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন গোলাপগঞ্জ প্রেসক্লাবের সিনিয়র সহ সভাপতি রতন মনী চন্দ, নির্বাহী সদস্য দীনেশ দেবনাথ, সমিতির সহ সভাপতি ইমরান আহমদ, নির্বাহী সদস্য এম এ রাজ্জাক, সদস্য শান্ত দাস প্রমুখ।

স্বাগত বক্তব্য রাখেন সমিতির যুগ্ম সম্পাদক জয় রায় হিমেল। এসময় উপস্থিত ছিলেন স্পেন প্রবাসী তানিম আহমেদ, শাহ আলম, আরিফিন নাবিল প্রমুখ।

প্রধান অতিথি ও সংবর্ধিত অতিথির বক্তব্যে তিনি সাংবাদিক কল্যাণ সমিতির ভূয়সী প্রশংসা করে প্রবাসী সাংবাদিকদের বিভিন্ন দিক ও সাংবাদিকতার মানউন্নয়নে দিক নির্দেশনামূলক বক্তব্য উপস্থাপন করেন। এছাড়াও সাংবাদিক কল্যাণ সমিতি আয়োজিত মাস সেরা প্রতিবেদকের পুরস্কারের জন্য প্রতিমাসে পুরষ্কারের টাকা প্রদানের ঘোষণা দেন।

গত অক্টোবর মাস থেকে গোলাপগঞ্জ সাংবাদিক কল্যাণ সমিতি উপজেলায় কর্মরত সাংবাদিকদের মধ্যে প্রতিযোগিতা ও মেধাবী সাংবাদিক গড়ে তোলার লক্ষ্যে প্রনোদনা হিসেবে মাস সেরা প্রতিবেদক নির্বাচন করে পুরস্কার প্রদান করে থাকে। তিনি সমিতির ব্যতিক্রমী এ উদ্যোগ জানতে পেরে এ কার্যক্রমকে এগিয়ে নিতে ও সমিতির কার্যক্রম গতিশীল করতে পৃষ্টপোষকতার ঘোষণা দেন।

;

স্পেন প্রবাসীদের মতবিনিময় সভা



কবির আল মাহমুদ, স্পেন
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার পরিতোশ ঘোষের সাথে স্পেন প্রবাসীদের এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বুধবার (১২ জানুয়ারি) সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ এর অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার পরিতোশ ঘোষের সাথে ইউরোপ বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক কবির আল মাহমুদের নেতৃত্বে স্পেন প্রবাসীদের একটি প্রতিনিধি দল প্রবাসীদের বিভিন্ন সমস্যা এবং ভোগান্তি নিরসন বিষয়ে বাংলাদেশ পুলিশের সহযোগিতা চেয়ে একটি মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

স্পেনসহ ইউরোপ তথা সকল প্রবাসী বাংলাদেশীদের পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট প্রাপ্তিসহ বিভিন্ন সমস্যা সংক্রান্ত বিষয়ে এবং তা থেকে উত্তরণের উপায় নিয়ে উপস্থিত প্রত্যেকেই তাদের নিজ নিজ বক্তব্য উপস্থাপন করেন।


এ সময় তারা সিলেট সহ বাংলাদেশের সকল প্রবাসীর স্থাবর অস্থাবর সম্পত্তি ও বসতবাড়ির নিরাপত্তা নিশ্চিত করা এমনকি যাতে দেশে এসে প্রবাসীরা যেন কোন প্রকার হয়রানির শিকার না হতে হয় এ ব্যাপারে পুলিশের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

মতবিনিময়কালে অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার পরিতোশ ঘোষ বলেন, প্রবাসীরা দেশের অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছেন। তাদের জান মাল এবং সম্পত্তি রক্ষার বিষয়টিকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে। এ সংক্রান্ত কোন অভিযোগ পেলেই পুলিশ বাহিনী দ্রুত ব্যবস্থা নিচ্ছে। রেমিটেন্সযোদ্ধা খ্যাত প্রবাসীদের সরকার সর্বোচ্চ গুরুত্ব ও অগ্রাধিকার দিচ্ছে উল্লেখ করে পুলিশ কমিশনার বলেন বর্তমান বৈশ্বিক মন্দা অর্থনৈতিক এই পরিস্থিতিতে, প্রবাসীরা দেশের অর্থনীতিকে টিকিয়ে রেখেছে।

