অভিশংসন ইস্যুতে ট্রাম্পের পক্ষে আইনজীবী নিয়োগ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
অভিশংসন ইস্যুতে ট্রাম্পের পক্ষের আইনজীবীরা, ছবি: সিএনএন

অভিশংসন ইস্যুতে ট্রাম্পের পক্ষের আইনজীবীরা, ছবি: সিএনএন

  • Font increase
  • Font Decrease

মার্কিন সিনেটে (উচ্চকক্ষ) প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের অভিশংসন তদন্তে তার পক্ষ লড়বেন আইনজীবী কেন স্টার। যিনি সাবেক প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটনের অভিশংসন তদন্তেও লড়েছেন।

এছাড়া ট্রাম্পের আইনজীবীদের মধ্যে আরও রয়েছেন রবার্ট রে, অ্যালান ডারশোভিটস ও ওজি সিম্পসন। হোয়াইট হাউসের আইনজীবী প্যাট সিপলোন ও ট্রাম্পের ব্যক্তিগত আইনজীবী জে সেকুলো নেতৃত্ব দেবেন দলটির।

এছাড়া ট্রাম্পের আইনজীবী দলে ফ্লোরিডার সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল পাম বন্ডিকেও যোগ দিতে বলা হয়েছে।

আইনজীবী কেন স্টার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে বিচার বিভাগের স্বাধীন পরামর্শদাতা হিসেবে কাজ করেছেন। তিনি ১৯৮০ সালে সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটন ও হিলারি ক্লিনটনের হোয়াইট ওয়াটার কেলেঙ্কারির তদন্ত করেন। ওই তদন্তে বিল ক্লিনটনের সঙ্গে হোয়াইট হাউসে কর্মরত মনিকা লিওনস্কির সঙ্গে সম্পর্কের বিষয়টি উঠে আসে। যার ফলে ১৯৯৮ সালে মার্কিন প্রতিনিধি পরিষদে (নিম্নকক্ষে) অভিশংসিত হন বিল ক্লিনটন। কিন্তু সিনেটে খালাস পেয়ে যান তিনি।

ট্রাম্পের মতই বিতর্কিত তার আইনজীবী কেন স্টার। ২০১৬ সালে ধর্ষণ কেলেঙ্কারির ফলে তাকে বেইলর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিষ্কার করা হয়।

এদিকে ট্রাম্পের আইনজীবী নিশ্চিত হওয়ার পর শুক্রবার (১৭ জানুয়ারি) মনিকা লিওনস্কি এক টুইট পোষ্টে বলেন, একজন ধর্ষক কীভাবে অভিশংসন তদন্তে প্রেসিডেন্টের পক্ষ হয়ে লড়ে। এটা কীভাবে সম্ভব, আপনি কি মজা করছেন?

ট্রাম্পের আইনজীবীর তালিকায় থাকা অ্যালান ডারশোভিটস হাভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের অবসরপ্রাপ্ত আইন অধ্যাপক এবং সাংবিধানিক আইন বিশেষজ্ঞ। যিনি কিনা মাইক টাইসনের মত খ্যাতিমানের মামলা লড়েছেন।

ডারশোভিটস আমেরিকান সংবাদ মাধ্যম সিবিএসকে এক সাক্ষাতকারে জানান, আমি অভিশংসন তদন্ত নিয়ে বুধবার প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের সঙ্গে কথা বলেছি। আমি স্বাধীন সংবিধান বিশেষজ্ঞ হিসেবে এটা করতে রাজি হয়েছি। রাজনীতি নিয়ে আমার কোনও অবস্থান নেই, কেবলমাত্র সংবিধান নিয়ে আছে।

তিনি আরও বলেন, আমি অভিশংসন নিয়ে উদ্বিগ্ন রয়েছি। যদি প্রেসিডেন্ট অভিশংসিত হয়ে যান তাহলে পদটি দুর্বল হয়ে যাবে।

এক বিবৃতিতে ডারশোভিটস বলেন, আমি বিল ক্লিনটনের অভিশংসনেরও বিরোধিতা করেছি। আর ২০১৬ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে হিলারি ক্লিনটনকে ভোট দিয়েছি।

এর আগেও প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ডারশোভিটসের শরণাপন্ন হয়েছেন। ২০১৭ থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রাশিয়ার হস্তক্ষেপের অভিযোগ তদন্তের সময় তিনি বিশেষ পরামর্শক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

প্রসঙ্গত, ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির সঙ্গে ফোনালাপকে কেন্দ্র করে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের অভিশংসন তদন্ত করা হচ্ছে। ডেমোক্র্যাটদের দাবি ট্রাম্প তার রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে হাসিল করার জন্য প্রেসিডেন্ট পদের ক্ষমতার অপব্যবহার করেছে। ওই ফোনালাপে শোনা যায়, সাবেক মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ও তার ছেলে হান্টার বাইডেনের বিরুদ্ধে তদন্তের জন্য ইউক্রেনের প্রেসিডেন্টকে রীতিমতো চাপ প্রয়োগ করেন ট্রাম্প। ফোনালাপ ফাঁসের পর থেকে যুক্তরাষ্ট্রের রাজনৈতিক অঙ্গনে ঝড় উঠে। পরে মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থার একজন কর্মকর্তা ট্রাম্পের বিরুদ্ধে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ করেন। এরপর ট্রাম্পের অভিশংসনের দাবি সামনে আসে।

গত বছরের ১৮ ডিসেম্বর মার্কিন ইতিহাসের তৃতীয় প্রেসিডেন্ট হিসেবে প্রতিনিধি পরিষদে অভিশংসিত হন ট্রাম্প। এরপর এটি সিনেটে উঠানো হয়। তবে ট্রাম্পের ধারণা রিপাবলিকান নেতৃত্বাধীন সিনেটে অভিশংসিত হবেন না তিনি।

আপনার মতামত লিখুন :