বেলুচিস্তানে বিদ্রোহীদের হামলা, নিহত ২০ পাক সেনা।



আন্তর্জাতিক ডেস্ক,বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

বেলুচিস্তানে বিদ্রোহীদের হামলায় আহত পাক সেনারা। পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর বিবৃতি ধরে সে দেশের সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, গত বুধবার দক্ষিণ-পশ্চিম বেলুচিস্তানের কেচ জেলায় একটি সড়কে পাক সেনার চেকপোস্টে হামলা চালায় বেলুচি বিদ্রোহীরা।  গুলি বর্ষণ এবং বিস্ফোরণে ১০ পাক সেনার মৃত্যু হয়। ইন্ডিয়া টুডের প্রতিবেদন থেকে এই তথ্য পাওয়া যায়।

পাক সেনারা দাবি করে ওই ঘটনার পরে এলাকা জুড়ে অভিযান চালিয়ে ৩ জন বেলুচি বিদ্রোহীকে আটক করা হয়েছে। তবে এখনও পর্যন্ত কোনও বেলুচি গোষ্ঠী হামলার দায় স্বীকার করেনি। নিহত সেনারা পাকিস্তানের ‘ফ্রন্টিয়ার কোর’ বাহিনীর সদস্য। তাঁরা ওই এলাকায় ‘চীন-পাকিস্তান অর্থনৈতিক করিডর’ (সিপিইসি) এবং তেলের পাইপলাইনের নিরাপত্তার দায়িত্বে ছিলেন।

১৩০০ কিলোমিটার দীর্ঘ সিপিইসি-র উপর সাম্প্রতিককালে বেশ কয়েকবার হামলা চালিয়েছে ‘বেলুচিস্তান লিবারেশন আর্মি’ (বিএলএ), ‘বেলুচ ন্যাশনালিস্ট আর্মি’ (বিএনএ)-র মতো স্বাধীনতাপন্থী বেলুচ গোষ্ঠীগুলি। পশ্চিম চীনের শিনজিয়াং প্রদেশের কাশগড় থেকে শুরু হওয়া ওই রাস্তা কারাকোরা পেরিয়ে ঢুকেছে পাকিস্তানে। শেষ হয়েছে বেলুচিস্তান প্রদেশের দক্ষিণ-পশ্চিম প্রান্তে চীন নিয়ন্ত্রিত গদর বন্দরে।

গত ৫ জানুয়ারি বেলুচিস্তান সীমানাবর্তী খাইবার-পাখতুনখোয়া প্রদেশে সেনা অভিযানের সময় গুলির লড়াইয়ে দুই পাক জওয়ান নিহত হয়েছিলেন। ২০ জানুয়ারি লাহোরে বিস্ফোরণ ঘটায় বেলুচি সংগঠন বিএনএ। এরপর সে দেশের সেনাপ্রধান কামার জাভেদ বাজওয়া বলেন, 'পাকিস্তানের মাটি থেকে সন্ত্রাসবাদী নির্মূল না করা পর্যন্ত আমাদের অভিযান চলবে।’

এই পরিস্থিতিতে বেলুচিস্তানে স্বাধীনতাপন্থী বিদ্রোহী গোষ্ঠীগুলির সক্রিয়তা ইমরান খান সরকারের চিন্তা বাড়াবে বলেই মনে করা হচ্ছে।

ইউক্রেনকে আরও সামরিক সহায়তার প্রতিশ্রুতি অস্ট্রেলিয়ার

  রুশ-ইউক্রেন সংঘাত



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

যুদ্ধবিধ্বস্ত ইউক্রেনকে আরও সামরিক সহায়তার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী অ্যান্টনি আলবানিজ।

স্থানীয় সময় রোববার (০৩ জুলাই) ইউক্রেনের কিয়েভ সফরে গিয়ে দেশটির প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কিকে এই প্রতিশ্রুতি দেন তিনি। খবর বিবিসির।

কোনো পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই রোববার কিয়েভ সফরে যান অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী অ্যান্টনি আলবানিজ। তিনি এর আগে বিধ্বস্ত শহর বুচা এবং ইরপিন ভ্রমণ করেছিলেন।

বিবিসির খবরে বলা হয়, ১০০ মিলিয়ন অস্ট্রেলিয়ান ডলার মূল্যের এই সহায়তা প্যাকেজটিতে ড্রোন এবং ৩৪টি অতিরিক্ত সাঁজোয়া যান অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।

অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী আরও ১৬ রাশিয়ান মন্ত্রী ও অলিগার্চের ওপর নিষেধাজ্ঞা এবং রাশিয়ান সোনা আমদানি বন্ধ করার ঘোষণা দিয়েছেন।

তিনি বলেছেন, তিনি এই সফরে ইউক্রেনের ধ্বংস ও আঘাত নিজ চোখে দেখেছেন।

কিয়েভের প্রেসিডেন্সিয়াল প্যালেসে এক সংবাদ সম্মেলনে আলবানিজ বলেন, তার দেশ ইউক্রেনকে যুদ্ধে জয় পেতে যতদিন সময় লাগবে ততদিন সমর্থন করবে।

যুক্তরাজ্য ও যুক্তরাষ্ট্রের মতো অস্ট্রেলিয়াও ইউক্রেনে তার দূতাবাস পুনরায় খোলার কথা বিবেচনা করছে।

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে সামরিক অভিযান শুরু করেছে রাশিয়া। ভয়াবহ হামলায় ইউক্রেনের কয়েক হাজার বেসামরিক নাগরিক প্রাণ হারিয়েছে। তাদের অভিযানকে অবৈধ অ্যাখা দিয়ে মস্কোর ওপর কঠোর নিষেধাজ্ঞা দিয়ে আসছে পশ্চিমা দেশগুলো।

;

ডেনমার্কে শপিং মলে বন্দুকধারীর হামলা, নিহত ৩



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ডেনমার্কের রাজধানী কোপেনেহেগেনের সবচেয়ে বড় শপিং মলে বন্দুকধারীর হামলায় তিন জন নিহত হয়েছেন। এসময় আহত হয়েছেন আরও বেশ কয়েকজন।

ডেনমার্ক পুলিশ জানিয়েছে রোববার (০৩ জুলাই) রাজধানীর ভিসিনিটি অব ফিল্ড’স শপিং সেন্টারে এই গুলি চালানোর ঘটনা ঘটে। এই ঘটনায় ২২ বছর বয়সী এক যুবককে গ্রেফতার করা হয়েছে।

দেশটির পুলিশ প্রধান সোয়েরেন থমাসেন বলেছেন, হামলার উদ্দেশ্য এখনও অস্পষ্ট নয়।

ডেনমার্কের প্রধানমন্ত্রী মেটে ফ্রেডেরিকসেন বলেছেন, ডেনমার্ক নিষ্ঠুর হামলার শিকার হয়েছে।

যারা প্রিয়জনকে হারিয়েছে তাদের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে তিনি বলেন, এই কঠিন সময়ে সবাইকে একসঙ্গে দাঁড়াতে এবং একে অপরকে সমর্থন করতে হবে।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভিডিও ফুটেজে দেখা গেছে, মানুষ শপিং মলের অভ্যন্তরে ছোটাছুটি করছে আর ভারী অস্ত্র নিয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত রয়েছেন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা।

প্রত্যক্ষদর্শীরা ঘটনাস্থলের বিশৃঙ্খল অবস্থার বর্ণনা দিয়েছেন। প্রত্যক্ষদর্শী এমিলি জেপেসেন বলেন, জানা যায়নি কী ঘটেছে। হঠাৎ করে শুধু চারপাশে বিশৃঙ্খলা তৈরি হয়’। আরেক প্রত্যক্ষদর্শী মাহদি আল-ওয়াজনি বলেন, হামলাকারী একটি ‘হান্টিং রাইফেল’ বহন করছিল।

শপিং মলে হামলার সন্দেহভাজন ব্যক্তিকে গ্রেফতার করার সময় তার কাছ থেকে একটি রাইফেল ও গোলাবারুদ উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির পুলিশ। সন্দেহভাজন ব্যক্তিকে পুলিশ জাতিগত ডেন বলে বর্ণনা করেছেন।

;

পাকিস্তানে যাত্রীবাহী বাস খাদে পড়ে নিহত ১৯



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

পাকিস্তানের বেলুচিস্তানে একটি যাত্রী বাস খাদে পড়ে কমপক্ষে ১৯ জন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও ১১ জন।

রোববার (৩ জুলাই) সকালে বেলুচিস্তানের জোব জেলায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। খবর পাকিস্তানভিত্তিক সংবাদমাধ্যম দ্য ডনের।

