গেম কন্ট্রোলের সঙ্গে জ্যান্ত সাপ ফ্রি! (ভিডিও)



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

একজন গ্রাহক অনলাইনে অর্ডার করেছিলেন একটি গেম কন্ট্রোলারের। সেটি কুরিয়ারে পাওয়া গেছে। সেইসঙ্গে ডেলিভারি বক্সে পাওয়া গেছে একটি জীবন্ত পদ্মগোখরা সাপও, তবে একদম ফ্রি!

সাপটির দংশনের হাত থেকে রেহাই পেয়েছেন গ্রাহক। সেই সঙ্গে ডেলিভারি বক্সে থাকা সাপটির ভিডিও ধারণ করতে সক্ষম হয়েছেন তিনি। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের কর্নাটক রাজ্যে।

মাইক্রোব্লগিং সাইট এক্সে (সাবেক টুইটার) বেঙ্গালুরু শহরের একজন নারী গ্রাহক এভাবেই ফ্রি-তে পাওয়া ঘটনাটির মজাদার বর্ণনা দেন। তার নাম তানভি।

বুধবার (১৯ জুন) ভারতের এনডিটিভির খবর বরাত দিয়ে যুক্তরাজ্যের দ্য ইনডিপেনডেন্ট এ খবর জানায়।

তানভি ১৭ জুন এক্সে জীবন্ত সাপের ভিডিও পোস্ট করে লেখেন, আমি অ্যামাজনে ‘এক্সবক্স কন্ট্রোলার’ (গেম কন্ট্রোলার) অর্ডার করেছিলাম। সেটি পেয়েছি। সেইসঙ্গে একটি সাপ পেয়েছি একদম ফ্রি!

পরে সাপটিকে মুক্ত পরিবেশে মুক্ত করে দেওয়া হয়েছে। প্রসঙ্গত, ভারতের কর্নাটক রাজ্যে পদ্মগোখরা সাপের অহরহই দেখা মেলে। এ ঘটনায় অ্যামাজন ইন্ডিয়া গ্রাহকের কাছে দুঃখ প্রকাশ করেছে এবং সেইসঙ্গে জানিয়েছে, তাদের একটি টিম ঘটনাস্থলে যাবে।

হামলাকারী বাবার অস্ত্র ব্যবহার করেছেন!



আন্তর্জাতিক ডেস্ক বার্তা২৪.কম
ছবি : সংগৃহীত

ছবি : সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

নির্বাচনী সমাবেশে ডোনাল্ড ট্রাম্পের ওপর গুলি করা তরুণ যে আগ্নেয়াস্ত্র ব্যবহার করেন, সেটি তার বাবা কিনেছিলেন বলে ধারণা করছেন তদন্তসংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা। তবে, এ বিষয়ে শক্ত কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে দুজন কর্মকর্তা এপিকে বলেছেন, হামলাকারী টমাস ম্যাথিউ ক্রুকসের বাবা ম্যাথিউ ক্রুকস অন্তত ছয় মাস আগে একটি আগ্নেয়াস্ত্র কিনেছিলেন।

যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় তদন্ত ব্যুরোর (এফবিআই) সদস্যরা হামলার কারণ সম্পর্কে কিছু বলেননি। তবে কর্তৃপক্ষ এ ঘটনাকে হত্যাচেষ্টা হিসেবে দেখছে।

২০ বছর বয়সি টমাস ম্যাথিউ ক্রুকস স্থানীয় সময় শনিবার (১৩ জুলাই) সন্ধ্যায় পেনসিলভানিয়া অঙ্গরাজ্যের বাটলারে ট্রাম্পের সমাবেশে গুলি চালান।

একটি গুলি ট্রাম্পের ডান কানে লেগেছে। গুলিতে সমাবেশে যোগ দেওয়া একজন নিহত এবং দুজন গুরুতর আহত হয়েছেন।

ওই সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন বেন মাসের। তিনি স্থানীয় কেডিকেএ টিভিকে বলেন, বন্দুকধারীকে এক ছাদ থেকে আরেক ছাদে যেতে দেখেছেন তিনি। তখন তিনি একজন কর্মকর্তাকেও বিষয়টি বলেছিলেন।

বেন মাসের বলেন, ‘যখন আমি নিজের জায়গায় ফিরে যাওয়ার জন্য ঘুরে দাঁড়িয়েছি, তখনই গুলির শব্দ শুরু হয়। তারপর গোলমেলে অবস্থা তৈরি হয়। আমরা সবাই দৌড়াতে থাকি। এটাই ছিল ঘটনা।’

এ ঘটনার আরেক প্রত্যক্ষদর্শী এক নারী বিবিসিকে বলেন, লোকজন ছোটাছুটি শুরু করার আগে ‘পপ, পপ, পপ’ শব্দ হয়। এরপর সেখানে বিশৃঙ্খলা দেখা দেয়।

