মহানবীকে (সা.) নিয়ে বিজেপি নেতার মন্তব্য: সারা দেশে প্রতিবাদ সমাবেশ



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
মহানবীকে (সা.) নিয়ে বিজেপি নেতার মন্তব্য: সারা দেশে প্রতিবাদ সমাবেশ

মহানবীকে (সা.) নিয়ে বিজেপি নেতার মন্তব্য: সারা দেশে প্রতিবাদ সমাবেশ

  • Font increase
  • Font Decrease

ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপির নেতাদের ইসলাম ও মানবতার মুক্তির দূত মহানবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এবং তাঁর পরিবার নিয়ে কটূক্তির প্রতিবাদে রাজধানীসহ সারা দেশে প্রতিবাদ ও বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শুক্রবার (১০ জুন) বাদ জুমা বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের উত্তর গেটে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ-সমাবেশ করে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ।

এ সময় তারা বলেন, সারা বিশ্বের মুসলমানদের চরমভাবে ক্ষুব্ধ করেছে। ভারতের উচিত বাংলাদেশ থেকে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির শিক্ষা গ্রহণ করা। বাংলাদেশ মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশ হলেও এখানে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের লোকেরা বরাবরের মতো নিরাপদ ও সম্প্রীতির মধ্যে বসবাস করে যাচ্ছে।

হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব আল্লামা শায়েখ সাজিদুর রহমান, ইসলামী ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান মাওলানা আবুল হাসানাত আমিনী, ভয়েস অব ল’ ইয়ার্স বাংলাদেশ-এর আহবায়ক সুপ্রিম কোর্ট বার অ্যাসোসিয়েশনের সাবেক সম্পাদক সিনিয়র আইনজীবী অ্যাডভোকেট আলহাজ গিয়াস উদ্দিন, জমিয়তের সভাপতি মাওলানা শায়খ যিয়া উদ্দীন, সহ-সভাপতি মাওলানা ওবায়দুল্লাহ ফারুক, জাতীয় ইমাম পরিষদ বাংলাদেশের সভাপতি মুফতি আব্দুল্লাহ ইয়াহইয়া, ছাত্র জমিয়ত বাংলাদেশের সভাপতি নিজাম উদ্দিন আল আদনান, জাতীয় শিক্ষক ফোরামের কেন্দ্রীয় সভাপতি অধ্যাপক মাহবুবুর রহমান পৃথক বিবৃতি ও সভায় মহানবীকে (সা.) নিয়ে ভারতের বিজেপি নেতার কট‚ক্তির ঘটনায় তীব্র ক্ষোভ ও নিন্দা জানিয়েছেন।

তারা বলেন, হজরত মুহাম্মদ (সা.) ও তার প্রিয়তমা স্ত্রী হজরত আয়েশা (রাযি.) সম্পর্কে অবমাননাকর মন্তব্য করে বিজেপির নেতারা বিশ্বের কোটি কোটি মুসলমানের হৃদয়ে আঘাত দিয়েছে। বর্তমান সরকারের কাছে দাবি জানাচ্ছি, অবিলম্বে সরকারিভাবে এর প্রতিবাদ করুন এবং চলমান জাতীয় সংসদে ভারতের বিরুদ্ধে নিন্দা প্রস্তাব পাস করুন।

নারায়ণগঞ্জ: মহানবী (সা.) কে নিয়ে কটূক্তির প্রতিবাদে নারায়ণগঞ্জ ডিআইটি জামে মসজিদের সামনে থেকে আজ বাদ জুমা বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন নারায়ণগঞ্জ জেলা আমির আলহাজ আতিকুর রহমান নান্নু মুন্সির নেতৃত্বে বিক্ষোভ মিছিল বের করা হবে। 

ফরিদপুর: ভারতে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা:) ও তার স্ত্রী  আয়েশা (রা:) কে নিয়ে ভারতীয় বিজেপির মুখপাত্র নুপুর শর্মা ও তার সহযোগী নবীনকুমার জিন্দাল কর্তৃক অবমাননাকর মন্তব্যের প্রতিবাদে  বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয় ‌।

চট্টগ্রাম: চট্টগ্রামে ভারতে রাসূল (সা.)’র অবমাননার নিন্দা ও প্রতিবাদ স্বরূপ শুক্রবার জুমায় রেসালাতের উপর বয়ানের আহবান জানিয়েছেন হাটহাজারী মাদরাসার পরিচালক আল্লামা মুহাম্মদ ইয়াহইয়া। তিনি ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপির দুই নেতা নূপুর শর্মা ও নাভিন জিন্দাল কর্তৃক ইসলামের শেষ নবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) ও হযরত আয়েশাকে (রা.) অবমাননার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার এক বিবৃতি প্রদান করেন।

নোয়াখালী: নোয়াখালীতে মহানবী (সা.) কে অবমাননামূলক বক্তব্যের প্র্রতিবাদে নোয়াখালীতে প্রতিবাদ সভা করেছে বাংলাদেশ ‘ল’ ইয়াস কাউন্সিল নোয়াখালী শাখা। গতকাল বিকালে নোয়াখালী আইনজীবী সমিতির মিলনায়তে আয়োজিত প্রতিবাদ সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন নোয়াখালী বারে সভাপতি অ্যাডভোকেট আবদুর রহিম।

নীলফামারী: মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) কে নিয়ে ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপির জেষ্ট দুই নেতার অবমাননাকর মন্তব্যের প্রতিবাদে ইমান আকিদা সংরক্ষণ কমিটির আয়োজনে নীলফামারীতে মিছিল ও বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

জুমার নামাজ শেষে জেলার সকল মসজিদ থেকে মিছিল বের করে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে উপস্থিত হয় ধর্মপ্রান মুসল্লিরা। এ সময় ধর্মীয় স্লোগান এবং বিজেপির সাবেক মুখপাত্র নূপুর শর্মা ও জ্যেষ্ঠ  নেতা নবীন কুমার জিন্দালের শাস্তির দাবির স্লোগানে মুখরিত হয় জেলা শহর।

রাজশাহী: ভারতের ক্ষমতাসীন বিজেপির মূখপাত্র নূপুর শর্মা ও মিডিয়া সেল প্রধান নবীন জিন্দাল মহানবী হযরত মুহাম্মদ (স:) এবং হযরত আয়েশা সিদ্দীকা (রা:) কে নিয়ে অশালীন ও অবমাননাকর মন্তব্য করার প্রতিবাদে রাজশাহীতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ হয়েছে। শুক্রবার জুমার নামাজের পর নগরীর সাহেববাজার জিরোপয়েন্টের বড় মসজিদ থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়।

রাজশাহী উলামা মাশায়েখ পরিষদ ও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের ব্যানারে কয়েক হাজার মুসল্লি এতে অংশ নেন। মিছিলটি নগরীর গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে আবার সাহেববাজার জিরোপয়েন্টে গিয়ে শেষ হয়। সেখানে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

রাজবাড়ী: বিশ্বনবী হযরত মুহাম্মাদ (সা:) কে নিয়ে ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজিপি) দুই শীর্ষ নেতা আক্রমণাত্মক এবং অবমাননাকর মন্তব্য করায় ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ আজ শুক্রবার (১০) জুম্মার নামাজের পর সারা দেশে বিক্ষোভ কর্মসূচির ঘোষণা দিয়েছেন। এই বিক্ষোভ কর্মসূচিতে যাতে কোন বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি না হয় এবং আইনশৃঙ্খলার কোন অবনতি না ঘটে সেজন্য সতর্ক অবস্থায় রয়েছেন রাজবাড়ীর জেলা পুলিশ ও প্রশাসন।