খবরে বলা হয়, ৩০ জনেরও বেশি যাত্রী নিয়ে বাসটি ইসলামাবাদ থেকে কোয়েটার দিকে যাচ্ছিল। দুর্ঘটনাস্থলে যাত্রীদের সহায়তা করতে দেখা গেছে উদ্ধারকর্মীদের। এদের অনেকের অবস্থা গুরুতর।

শেরানীর সহকারী কমিশনার মেহতাব শাহ সংবাদমাধ্যম ডনকে বলেন, ধনা সরের কাছে এ দুর্ঘটনা ঘটে। তিনি বলেন, দ্রুতগতির বাসটি খাদে পড়ে গেলে ১৯ যাত্রী নিহত ও ১১ জন আহত হয়েছে।

জোবের বেসামরিক হাসপাতালের চিকিৎসক নুরুল হক বলেন, যাদের হাসপাতালে আনা হয়েছে তাদের অবস্থা সংকটাপন্ন। নিহতের সংখ্যা বাড়তে পারে বলে শঙ্কা প্রকাশ করেন তিনি।

বেলুচিস্তানের মুখ্যমন্ত্রী মীর আবদুল কুদুস এই ঘটনায় নিহতদের জন্য শোক প্রকাশ করেছেন। তিনি নিহতদের পরিবারের প্রতি আন্তরিক সমবেদনাও জানিয়েছেন।

তিনি আহতদের চিকিৎসা নিশ্চিত করতে ঢোবের সিভিল হাসপাতালে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করার নির্দেশ দেন।

এদিকে ভয়াবহ দুর্ঘটনার খবর পেয়েই গভীর শোক প্রকাশ করেছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফ। আহতদের সব ধরনের চিকিৎসা সহায়তায় কর্তৃপক্ষকে তাৎক্ষণিক নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

;

শিরিন হত্যায় ব্যবহৃত বুলেট যুক্তরাষ্ট্রের হাতে তুলে দেবে ফিলিস্তিন



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

অধিকৃত পশ্চিম তীরে ইসরায়েলি অভিযানের সময় ফিলিস্তিনি-আমেরিকান সাংবাদিক শিরিন আবু আকলেহকে হত্যায় ব্যবহৃত বুলেট যু্ক্তরাষ্ট্রের হাতে তুলে দেবে ফিলিস্তিন।

ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষের জেনারেল প্রসিকিউটর আকরাম আল-খাতিব শনিবার (২ জুলাই) বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেন, আমরা পরীক্ষার জন্য বুলেটটি যুক্তরাষ্ট্রের কাছে হস্তান্তর করতে রাজি হয়েছি।

ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষ, অনেক মানবাধিকার গোষ্ঠী ও সংবাদমাধ্যমগুলো প্রাথমিকভাবে তদন্ত করে দেখেছে আল জাজিরার সাংবাদিক আবু আকলেহ ইসরায়েলি সেনাবাহিনীর হাতে নিহত হয়েছেন।

জাতিসংঘের মানবাধিকার কার্যালয় গত মাসে বলেছিল, সংগ্রহ করা তথ্যে দেখা গেছে যে ১১ মে আবু আকলেহকে যে বুলেটটি হত্যা করা হয়েছিল সেটি ইসরায়েলি বাহিনীর ছোড়া।

বেশ কয়েকজন প্রত্যক্ষদর্শী বলেন, জেরুজালেমে জন্ম নেওয়া শিরিনকে হত্যা করেছে ইসরায়েলি বাহিনী। ব্যালিস্টিক এবং ফরেনসিক বিশেষজ্ঞদের মতে, সবুজ টিপযুক্ত বুলেটটি মূলত বর্ম ছিদ্র করার জন্য ডিজাইন করা এবং ‘এম৪ রাইফেলে ব্যবহৃত হয়েছিল। বুলেটটি তার মাথা থেকে বের করা হয়েছিল।

গত ১১ মে দখলকৃত পশ্চিম তীরের জেনিন শহরে অভিযান চালায় ইসরায়েলি সেনারা। সংবাদ সংগ্রহের জন্য ঘটনাস্থলে ছিলেন ৫১ বছর বয়সী শিরিন আবু আকলেহ। প্রত্যক্ষদর্শী ও ঘটনাস্থলে থাকা অন্য সাংবাদিকেরা জানান, ইসরায়েলের এক সেনা মাথায় গুলি করলে শিরিন প্রাণ হারান।

;