ম্যালেরিয়ায় আফ্রিকায় মৃতের সংখ্যা ৪ লাখ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
আফ্রিকার মা ও শিশুকে ম্যালেরিয়ার চিকিৎসা প্রদান, ছবি: আল জাজিরা

আফ্রিকার মা ও শিশুকে ম্যালেরিয়ার চিকিৎসা প্রদান, ছবি: আল জাজিরা

  • Font increase
  • Font Decrease

ম্যালেরিয়ার ফলে ২০১৮ সালে আফ্রিকায় ৪ লাখ পাঁচ হাজার মানুষ মারা গেছে বলে জানিয়েছেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। বুধবার (৪ ডিসেম্বর) সংস্থাটি একটি রিপোর্টে থেকে এ তথ্য জানা যায়।

সংস্থাটি জানায়, মশাবাহিত রোগের বিরুদ্ধে লড়াই স্থবির হয়ে গেছে। যার ফলে প্রতিবছর শুধু আফ্রিকায় চার লাখের অধিক মানুষ মারা যাচ্ছে। যার মধ্যে শিশু ও নারীদের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি বলে জানায় সংস্থাটি।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা সতর্ক করে জানায়, বিশ্বব্যাপী ম্যালেরিয়ার বিরুদ্ধে লড়াইয়ের জন্য যে অর্থায়ন করা হত তা থেমে গেছে। যার ফলে প্রতি দুই মিনিটে একজন করে মারা যাচ্ছে। এছাড়া এ সমস্যার ফলে পুরো বিশ্বের অর্ধেক লোক ম্যালেরিয়ায় আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকিতে রয়েছে।

সংস্থাটি মশাবাহিত রোগে আক্রান্ত দেশগুলোর সরকার ও দাতা দেশগুলোকে অর্থায়ন বাড়ানোর জন্য আহ্বান জানায়।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ম্যালেরিয়া বিশেষজ্ঞ পেড্রো আলোনসো সাংবাদিকদের বলেন, বিশ্ব দেখিয়েছে যে অগ্রগতি হতে পারে। ম্যালেরিয়ার রোগী কমার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, '২০১০ সালে বিশ্বব্যাপী ম্যালেরিয়া রোগী ছিল ২৩৯ মিলিয়ন ও মৃতের সংখ্যা ছিল ৬ লাখ সাত হাজার। আর ২০১৫ সালে পর্যন্ত তা কমে মৃতের সংখ্যা ৫ লাখে দাঁড়িয়েছে। তবে এ অগ্রগতির হার আশঙ্কাজনক ভাবে কমে গিয়েছে।'

কীভাবে ম্যালেরিয়া শরীরে আক্রমণ করে তার প্রতীকী ছবি, ছবি: আল জাজিরা

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তথ্য মতে, ২০১৮ সালে ম্যালেরিয়া আক্রান্ত ছিল ২২৮ মিলিয়ন ও মৃত্যুর পরিমাণ ছিল ৪ লাখ পাঁচ হাজার। আর ২০১৭ সালে ছিল আক্রান্তের পরিমাণ ছিল ২৩১ মিলিয়ন ও মৃতের সংখ্যা ছিল ৪ লাখ ১৬ হাজার। এদিকে ২০১৮ সালে শুধু আফ্রিকায় ম্যালেরিয়ার ফলে মারা যায় ৩ লাখ ৮০ হাজার মানুষ যার ২৫ শতাংশ শুধুমাত্র নাইজেরিয়ায়।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা রিপোর্টে দেখা যায়, আফ্রিকার গর্ভবতী ও শিশুদের মধ্যে ম্যালেরিয়া মহামারী আকারে দেখা যাচ্ছে। শুধুমাত্র ২০১৮ সালে আফ্রিকার এক কোটি দশ লাখ গর্ভবতী মহিলা ম্যালেরিয়ায় আক্রান্ত হয়েছে। যার ফলে ৯ লাখ শিশু কম ওজন নিয়ে জন্মগ্রহণ করেছে এবং তারা মারাত্মক স্বাস্থ্য ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন :