ইজতেমার ময়দানে ‘বিশেষ পরামর্শ জোড়’



ইসলাম ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
বিশ্ব ইজতেমার ময়দান, ছবি: সংগৃহীত

বিশ্ব ইজতেমার ময়দান, ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

বিশ্ব ইজতেমার ময়দানে শুক্রবার (১৮ ডিসেম্বর) শুরু হচ্ছে শুরায়ি নেজামের অনুসারীদের বিশেষ মাশওয়ারা (পরামর্শ) জোড়। মাশওয়ারার জোড়ে অংশ নিতে বুধবার থেকেই মুসল্লিরা ময়দানে প্রবেশ করতে শুরু করেছেন। বৃহস্পতিবার ময়দানে উপস্থিত মুসল্লিরা শবগুজারির পাশাপাশি মুরব্বিদের বয়ান শোনে, নফল ইবাদত-বন্দেগি ও কোরআন তেলাওয়াতের মধ্য দিয়ে কাটিয়েছেন।

শনিবার (১৯ ডিসেম্বর) বিশেষ মোনাজাতের মধ্য দিয়ে মাশওয়ারার জোড় শেষ হবে। প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্যবিধি মেনে ইজতেমার ময়দানের উত্তর পার্শ্বে অবস্থিত টিনসেডে জোড়ে আগত মুসল্লিরা অবস্থান করছেন।

আগামী বছরের বিশ্ব ইজতেমা বড় আয়োজনে নাকি সীমিত পরিসরে হবে তা নিয়ে এখনও অনিশ্চয়তা রয়েছে। জোড়ে আগত তিন চিল্লার সাথীরা নিজ নিজ এলাকার কাজের চাহিদা, কাজের হিসাব ও পরিস্থিতি পেশ করবেন। পরে সম্মিলিতভাবে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

প্রত্যেক জেলায় আলাদা আলাদাভাবে জোড় ইজতেমা অনুষ্ঠিত হয়েছে। কিন্তু ইজতেমার ময়দানের জোড়ে শুধুমাত্র চার জেলার তিন চিল্লার সাথীরা অংশ নিচ্ছেন। তন্মধ্যে ঢাকা জেলার দুই হাজার পাঁচশ’, গাজীপুরের সাতশ’, টাঙ্গাইল ও মানিকগঞ্জ জেলার চারশ’ করে সর্বমোট চার হাজার তাবলিগি সাথী অংশ নেবেন।

নিয়ম অনুযায়ী বিশ্ব ইজতেমার আগে তিন চিল্লার সাথীদের নিয়ে পাঁচ দিনব্যাপী জোড় ইজতেমার আয়োজন করা হয়। এর পর শুরু হয় বিশ্ব ইজতেমার ময়দান প্রস্তুতির কাজ। এবার করোনা পরিস্থিতির কারণে জোড়ের পরিবর্তে বিশেষ মাশওয়ারা হচ্ছে শুধুমাত্র তিন চিল্লার সাথীদের নিয়ে। বিশ্ব ইজতেমার বিষয়ে এখনও নতুন কোনো ঘোষণা আসেনি।

চলতি বছরের ১১ জানুয়ারি আলমি শুরার সাথীদের ব্যবস্থাপনায় অনুষ্ঠিত বিশ্ব ইজতেমার আখেরি মোনাজাতের আগে জোড় ইজতেমাসহ ২০২১ সালে দুই পর্বে ইজতেমার তারিখ ঘোষণা করা হয়। ঘোষণামতে দুই পর্বে আলমি শুরার সাথীদের ইজতেমার প্রথম পর্ব ৮-১০ জানুয়ারি এবং দ্বিতীয় পর্ব ১৫-১৭ জানুয়ারি হওয়ার কথা রয়েছে।

মহামারি করোনার কারণে এ বছর জোড় ইজতেমার নির্ধারিত সময় গত ২৭ নভেম্বর থেকে ১ ডিসেম্বর পর্যন্ত হলেও তা অনুষ্ঠিত হয়নি।