মিয়ানমারকে আন্তর্জাতিক আদালতের সম্মুখীন করার আহ্বান



স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম, ঢাকা
জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক বিশেষ দূত ইয়াংহি লি, ছবি: সংগৃৃহীত

জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক বিশেষ দূত ইয়াংহি লি, ছবি: সংগৃৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

রোহিঙ্গা গণহত্যার জন্য মিয়ানমারকে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের সম্মুখীন করার আহ্বান জানিয়েছেন জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক বিশেষ দূত (র‍্যাপোর্টিয়ার) ইয়াংহি লি।

বুধবার (২৩ অক্টোবর) নিউইয়র্কের জাতিসংঘের সাধারণ সম্মেলনে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এ আহ্বান জানান তিনি।

লি বলেন, 'পুরো পরিস্থিতির জন্য মিয়ানমারকে অবশ্যই আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতে প্রেরণ করতে হবে। অথবা মিয়ানমারে জনগণের ন্যায়বিচার নিশ্চিত করার জন্য একটি আন্তর্জাতিক ট্রাইব্যুনাল প্রতিষ্ঠা করতে হবে।'

এদিকে জাতিসংঘের সাধারণ সম্মেলনে বক্তব্য দেওয়ার আগে মিয়ানমারের স্থায়ী প্রতিনিধিদের সঙ্গে সাক্ষাৎ প্রসঙ্গে এক টুইট বার্তায় লি বলেন, 'মিয়ানমার যখন আমার সঙ্গে কাজ করতে চায় না, তখন মৌখিক প্রতিবেদনের আগে জাতিসংঘ সদর দফতরের অ্যাসেম্বলি হলে মিয়ানমারের স্থায়ী প্রতিনিধির সঙ্গে সাক্ষাৎ করারও কোনো কারণ নেই।'

প্রেস বিফ্রিং-এ লি বলেন, 'আমি বিশ্বাস করি, যতক্ষণ না রোহিঙ্গাদের বিতাড়িত করার মূল কারণগুলোর প্রতিকার না হয় ততক্ষণ বাংলাদেশে থেকে শরণার্থীদের মিয়ানমারে ফিরে আসা নিরাপদ নয়।'

রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে গুরুতর মানবাধিকার লঙ্ঘনের জন্য মিয়ানমারকে দায়ী করে দেশটির সামরিক সংস্থা এবং কর্মকর্তাদের ওপর নিষেধাজ্ঞা দিতে চাপ দেওয়ারও আহ্বান জানান তিনি। মানবাধিকারের বিষয়টি অর্থনৈতিক স্বার্থকে অনুসরণ করা উচিত নয় বলেও তিনি যোগ করেন।

একই ব্রিফিংয়ে মিয়ানমার বিষয়ক তথ্য অনুসন্ধানকারী নিরপেক্ষ আন্তর্জাতিক মিশনের প্রধান মারজুকি দারুসমান বলেন, 'মিয়ানমার মানবাধিকার এবং মানবিক আইন লঙ্ঘন করেছে। মিশন প্রমাণ করেছে, আন্তর্জাতিক আইনের অধীনে যুদ্ধাপরাধ মিয়ানমারের সশস্ত্র বাহিনী কর্তৃক সংঘটিত হয়েছে।'

দারুসমান উল্লেখ করেন, 'মিয়ানমারে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর ওপর নিপীড়ন অব্যাহত রয়েছে এবং এর ফলে বাংলাদেশ থেকে ১০ লাখ রোহিঙ্গা শরণার্থীর প্রত্যাবর্তন অসম্ভব বলে প্রতীয়মান হচ্ছে।'