ওয়ারেন ও ডেব্বি গুলির শব্দ শোনার সময় ট্রাম্পের ডান পাশে ছিলেন। ডেব্বি বলেন, এ সময় তাদের পাশে থাকা ছোট্ট একটি শিশু কাঁদছিল এবং বলছিল, সে মারা যেতে চায় না।

;

নেপালের নতুন প্রধানমন্ত্রী কেপি শর্মা অলি



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
নেপালের নতুন প্রধানমন্ত্রী কেপি শর্মা অলি । ছবি: সংগৃহীত

নেপালের নতুন প্রধানমন্ত্রী কেপি শর্মা অলি । ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

নেপালের নতুন প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নিযুক্ত হয়েছেন কেপি শর্মা অলি। এ নিয়ে চতুর্থ বারের মতো তিনি দেশটির প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পেলেন। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

রবিবার (১৪ জুলাই) তাকে নিয়োগ দিয়েছেন নেপালের প্রেসিডেন্ট রাম চন্দ্র পাওডেল। সিপিএন-ইউএসএল ও নেপালি কংগ্রেস এ জোট সরকার গঠন করেছে। সোমবার নতুন মন্ত্রিসভার সঙ্গে অলিও শপথ নেবেন।

এর আগে শুক্রবার (১২ জুলাই) সংসদে আস্থাভোটে হেরে ক্ষমতা ছাড়তে হয় সাবেক প্রধানমন্ত্রী পুষ্প কামাল দাহালকে। সংসদে ২৫৮ আইনপ্রণেতার মধ্যে মাত্র ৬৩ জনকে নিজের পক্ষে রাখতে পেরেছিলেন তিনি। ফলে মাত্র ১৯ মাসের মাথায় ক্ষমতাচ্যুত হন এই মাওবাদী নেতা।

 নেপালের সংসদের নিম্নকক্ষে আসন রয়েছে ২৭৫টি। ফলে কেউ প্রধানমন্ত্রী হতে চাইলে কমপক্ষে ১৩৮জন সদস্যের সমর্থন পেতে হবে। শুক্রবার রাতে প্রধানমন্ত্রী হওয়ার দাবি নিয়ে প্রতিনিধি পরিষদের ১৬৫ জন সদস্যের স্বাক্ষর জমা দেন কেপি শর্মা অলি। তাদের মধ্যে ৭৭ জন ছিলেন তার দলের সদস্য এবং ৮৮ জন ছিলেন নেপালি কংগ্রসের।

৭২ বছর বয়সী কেপি শর্মা অলি এর আগে ২০১৫ সালের ১১ অক্টোবর থেকে ২০১৬ সালের ৩ আগস্ট পর্যন্ত, ২০১৮ সালের ৫ ফেব্রুয়ারি থেকে ২০২১ সালের মে মাস পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন। পরবর্তীতে আবারও ২০২১ সালের মে মাস থেকে তিন মাসের জন্য নেপালের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

;

সিরিয়ায় ইসরায়েলি হামলায় নিহত ১, আহত ৩



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

সিরিয়ার রাজধানী দামেস্ক এবং এর আশেপাশে বেশ কয়েকটি স্থানে ইসরায়েলি বাহিনী হামলা চালিয়েছে। এতে সিরিয়ার এক সৈন্য নিহত হয়েছেন, আহত হয়েছেন ৩ জন।

রোববার (১৪ জুলাই) বার্তা সংস্থা রয়টার্স এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানায়।

ইসরায়েলি সেনাবাহিনী বলেছে, তারা সিরিয়ার ভূখণ্ড থেকে ইসরায়েলে দুটি ড্রোন হামলার প্রতিক্রিয়ায় এমন হামলা চালিয়েছে। হামলাটি সিরিয়ার সামরিক কমান্ড সেন্টারের পাশাপাশি দেশটির সেনাবাহিনী এবং বিমান প্রতিরক্ষা বাহিনীর বিভিন্ন স্থাপনা লক্ষ্য করে চালানো হয়।

সিরিয়ার রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা সানা জানিয়েছে, রোববার মধ্যরাতের পর ইসরায়েলি বিমান হামলায় একজন সেনা নিহত ও তিনজন আহত হয়েছে।

সংস্থাটি আরো জানায়, দখলকৃত সিরিয়ার গোলান মালভূমি থেকে দক্ষিণ অঞ্চলের বেশ কয়েকটি সামরিক অবস্থান এবং দামেস্কের কাফর সুসা জেলার একটি আবাসিক ভবন লক্ষ্য করে হামলা চালানো হয়।

উল্লেখ্য, ২০১১ সালে সিরিয়ায় গৃহযুদ্ধ শুরু হওয়ার পর থেকে ইসরায়েল দেশটিতে শত শত হামলা চালিয়েছে। সেনাবাহিনীর অবস্থান এবং ইরান-সমর্থিত যোদ্ধাদের লক্ষ্য করে এসব হামলা চালানো হয়।

;

