ইউক্রেনকে ১০ হাজার ড্রোন দেবে যুক্তরাজ্য



আন্তর্জাতিক ডেস্ক বার্তা২৪.কম
ছবি : সংগৃহীত

ছবি : সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

রাশিয়ার আগ্রাসনের বিরুদ্ধে যুদ্ধে সহায়তা করার জন্য ইউক্রেনকে ১০ হাজারের বেশি ড্রোন সরবরাহ করবে যুক্তরাজ্য।

দেশটির প্রতিরক্ষামন্ত্রী গ্রান্ট শ্যাপস’র কিয়েভ সফরের সময় বৃহস্পতিবার (৭ মার্চ) এ কথা বলেছেন বলে জানিয়েছে রয়টার্স।

যুক্তরাজ্যের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ‘এসব ড্রোনের জন্য আরও সাড়ে ১২ কোটি ইউরো ব্যয় হচ্ছে। এ নিয়ে ইউক্রেনে তাদের মোট ব্যয় বেড়ে সাড়ে ৩২ কোটি ইউরো দাঁড়াবে।’

মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘এ অর্থে বছরজুড়ে ইউক্রেনের সশস্ত্র বাহিনীকে ১০ হাজারেরও বেশি ড্রোন সরবরাহ করা হবে।’

ইউক্রেনে তৃতীয় দফার সফরে শ্যাপস বলেন, ‘বিশ্বের শীর্ষ স্থানীয় যুক্তরাজ্যের বিভিন্ন শিল্প প্রতিষ্ঠান থেকে সরাসরি আনা অত্যাধুনিক নতুন ড্রোন ইউক্রেনের সশস্ত্র বাহিনীকে দিতে আমাদের প্রতিশ্রুতি বাড়াচ্ছি।’

এ সময় তিনি ইউক্রেনের প্রতিরক্ষামন্ত্রী রুস্তেম উমেরভ এবং প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির সঙ্গে সাক্ষাত করেন।

এদিকে ব্রিটেন জানিয়েছে, ২০২২ সালের ফেব্রুয়ারিতে রাশিয়া তার প্রতিবেশী দেশ ইউক্রেনে আগ্রাসন শুরু করার পর থেকে তারা দেশটিকে ৭০০ কোটি ডলারেরও বেশি সামরিক সহায়তা প্রদানের প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।

ব্রিটেন হচ্ছে প্রথম দেশ যারা ইউক্রেনের সামরিক বাহিনীকে দূরপাল্লার বিভিন্ন অস্ত্র সরবরাহ করে। গত মে মাসে দেশটি ঘোষণা দেয় যে, তারা স্টর্ম শ্যাডো ক্ষেপণাস্ত্র পাঠাবে ইউক্রেনে।

যুক্তরাজ্যের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বলেছে, ‘রাশিয়ার বিভিন্ন সরঞ্জামাদি ধ্বংস এবং ক্ষতিগ্রস্ত করতে ইক্রেনের সামরিক বাহিনী মস্কোর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে বিভিন্ন ধরনের ড্রোন ব্যবহার করে আসছে।’

   

ইসরায়েলের জাহাজ জব্দ করেছে ইরান, উত্তেজনা চরমে



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

বিশ্বের অন্যতম ব্যস্ত ও গুরুত্বপূর্ণ নৌরুট হরমুজ প্রণালী থেকে ইসরায়েলের একটি কন্টেইনারবাহী জাহাজ জব্দ করেছে ইরানের আধাসামরিক বাহিনী বিপ্লবী গার্ডের নৌ-কমান্ডরা।

শনিবার (১৩ এপ্রিল) বেশ কয়েকটি গণমাধ্যমের বরাতে এ তথ্য জানিয়েছে ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভি।

এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শনিবার ইরানের রাষ্ট্রীয় বার্তাসংস্থা 'ইরনার' প্রকাশিত এক ভিডিওতে দেখা যায়, দেশটির বিপ্লবী গার্ডের নৌ কমান্ডরা জাহাজটিতে অভিযান পরিচালনা করেছে। এমএসসি এআরআইইএস নামের জাহাজটি জব্দ করেন বিপ্লবী গার্ডের সেনারা।

