অভিনেত্রী নওশাবার মামলা স্থগিতই থাকছে

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
কাজী নওশাবা আহমেদ, ছবি: সংগৃহীত

কাজী নওশাবা আহমেদ, ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলনে ফেসবুকে গুজব ছড়ানোর অভিযোগে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনে (আইসিটি) অভিনেত্রী কাজী নওশাবা আহমেদের বিরুদ্ধে করা মামলার কার্যক্রম স্থগিতে হাইকোর্টের দেওয়া আদেশ বহাল রয়েছে।

কারণ মামলার কার্যক্রম চালানোর অনুমিতি চেয়ে রাষ্ট্রপক্ষের করা আবেদনে 'নো অর্ডার' দিয়েছেন আপিল বিভাগ। ফলে মামলাটি স্থগিতই থাকবে বলে জানিয়েছেন তার আইনজীবী।

রোববার (৮ ডিসেম্বর) প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে আপিল বিভাগের চার বিচারপতির বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে কাজী নওশাবা আহমেদের পক্ষে ছিলেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী এ এফ হাসান আরিফ ও ব্যারিস্টার জোতির্ময় বড়ুয়া। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিশ্বজিৎ দেবনাথ।

আইনজীবী জোতির্ময় বড়ুয়া জানান, রাষ্ট্রপক্ষের আবেদনে 'নো অর্ডার' দিয়েছেন আপিল বিভাগ। ফলে হাইকোর্টের আদেশ বহাল থাকছে।

গত ২০ নভেম্বর বিচারপতি মো. রেজাউল হক ও বিচারপতি ভীষ্মদেব চক্রবর্তীর সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের দ্বৈত বেঞ্চ মামলাটির কার্যক্রম ছয় মাসের জন্য স্থগিত করেন। এ স্থগিতাদেশের বিরুদ্ধে আবেদন করে রাষ্ট্রপক্ষ।

চলতি বছরের ১৯ জানুয়ারি নওশাবা এ মামলায় স্থায়ী জামিন পেয়েছিলেন বিচারিক আদালতে।

২০১৮ সালের ৪ আগস্ট নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলন চলাকালে নওশাবা নিজের ফেসবুক আইডি থেকে অত্যন্ত আবেগী কণ্ঠে লাইভ ভিডিও সম্প্রচার করে বলেন, জিগাতলায় আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা করে একজনের চোখ উপড়ে ফেলা হয়েছে এবং চারজনকে মেরে ফেলা হয়েছে। আপনারা যে যেখানে আছেন কিছু একটা করুন।

তার এ ভিডিও মুহূর্তের মধ্যে ভাইরাল হলে ওই দিনই রাজধানীর উত্তরার বাসা থেকে তাকে আটক করে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব)।

এ ঘটনায় ৫ আগস্ট তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনে রাজধানীর উত্তরা পশ্চিম থানায় তার বিরুদ্ধে মামলা করা হয়। এ মামলার কার্যক্রম এখন স্থগিত থাকবে।

আপনার মতামত লিখুন :

এ সম্পর্কিত আরও খবর