বিশ্বরেকর্ড গড়া কয়েকটি ইফতার আয়োজন



ইসলাম ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
২০১৮ সালের রমজানে দুবাই পুলিশের ইফতার আয়োজন, ছবি: সংগৃহীত

২০১৮ সালের রমজানে দুবাই পুলিশের ইফতার আয়োজন, ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

পবিত্র রমজান মাসে সূর্যাস্তের পর যেসব খাদ্য বা পানীয় গ্রহণ করে রোজা ভঙ্গ করা হয়, সেটাই ইফতার। সাদাসিধে ইফতার গ্রহণ নবী করিম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের সুন্নত। তিনি সাধারণ ইফতার পছন্দ করতেন। সাহাবি হজরত আবদুল্লাহ বিন আবি আউফ (রা.) থেকে বর্ণিত, ‘রোজায় আমরা রাসূল (সা.)-এর সফরসঙ্গী ছিলাম। সূর্যাস্তের সময় তিনি একজনকে ডেকে বলেন, ছাতু ও পানি মিশিয়ে ইফতার পরিবেশন করো।’ –সহিহ মুসলিম: ১০৯৯

বিশ্বজুড়ে সৃষ্ট করোনা মহামারির কারণে এবার ইফতার আয়োজনের অসংযমী চিত্র দেখা যাচ্ছে না। কিন্তু অন্য সময় দেখা যায়, বিত্তশালীরা সাহরি ও ইফতারে যেন খাবারের মহড়া দেয়। অথচ রমজান ভোজনবিলাসিতার মাস নয়। রমজান হলো- ইবাদত-বন্দেগি, আত্মশুদ্ধি ও সংযমের মাস। গরিব-দুঃখীদের সহযোগিতার মাস।

অনেকে দেশে তো ইফতার আয়োজন করা হয়েছে বিশ্বরেকর্ড গড়ার জন্য। রোজাদারকে ইফতার করানো সওয়াবের কাজ। কিন্তু আমাদের সমাজে এটা একটা প্রথায় পরিণত হয়েছে। বিগত বছরগুলোতে আমরা দেখেছি, রাজনৈতিক কর্মসূচি, ব্যবসায়িক সভা, কিংবা শুধুমাত্র প্রচারের জন্য ইফতার পার্টির আয়োজন করা হয়েছে।

এবার দেখে নেওয়া যাক ইফতার নিয়ে কয়েকটি বিশ্বরেকর্ড।

দুবাই
বিশ্বের সর্ববৃহৎ ইফতার আয়োজনের জন্য গিনেজ বুকে সর্বশেষ নাম লেখায় সংযুক্ত আরব আমিরাতের গুরুত্বপূর্ণ শহর দুবাই। ২০১৮ সালে রমজানে দুবাই পুলিশের আড়াইশ কর্মকর্তার অর্থায়নে স্থানীয় কয়েকটি রেস্টুরেন্টের সহযোগিতায় ১৮ হাজার শ্রমিকের ইফতারের আয়োজন করে। প্রায় ছয় কিলোমিটার দীর্ঘ সারিতে ইফতার করানো হয়। মূলত বিশ্বের সবচেয়ে দীর্ঘ ইফতারের টেবিল হিসেবে এই রেকর্ডকে স্বীকৃতি দেয় গিনেজ কর্তৃপক্ষ।

লেবানন
এর আগের বছর ২০১৭ সালের রমজানের প্রথম শুক্রবার লেবাননের রাজধানী বৈরুতের ওয়াটারফ্রন্টে পাঁচ হাজার মানুষের সমাগমে দীর্ঘ সারিবদ্ধ ইফতারের রেকর্ড করে আজিয়াউন নামের একটি সংস্থা। আজিয়াউনের চেয়ারপারসন লিনা জাইম আল দাদা সংবাদমাধ্যমকে সে সময় বলেন, ইফতারটি বিশ্বরেকর্ড ভেঙে দেওয়ার উদ্দেশ্যে নয়, বরং ইসলামের প্রকৃত চিত্রকে চিত্রিত করার উদ্দেশ্যে এই আয়োজন।

ওমান
২০১৭ সালে একইভাবে আরেকটি বিশ্বরেকর্ড করে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ ওমান। ফ্রান্স কুইসিনের আয়োজনে আল সিব সমুদ্রসৈকতে এই আয়োজনে ২ হাজার ২০০ মিটার লম্বা কার্পেটিং করে মুসল্লিদের ইফতার করানো হয়। ফ্রান্স কুইসিন একটি ওমানি করপোরেশন, যা ক্যাটারিং সার্ভিসের সঙ্গে সম্পর্কিত।

মিসর
মিসরের আলেকজান্দ্রিয়া শহরে ২০১৫ সালে রাস্তার পাশে পৃথিবীর দীর্ঘ সারিবদ্ধ ইফতার আয়োজন করে। মাওদাদ আল রাহমানির আয়োজনে এই ইফতার আয়োজন মিসরের একটি বড় অর্জন হিসেবে দেখা হয়। এ সংগঠনটি মূলত রোজাদারদের নিয়মিত ইফতার করায়। তবে ঘটা করে এমন আয়োজন তারা সেবারই প্রথম করেছিল।

ইফতার নিয়ে কয়েকটি বিশ্বরেকর্ডের কথা আমরা জানতে পারলাম। কিন্তু করোনার কারণে সৃষ্ট দুর্যোগে আমাদের আশপাশের গরিব মানুষগুলোর খোঁজ কি আমরা একটিবারও নিয়েছি? আমাদের সবার হয়তো শত শত মানুষকে ইফতার করানোর সামর্থ্য নেই, কিন্তু আমাদের নিজেদের ইফতারি তো আমরা কোনো একজন দুস্থ মানুষকে নিয়ে ভাগাভাগি করে করতে পারি! তবেই তো আমাদের ইফতারে পরিপূর্ণ ফজিলত ও সওয়াব অর্জিত হবে।