এর আগে যুক্তরাজ্যের সেনাবাহিনী জানিয়েছিল, সংযুক্ত আরব আমিরাতের ফুজাইরাহ বন্দরের কাছে হরমুজ প্রণালীতে একটি জাহাজের নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে অজ্ঞাত একটি দল।

এদিকে ইসরায়েলের সামরিক মুখপাত্র ড্যানিয়েল হাগারি এক বিবৃতিতে বলেছেন, এ ঘটনার পর ইসরায়েল-ইরানের পরিস্থিতি আরও ভয়াবহ অবস্থায় পৌঁছাবে।

ইরানের সংবাদমাধ্যমগুলোতে বলা হয়েছে, জাহাজটি জোডিয়াক মেরিটাইম শিপিং কোম্পানির। এই কোম্পানিটির মালিক হলেন দখলদার ইসরায়েলের ধনকুবের ইয়াল ওফার। জাহাজটি পর্তুগালের পতাকাবাহী ছিল বলেও জানিয়েছে সংবাদমাধ্যমগুলো।

হরমুজ প্রণালী থেকে জব্দ করার পর জাহাজটি এখন ইরানের সমুদ্রসীমায় নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।

;

ইসরায়েলে যেকোন সময় হামলা, প্রস্তুত করা হচ্ছে ড্রোন-ক্ষেপণাস্ত্র



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ইসরায়েলে হামলা করার জন্য গত সপ্তাহেই ১০০টির বেশি ক্রুজ প্রস্তুত করে রেখেছে ইরান- এমন দাবি করে যুক্তরাষ্ট্রের বেশ কয়েকজন কর্মকর্তা গণমাধ্যম সিবিএসকে জানায়। 

শনিবার (১৩ এপ্রিল) যুক্তরাষ্ট্রের আরেক সংবাদমাধ্যম সিএনএন জানিয়েছে, মার্কিন কর্মকর্তারা লক্ষ্য করেছেন, ইরানে সামরিক তৎপরতা বৃদ্ধি পেয়েছে। ইরানি সেনারা ড্রোন ও ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র এক জায়গা থেকে আরেক জায়গায় নিয়ে যাচ্ছেন। তাদের আশঙ্কা, এসব তৎপরতার মাধ্যমে মূলত ইরান থেকে ইসরায়েলে সরাসরি হামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে তেহরান। মার্কিন কর্মকর্তারা ইঙ্গিত দেখতে পাচ্ছেন যে ইরান ক্ষেপণাস্ত্র এবং ড্রোন হামলার মাধ্যমে ইসরায়েলে আক্রমণ করতে প্রস্তুত হতে পারে।

এর আগে ওই কর্মকর্তারা জানান, ইরান সম্ভাব্য হামলার জন্য বিপুল সংখ্যক ক্ষেপণাস্ত্র প্রস্তুত করেছে। এসব ড্রোন ইসরায়েলে হামলায় ব্যবহার করা যেতে পারে। তাদের মতামত, যুক্তরাষ্ট্র ও ইসরায়েল যেন ইরানে কোনো হামলা চালানোর সাহস দেখাতে না পারে সেজন্য এসব মারণাস্ত্র প্রস্তুত করা হতে পারে।

উল্লেখ্য, ১ এপ্রিল সিরিয়ায় ইরানি কনস্যুলেটে হামলা চালায় ইসরায়েল। ওই হামলায় ১৩ জন নিহত হন। কনস্যুলেটে হামলায় বেশ কয়েকজন সামরিক কর্মকর্তা প্রাণ হারান। তাদের মধ্যে কুদস্ ফোর্সের একজন সিনিয়র কমান্ডার ছিলেন। সিরিয়া ও লেবাননে বাহিনীর কার্যক্রম দেখভাল করতেন তিনি। ইরান এর প্রতিশোধ নেয়ার ঘোষণা দিয়েছে। 

;