ট্রাম্পকে গুলি করা যুবক রিপাবলিকান পার্টির নিবন্ধিত ভোটার



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প

সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প

  • Font increase
  • Font Decrease

নির্বাচনী প্রচারণায় সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ওপর গুলি চালানো টমাস ম্যাথিউ ক্রুকস রিপাবলিকান পার্টির নিবন্ধিত ভোটার ছিলেন।

রোববার (১৪ জুলাই) ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া অঙ্গরাজ্য পর্যায়ের একটি ভোট-সংক্রান্ত নথিতে দেখা গেছে, টমাস ম্যাথিউ ক্রুকসের জন্ম ২০০৩ সালের ২০ সেপ্টেম্বর। ওই নথি অনুযায়ী, তিনি ট্রাম্পের রিপাবলিকান পার্টির নিবন্ধিত একজন ভোটার।

সেই সঙ্গে ভোটার স্ট্যাটাসের ঘরে ক্রুকসকে ‘সক্রিয়’ হিসেবে লেখা হয়েছে।

শনিবার (১৩ জুলাই) যুক্তরাষ্ট্রের পেনসিলভানিয়া অঙ্গরাজ্যে নির্বচনী প্রচার সমাবেশে ডোনাল্ড ট্রাম্পকে লক্ষ্য করে গুলি করা হয়। গুলির শব্দ পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ট্রাম্প মঞ্চে বসে পড়েন। পরে গোয়েন্দা সংস্থার তাকে টেনে তুললে তার কান ও মুখমণ্ডল দিয়ে রক্ত ঝরতে দেখা যায়। পরে ট্রাম্প উঠে দাঁড়ানোর চেষ্টা করেন তখন ট্রাম্প মুষ্টিবদ্ধ হাত ওপরে তুলে বলে ওঠেন, ‘ফাইট, ফাইট, ফাইট!

প্রত্যক্ষদর্শী হামলার ঘটনার বর্ণনায় বলেছেন, ট্রাম্পের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা সিক্রেট সার্ভিস টিম মুহূর্তের মধ্যে গুলি করে হামলাকারীর মাথা উড়িয়ে দিয়েছিল।

ভোট-সংক্রান্ত নথি

এদিকে দেশটির কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা (এফবিআই) জানিয়েছে, হামলাকারীর ২০ বছর বয়সী থমাস ম্যাথিউ ক্রুকস। বিবিসির খবর বলছে, হামলাকারী ক্রুকস পেনসিলভানিয়ার বেথেল পার্ক এলাকার বাসিন্দা। বাটলার থেকে এই শহরের দূরত্ব ৭০ কিলোমিটার। গুলির এই ঘটনাকে হত্যাচেষ্টা ধরে তদন্ত চলছে বলে জানিয়েছে সিক্রেট সার্ভিস।

এতো নিরাপত্তার মধ্যে কিভাবে এমন হামলার ঘটনা ঘটলো তা নিয়ে নানা প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম হিন্দুস্তান টাইমসের খবরে বলা হয়েছে, ডোনাল্ড ট্রাম্পের ওপর হামলাকারী যুবকের দিকে আগে থেকেই নজর ছিল স্নাইপারের। তাহলে কেন এই ঘটনা ঘটল? কেন আগেই শুটারকে থামানো গেল না।

মার্কিন প্রশাসন সূত্রে খবর, ট্রাম্প যেখানে দাঁড়িয়ে বক্তব্য দিচ্ছিলেন, তার থেকে মাত্র দেড়শো মিটার দূরে ছিলেন হামলাকারী। একটি এক তলা বাড়ির ছাদে উঠে গুলি চালান তিনি। জোসেফ নামের এক প্রত্যক্ষদর্শী যুবক বলেন, আমি পর পর অনেকগুলো গুলির শব্দ শুনতে পেয়েছিলাম। আমার পাশের এক ব্যক্তি গুলি খেয়ে লুটিয়ে পড়েন। তার ঠিক মাথায় গুলি লেগেছিল। আর এক মহিলাকেও দেখলাম বসে পড়তে। তার হাতে গুলি লেগেছে।

বিবিসিকে এক প্রত্যক্ষদর্শী জানিয়েছেন, তিনি হামলাকারীকে বন্দুক হাতে এক তলা বাড়ির ছাদে উঠতে দেখেছিলেন। তিনিই চিৎকার করে নিরাপত্তা বাহিনীকে সতর্ক করেন। কিন্তু তার আগেই ট্রাম্পকে লক্ষ্য করে গুলি চালিয়ে দেন। তবে তিনি লক্ষ্যভ্রষ্ট হন।

প্রত্যক্ষদর্শী বলেন, সিক্রেট সার্ভিস টিম হামলাকারীর মাথা গুলি করে। তার পর তারা হামাগুড়ি দিয়ে ছাদে উঠেছিল। হামলাকারীর মৃত্যু নিশ্চিত করতে বন্দুক তাক করেই এগোচ্ছিল টিম। কিন্তু ততক্ষণে হামলাকারীর মৃত্যু হয়েছিল।

;