পঞ্চগড়: মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) সম্পর্কে ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপির দুই নেতার কটুক্তির প্রতিবাদে পঞ্চগড়ে বিক্ষোভ সমাবেশ ও প্রতিবাদ মিছিল করেছেন সর্বস্থরের মুসল্লিরা। জুম্মার নামাজের পর শহরের বিভিন্ন মসজিদ থেকে মুসল্লিরা শহরের শেরে বাংলা পার্কের চৌড়ঙ্গী মোড়ের সামনে সমবেত হন। পরে বিভিন্ন ধর্মীয় সংগঠণের ব্যানারে বিক্ষোভ মিছিল শুরু করে মুসল্লিরা। মিছিলটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে একই স্থানে এসে গিয়ে সমাবেশ করে। এ সময় ‘বিশ্বনবীর অপমান, সইবে নারে মুসলমান’, ‘ইসলামের শত্রুরা, হুঁশিয়ার সাবধান’, ‘নুপুর শর্মার দুই গালে, জুতা মারো তালে তালে’ ইত্যাদি স্লোগান দেন মুসুল্লি।

দিনাজপুর: ভারতে বিজেপি মুখপাত্র কর্তৃক বিশ্বনবী হযরত মুহাম্মদ (স.) সম্পর্কে কু-রুচিপূর্ণ মন্তব্যের প্রতিবাদে দিনাজপুরে বাদ জুম’আ বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিল করেছে,জেলা ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ। জুমা’র নামজ শেষে শহরের ইন্সটিটিউট ও লোকভবন এলাকায় মসজিদের ইমামের নেতৃত্বে সর্বস্তরের ধর্মপ্রাণ মুসুল্লিরা দলে দলে বিক্ষোভ মিছিল বের করে। 

ময়মনসিংহ: মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা:) কে নিয়ে কটুক্তির প্রতিবাদে ময়মনসিংহ সদরে গফরগাঁও, ভালুকা, ঈশ্বরগঞ্জসহ জেলার সকল উপজেলায় জুমআর নামাজের শেষে  বিশাল সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল করেছেন ধর্মপ্রাণ মুসল্লিগণ।  দুপুর ২টা ৩০ মিনিটে বড় মসজিদ প্রাঙ্গণে সর্বস্তরের তৌহিদী জনতার ব্যানারে এ প্রতিবাদ সামবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। ‘‘বিশ্ব নবীর অপমান-সইবে না আর মুসলমান’’ এ প্রতিপাদ্যে প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

সৌদি আরবে আরও এক বাংলাদেশি হজযাত্রীর মৃত্যু



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

সৌদি আরবে হজ করতে যাওয়া আরও এক বাংলাদেশি ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। এ নিয়ে এবারের হজ মৌসুমে সৌদি আরবে ১২ জন বাংলাদেশির মৃত্যু হলো।

ধর্ম মন্ত্রণালয়ের হজ ব্যবস্থাপনা–সংক্রান্ত পোর্টাল সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

সবশেষ মৃত্যু হওয়া বাংলাদেশি হজযাত্রী হলেন— খয়বর হোসেন (৫৫)। রংপুরের বাসিন্দা খয়বর হোসেন মক্কার আল-মুকাররমায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। তার পাসপোর্ট নম্বর- EF0156162।

এদিকে চলতি বছর এখন পর্যন্ত ৫৬ হাজার ৯৫২ জন হজযাত্রী সৌদি আরব পৌঁছেছেন। এর মধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় ৩ হাজার ৮৯০ জন ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ৫৩ হাজার ৬২ জন।

মোট ১৫৭টি ফ্লাইটে সৌদি গেছেন হজযাত্রীরা। এর মধ্যে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স পরিচালিত ৮৬টি, সৌদি এয়ারলাইন্স পরিচালিত ৬০টি এবং ফ্লাইনাস এয়ারলাইন্স পরিচালিত ফ্লাইট সংখ্যা ১১টি। গত ৫ জুন হজ ফ্লাইট শুরু হয়েছিল।

