সাহরি ও ইফতারের সময়সূচি



ইসলাম ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
সাহরি ও ইফতারের সময়সূচি, ছবি: সংগৃহীত

সাহরি ও ইফতারের সময়সূচি, ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ইসলামি বর্ষপঞ্জিকার নবম মাস- পবিত্র রমজান। এটি সংযমের মাস। এই মাসে বিশ্বব্যাপী মুসলমারা রোজা পালন করে থাকেন। রোজা ইসলামের পাঁচ স্তম্ভের তৃতীয়। রোজা সহিহ-শুদ্ধ হওয়ার জন্য সময়মতো ইফতার ও সাহরি করা জরুরি।

বিশ্বের অন্যান্য দেশের সঙ্গে বাংলাদেশের সাহরি ও ইফতারের সময়সূচিতে যেমন পার্থক্য রয়েছে, তেমনি বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলায় রয়েছে সাহরি ও ইফতারের সময়সূচিতে পার্থক্য।

ঢাকার সময়কে ভিত্তি ধরে বার্তা২৪.কম-এর পাঠকের জন্য ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সাহরি-ইফতারের সময়সূচি দেওয়া হলো-

তারিখ ও বার, সাহরির শেষ সময়, ইফতারের সময়
১ রমজান ২৫ এপ্রিল শনিবার, ৪-০৫ মি. ৬-২৮ মি.
২ রমজান ২৬ এপ্রিল রোববার ৪-০৪ মি. ৬-২৯ মি.
৩ রমজান ২৭ এপ্রিল সোমবার ৪-০৩ মি. ৬-২৯ মি.
৪ রমজান ২৮ এপ্রিল মঙ্গলবার ৪-০২ মি. ৬-২৯ মি.
৫ রমজান ২৯ এপ্রিল বুধবার ৪-০১ মি. ৬-৩০ মি.
৬ রমজান ৩০ এপ্রিল বৃহস্পতিবার ৪-০০ মি. ৬-৩০ মি.
৭ রমজান ১ মে শুক্রবার ৩-৫৯ মি. ৬-৩১ মি.
৮ রমজান ২ মে শনিবার ৩-৫৮ মি. ৬-৩১ মি.
৯ রমজান ৩ মে রোববার ৩-৫৭ মি. ৬-৩২ মি.
১০ রমজান ৪ মে সোমবার ৩-৫৫ মি. ৬-৩২ মি.
১১ রমজান ৫ মে মঙ্গলবার ৩-৫৪ মি. ৬-৩৩ মি.
১২ রমজান ৬ মে বুধবার ৩-৫৩ মি. ৬-৩৩ মি.
১৩ রমজান ৭ মে বৃহস্পতিবার ৩-৫২ মি. ৬-৩৪ মি.
১৪ রমজান ৮ মে শুক্রবার ৩-৫১ মি. ৬-৩৪ মি.
১৫ রমজান ৯ মে শনিবার ৩-৫০ মি. ৬-৩৫ মি.
১৬ রমজান ১০ মে রোববার ৩-৫০ মি. ৬-৩৫ মি.
১৭ রমজান ১১ মে সোমবার ৩-৪৯ মি. ৬-৩৬ মি.
১৮ রমজান ১২ মে মঙ্গলবার ৩-৪৯ মি. ৬-৩৬ মি.
১৯ রমজান ১৩ মে বুধবার ৩-৪৮ মি. ৬-৩৬ মি.
২০ রমজান ১৪ মে বৃহস্পতিবার ৩-৪৮ মি. ৬-৩৭ মি.
২১ রমজান ১৫ মে শুক্রবার ৩-৪৭ মি. ৬-৩৭ মি.
২২ রমজান ১৬ মে শনিবার ৩-৪৭ মি. ৬-৩৮ মি.
২৩ রমজান ১৭ মে রোববার ৩-৪৬ মি. ৬-৩৮ মি.
২৪ রমজান ১৮ মে সোমবার ৩-৪৬ মি. ৬-৩৯ মি.
২৫ রমজান ১৯ মে মঙ্গলবার ৩-৪৫ মি. ৬-৩৯ মি.
২৬ রমজান ২০ মে বুধবার ৩-৪৪ মি. ৬-৪০ মি.
২৭ রমজান ২১ মে বৃহস্পতিবার ৩-৪৪ মি. ৬-৪০ মি.
২৮ রমজান ২২ মে শুক্রবার ৩-৪৩ মি. ৬-৪১ মি.
২৯ রমজান ২৩ মে শনিবার ৩-৪৩ মি. ৬-৪২ মি.
৩০ রমজান ২৪ মে রোববার ৩-৪২ মি. ৬-৪২ মি.