এমনকি দেশের বিভিন্ন ক্রান্তিকালে প্রবাসীদের পাঠানো রেমিটেন্স এর মাধ্যমে দেশের অর্থনীতি সচল রাখতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। তাই তারা দেশে এসে কোন ধরণের দুর্ভোগের শিকার যাতে না হন, সেদিকে পুলিশ সর্বদা সতর্ক রয়েছে।


সভায় স্পেন প্রবাসীদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ইউরোপ বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ও স্পেন বাংলা প্রেসক্লাবের সদস্য কবির আল মাহমুদ, স্পেন প্রবাসী ইমরান আহমদ খান, পাবেল বকশী, তানিম আহমদ, নিজাম উদ্দিন আহমদ। এছাড়া অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন দৈনিক সমকালের গোলাপগঞ্জ প্রতিনিধি রতন মনি চন্দ, সিলেট জেলা যুবলীগ নেতা ফরিদ আহমদ, মহানগর ছাত্রলীগ নেতা আশরাফুল ইসলাম বাপ্পী, আমাল মালিক ফাহিম, তানভীর আহমদ সহ সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাগণ।

;

মালদ্বীপে বাংলাদেশ দূতাবাসে আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবস পালিত



মো. মাহামুদুল, মালদ্বীপ
ছবি: বার্তা ২৪.কম

ছবি: বার্তা ২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

‘শতবর্ষে জাতির পিতা সুবর্ণে স্বাধীনতা/ অভিবাসনে আনবো মর্যাদা ও নৈতিকতা’, প্রতিপাদ্যে - এ প্রতিপাদ্যকে ধারণ করে মালদ্বীপে আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবস পালিত হয়েছে।

৮ জানুয়ারী মালদ্বীপের বাংলাদেশ দূতাবাসের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত রিয়ার অ্যাডমিরাল মোহাম্মদ নাজমুল হাসান।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু যে সোনার বাংলার স্বপ্ন দেখেছিলেন তা বাস্তবায়ন করার জন্য প্রধানমন্ত্রী চেষ্টা করে যাচ্ছেন। কিন্তু শুধুমাত্র সরকারের একার চেষ্টা দেশের উন্নতি ও অগ্রগতির জন্য যথেষ্ট নয়। আমাকে-আপনাকে সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে। তাহলে সোনার বাংলা গড়া সম্ভব হবে।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন দূতাবাসের প্রথম সচিব মো. সোহেল পারভেজ

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, মালদ্বীপের সুনামধন্য ব্যবসায়ী ও গ্লোবাল রিচ প্রা. লিমিটেডের সিইও, ২০১৮ ও ২০১৯ সালে বিদেশে বাংলাদেশি পণ্যের আমদানিকারক ক্যাটাগরিতে মালদ্বীপ হতে সিআইপি নির্বাচিত মো. সোহেল রানা ও এনবিএল মানি ট্রান্সফারের (মালদ্বীপ) লোকাল ডিরেক্টর হান্নান খান কবির।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন , রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক, শ্রমিক, পেশাজীবী সংগঠনের নেতা ও মালদ্বীপে কর্মরত বাংলাদেশি প্রবাসীরা।

;

আরব আমিরাতে প্রবাসীদের জন্য ই-পাসপোর্টের কার্যক্রম শুরু



নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

  • Font increase
  • Font Decrease

 দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর সুখবর পেলো সংযুক্ত আরব আমিরাত বাংলাদেশী প্রবাসীরা। বর্তমান বিশ্বের সর্বাধুনিক ই-পাসপোর্ট পাওয়ার পথ খুলেছে বাংলাদেশী দূতাবাস।

সংযুক্ত আরব আমিরাতের বাংলাদেশী দূতাবাস সূত্রে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়। বৃহস্পতিবার (২৩ ডিসেম্বর) বিকেল সাড়ে ৩টায় আমিরাতের রাজধানী আবুধাবিতে ই-পাসপোর্ট কার্যক্রমের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়েছে।

ই-পাসপোর্ট কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ দূতাবাসের রাষ্ট্রদূত মুহাম্মদ আবু জাফর ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের (নিরাপত্তা ও বহিরাগমন অনুবিভাগ) সুরক্ষা সেবা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মুহাম্মদ আবদুল্লাহ আল মাসুদ চৌধুরী।

এসময় দূতাবাসের বিভিন্ন সেক্টরের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

;