;

আরও এক বাংলাদেশি হজযাত্রীর মৃত্যু



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
আরও এক বাংলাদেশি হজযাত্রীর মৃত্যু

আরও এক বাংলাদেশি হজযাত্রীর মৃত্যু

  • Font increase
  • Font Decrease

সৌদি আরবে গতকাল শুক্রবার (১ ‍জুলাই) এক বাংলাদেশি হজযাত্রী মারা গেছেন।

ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে বলা হয়, গতকাল তপন খন্দকার নামে এক ব্যক্তি মৃত্যুবরণ করেছেন।

তিনি ঢাকার লালবাগের বাসিন্দা। তার পাসপোর্ট নম্বর হচ্ছে EE0540246। আর পিআইডি নম্বর 1459017।

এর আগে শুক্রবার তিন বাংলাদেশি হজযাত্রী মারা গেছেন বলে জানায় ধর্ম মন্ত্রণালয়।

তারা হলেন-রফিকুল ইসলাম (৪৭), ফাতেমা বেগম (৬০) ও আব্দুল গফুর মিয়া (৬২)। তাদের মধ্যে গফুর গত ২৮ জুন এবং রফিকুল ও ফাতেমা গতকাল বৃহস্পতিবার (৩০ জুন) মারা যান।

এ পর্যন্ত ১০ বাংলাদেশি হজযাত্রী সৌদি আরবে মৃত্যুবরণ করেছেন।

;

সৌদিতে আরও ৩ বাংলাদেশি হজযাত্রীর মৃত্যু



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
সৌদিতে আরও ৩ বাংলাদেশি হজযাত্রীর মৃত্যু

সৌদিতে আরও ৩ বাংলাদেশি হজযাত্রীর মৃত্যু

  • Font increase
  • Font Decrease

সৌদি আরবে হজ করতে গিয়ে আরও তিন বাংলাদেশি মারা গেছেন। ধর্ম মন্ত্রণালয়ের হজ ব্যবস্থাপনা-সংক্রান্ত ওয়েবসাইটে বিষয়টি জানানো হয়েছে।

তারা হলেন-রফিকুল ইসলাম (৪৭), ফাতেমা বেগম (৬০) ও আব্দুল গফুর মিয়া (৬২)। তাদের মধ্যে গফুর গত ২৮ জুন এবং রফিকুল ও ফাতেমা গতকাল বৃহস্পতিবার মারা যান।

ধর্ম মন্ত্রণালয়ের হজ ব্যবস্থাপনা-সংক্রান্ত পোর্টালে এ তথ্য জানানো হয়েছে। তাদের মধ্যে রফিকুল ও ফাতেমা গতকাল এবং গফুর গত ২৮ জুন মারা যান।

পোর্টালের তথ্য অনুযায়ী, সিরাজগঞ্জ জেলার কামারখান্দার বাসিন্দা রফিকুল ইসলামের হজ আইডি নম্বর ০৫৭৬০৯৯ ও পাসপোর্ট নম্বর বিটি০৪৮৫৪৩৩, রাজধানীর বাড্ডার সাতারকুলের বাসিন্দা ফাতেমা বেগমের হজ আইডি নম্বর ০৭৭৩০৫১ ও পাসপোর্ট নম্বর ইই০৩৮২৮৪৩ এবং টাঙ্গাইলের সখিপুরের বাসিন্দা আব্দুল গফুর মিয়ার হজ আইডি নম্বর ০৭৭৩০৮০ ও পাসপোর্ট নম্বর বিওয়াই০০৬২২০২।

এ নিয়ে চলতি হজ মৌসুমে সৌদি আরবে ৯ জন বাংলাদেশি হজযাত্রী মারা গেছেন। তাদের মধ্যে ৬ জন পুরুষ ও ৩ জন নারী।