সিডনিতে শপিং মলে ছুরি হামলায় নিহত ৫



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

অস্ট্রেলিয়ার নিউ সাউথ ওয়েলসের রাজধানী সিডনির একটি শপিং মলে ছুরি হামলায় ৫ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরো অনেকে। তাদের বেশিরভাগের অবস্থা আশঙ্কাজনক। খবর- সিডনি মর্নিং হেরাল্ড।

শনিবার (১৩ এপ্রিল) স্থানীয় সময় বিকেল ৪টার কিছু আগে বন্ডি জাংশন শপিং সেন্টারে এই হামলার ঘটনা ঘটে।

হামলাকারী একজন পুরুষ এবং তাকে থামাতে পুলিশকে গুলি করতে হয়েছে। তিনি এখনো বেঁচে আছে কি না নিশ্চিত নয়।

শপিং মলটির অবস্থান সিডনির ওয়েস্টফিল্ড এলাকায়। হামলা ঘটার পর পুলিশ মলটির আশপাশের এলাকায় যান চলাচল সীমিত রাখার পদক্ষেপ নিয়েছে।

এ ইস্যুতে আরো তথ্য জানতে পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করেছিল অস্ট্রেলিয়ার বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম। কিন্তু পুলিশ কর্মকর্তারা বলেছেন, ‘আমাদের তদন্ত চলছে। এখন এ ব্যাপারে আর বেশি কিছু বলার সুযোগ নেই।’



;

ইসরায়েল-ইরান উত্তেজনা: বিশ্ব বাজারে জ্বালানি তেলের দাম বেড়েছে



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ইসরায়েল-ইরান উত্তেজনায় আন্তর্জাতিক বাজারে অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের দাম বেড়েছে। শুক্রবার (১২ এপ্রিল) এ খবর জানিয়েছে সিএনবিসি।

গত বছরের ৭ অক্টোবর ইসরায়েল-হামাস যুদ্ধ শুরু পর লোহিত সাগরে হুতিদের হামলার পর বিশ্বজুড়ে জ্বালানি তেলের দাম বেড়ে যায়।

গত ১ এপ্রিল সিরিয়ার রাজধানী দামেস্কে ইরানের কনস্যুলেট ভবনে হামলা করে ইসরায়েল। ওই হামলায় ইসলামিক রেভল্যুশনারি গার্ডের দুই জেনারেলসহ বেশ কয়েকজন কমান্ডার নিহত হন। এরপর রাজনৈতিক উত্তেজনা আরও বেড়ে যায়। এমন অস্থিরতার মধ্যেই আবারও বাড়ল জ্বালানি তেলের দাম।

জানা গেছে, আগামী মে মাসে ওয়েস্ট টেক্সাস ইন্টারমিডিয়েট (ডব্লিউটিআই) জ্বালানি তেল সরবরাহ করবে সেটির দাম বেড়েছে। শুক্রবার (১২ এপ্রিল) প্রতি ব্যারেলের ১ দশমিক ১৪ ডলার বা ১ দশমিক ৩৪ শতাংশ বেড়ে ৮৬ দশমিক ১৫ মার্কিন ডলারে দাঁড়িয়েছে।

অন্যদিকে, পরের মাস জুনে যে ব্রেন্ট ক্রুড তেল সরবরাহ হবে, সেটির প্রতি ব্যারেলের দাম এদিন ১ দশমিক শূন্য ৪ ডলার বা ১ দশমিক ১৬ ডলার বেড়ে ৯০ দশমিক ৭৯ ডলারে উঠেছে।

এদিকে, যুক্তরাষ্ট্রের র‌্যাপিডান এনার্জির প্রেসিডেন্ট বব ম্যাকন্যালি বলেন, ইরান ইসরায়েলে সরাসরি সামরিক হামলা চালালে আন্তর্জাতিক বাজারে প্রতি ব্যারেল ব্রেন্ট ক্রুড অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের দাম বেড়ে ১০০ মার্কিন ডলারে উঠে যেতে পারে। আর এ হামলায় যদি হরমুজ প্রণালিতে সরবরাহ ব্যবস্থায় ব্যাঘাত ঘটে, তাহলে প্রতি ব্যারেল ১২০ থেকে ১৩০ ডলারেও উঠতে পারে।

;