উল্লেখ্য, সাহরির শেষ সময় সতর্কতামূলকভাবে সুবহে সাদেকের ৩ মিনিট পূর্বে ধরা হয়েছে। অতএব, সাহরির সতর্কতামূলক শেষ সময়ের ৬ মিনিট পর ফজরের আজান দিতে হবে। সূর্যাস্তের পর সতর্কতামূলকভাবে ৩ মিনিট বাড়িয়ে ইফতারের সময় নির্ধারণ করা হয়েছে।

উক্ত সময়সূচি ঢাকায জেলার জন্য। তবে দূরত্ব অনুযায়ী ঢাকার সময়ের সঙ্গে যোগ-বিয়োগ করে অন্য জেলার মানুষ সাহরি ও ইফতার করবেন।

ঢাকার সময়ের সঙ্গে নারায়ণগঞ্জ, মুন্সিগঞ্জ, টাঙ্গাইল ও চাঁদপুরের সাহরির সময় এক।

ঢাকার সময়ের সঙ্গে গাজীপুর, নেত্রকোনা, পিরোজপুর ও মাদারীপুরের ইফতারের সময় এক।

ঢাকার সময়ের সঙ্গে সাহরিতে বাড়াতে হবে
মানিকগঞ্জ, বগুড়া, সিরাজগঞ্জ, পঞ্চগড় ও নীলফামারী ১ মি.
ভোলা, শরীয়তপুর, দিনাজপুর, ঠাকুরগাঁও, জয়পুরহাট, ফরিদপুর, মাদারীপুর ও বরিশাল ২ মি.
নওগা ও ঝালকাঠি ৩ মি.
নাটোর, পাবনা, রাজবাড়ী, মাগুরা, পটুয়াখালি ও গোপালগঞ্জ ৪ মি.
কুষ্টিয়া, রাজশাহী, পিরোজপুর, বরগুনা, নড়াইল, বাগেরহাট ও ঝিনাইদহ ৫ মি.
চাপাইনবাবগঞ্জ, যশোর, চুয়াডাঙ্গা ও খুলনা ৬ মি.
মেহেরপুর ৭ মি.
সাতক্ষীরা ৮ মি.

ঢাকার সময়ের সঙ্গে ইফতারে বাড়াতে হবে
গোপালগঞ্জ, বাগেরহাট ও ময়মনসিংহ ১ মি.
মানিকগঞ্জ, টাঙ্গাইল, ফরিদপুর, নড়াইল ও খুলনা ২ মি.
শেরপুর ও মাগুরা ৩ মি.
সিরাজগঞ্জ, জামালপুর, রাজবাড়ী, যশোর ও সাতক্ষীরা ৪ মি.
কুষ্টিয়া, পাবনা ও ঝিনাইদহ ৫ মি.
চুয়াডাঙ্গা, গাইবান্ধা ও বগুড়া ৬ মি.
নাটোর, মেহেরপুর, কুড়িগ্রাম ও লালমনিরহাট ৭ মি.
রাজশাহী, নওগা, রংপুর ও জয়পুরহাট ৮ মি.
নীলফামারী, দিনাজপুর ও চাপাইনবাবগঞ্জ ১০ মি.
পঞ্চগড় ও ঠাকুরগাঁও ১২ মি.

ঢাকার সময়ের সঙ্গে সাহরিতে কমাতে হবে
গাজীপুর, লক্ষীপুর, রংপুর, নোয়াখালী, গাইবান্ধা ও কক্সবাজার ১ মি.
শেরপুর, জামালপুর, কুড়িগ্রাম, লালমনিরহাট, চট্টগ্রাম ও নরসিংদী ২ মি.
কুমিল্লা, ময়মনসিংহ, কিশোরগঞ্জ ও ফেনী ৩ মি.
বি.বাড়িয়া, রাঙ্গামাটি ও বান্দরবন ৪ মি.
নেত্রকোনা ও খাগড়াছড়ি ৫ মি.
হবিগঞ্জ ৬ মি.
সুনামগঞ্জ ৭ মি.
মৌলভীবাজার ৮ মি.
সিলেট ৯ মি.

ঢাকার সময়ের সঙ্গে ইফতারে কমাতে হবে
শরীয়তপুর, কিশোরগঞ্জ, নরসিংদী, নারায়ণগঞ্জ, মুন্সিগঞ্জ ও ঝালকাঠি ১ মি.
বরিশাল, পটুয়াখালী, বরগুনা, সুনামগঞ্জ ও চাঁদপুর ২ মি.
বি. বাড়িয়া, লক্ষীপুর, ভোলা ও হবিগঞ্জ ৩ মি.
কুমিল্লা, নোয়াখালী, সিলেট ও মৌলভীবাজার ৪ মি.
ফেনী ৫ মি.
খাগড়াছড়ি ও চট্টগ্রাম ৮ মি.
রাঙ্গামাটি ৯ মি.
বান্দরবন ও কক্সবাজার ১০ মি.