হজ ব্যবস্থাপনা-সংক্রান্ত পোর্টালের তথ্য অনুযায়ী, গতকাল পর্যন্ত ৪৮ হাজার ১৭১ জন বাংলাদেশি হজযাত্রী সৌদি আরবে পৌঁছেছেন। তাদের মধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় ৩ হাজার ৩৮৫ হাজার এবং বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ৪৪ হাজার ৭৮৬ জন গিয়েছেন। চলতি বছর প্রায় ৬০ হাজার বাংলাদেশি হজে যাবেন।

এখন পর্যন্ত ১৩৩টি ফ্লাইট বাংলাদেশ থেকে সৌদি আরবে গিয়েছে। এর মধ্যে ৭৫টি ফ্লাইট বিমান বাংলাদেশের, ৫০টি সৌদি এয়ার লাইনসের ও ৮টি ফ্লাইনাসের।

;

চাঁদ দেখা গেছে, ১০ জুলাই ঈদুল আজহা



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
চাঁদ দেখা গেছে, ১০ জুলাই ঈদুল আজহা

চাঁদ দেখা গেছে, ১০ জুলাই ঈদুল আজহা

  • Font increase
  • Font Decrease

হিজরি ১৪৪৩ সনের জিলহজ মাসের চাঁদ দেখা গেছে। ১০ জুলাই রোববার দেশে পবিত্র ঈদুল আজহা উদযাপিত হবে। বায়তুল মোকাররমে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সভাকক্ষে বৃহস্পতিবার জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

জিলহজ মাসের ১০ তারিখ ইসলাম ধর্মাবলম্বীরা ঈদুল আজহা উদযাপন করেন। সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে ৯ জুলাই ঈদুল আজহা উদযাপিত হবে। হজ অনুষ্ঠিত হবে ৮ জুলাই।

ঈদুল আজহা অনুষ্ঠিত হওয়ার সময়ই লাখ লাখ মুসলমান সৌদি আরবের পবিত্র ভূমিতে হজব্রত পালনরত অবস্থায় থাকেন। হাজিরা ঈদের দিন সকালে কোরবানি দেন।

মুসলমানরা হিজরি বর্ষের দ্বাদশ মাস জিলহজের ১০ তারিখে ঈদুল আজহা বা কোরবানির ঈদ উদযাপন করেন। আল্লাহতায়ালার আদেশে হজরত ইবরাহিম (আ.) নিজ পুত্র হজরত ইসমাইলকে (আ.) আল্লাহর জন্য কোরবানি করার ইচ্ছা ও ত্যাগের কারণে সারা বিশ্বের মুসলমানেরা আল্লাহর কাছে নিজেদের সোপর্দ করে দেওয়ার লক্ষ্যে পবিত্র হজের পরদিন ঈদুল আজহা উদযাপন ও পশু কোরবানি করে থাকেন। আল্লাহতায়ালা নবী হজরত ইবরাহিম (আ.)-এর আনুগত্যে সন্তুষ্ট হন এবং ছেলের পরিবর্তে তাকে পশু কোরবানি করার নির্দেশ দেন। হজরত ইবরাহিম (আ.)-এর সুন্নত অনুসরণে ঈদুল আজহার সময় মুসলমানরা পশু কোরবানি করেন।

জিলহজ মাসের ১০ থেকে ১২ তারিখের মধ্যে মহান আল্লাহর সন্তুষ্টি লাভের উদ্দেশ্যে শরয়ি তরিকায় নির্দিষ্ট সময়ে নির্দিষ্ট ব্যক্তির পশু জবাই করাকে কোরবানি বলা হয়। সকালে রক্তিম সূর্য ওপরে ওঠার সময়ে ‘কোরবানি’ করা হয় বলে ওই দিনটিকে ‘ইয়াওমুল আজহা’ বলা হয়ে থাকে।

;