এক সপ্তাহেও খোঁজ মেলেনি পলাতক কয়েদির

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

গাজীপুরের কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-২ থেকে পালিয়ে যাওয়া যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত কয়েদিকে এক সপ্তাহেও গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ ও জেল কর্তৃপক্ষ।

এ বিষয়ে গাজীপুর মহানগরীর কোনাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এমদাদুল হোসেন বার্তা২৪.কম-কে বলেন, কয়েদি আবু বকর সিদ্দিককে এখনো গ্রেফতার করা যায়নি। তবে অভিযান অব্যাহত আছে। কোনো প্রকার চেষ্টার ত্রুটি রাখছি না আমরা।

কারা উপ-মহাপরিদর্শক (ডিআইজি) মোহাম্মদ তৌহিদুল ইসলাম বলেন, কয়েদি আবু বকর সিদ্দিক নিখোঁজের ঘটনায় আমরা পুলিশকে বিষয়টি লিখিতভাবে অভিযোগ করেছি। পুলিশের পাশাপাশি কারা কর্তৃপক্ষ তার বাড়ি সাতক্ষীরাসহ আত্মীয়-স্বজনদের বাসায় অভিযান চালাচ্ছে। তবে এখন পর্যন্ত তার কোনো সন্ধান মেলেনি।

এদিকে গাজীপুর মহানগরীর কোনাবাড়ী থানার ওসি এমদাদুল হোসেন কারা কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে বলেন, কারাগার থেকে কয়েদি পালিয়ে যাওয়ায় কারা কর্তৃপক্ষ ১২ জনকে সাময়িক বরখাস্ত ও ৬ জনের বিরুদ্ধে একটি বিভাগীয় মামলা করেছে। তাদের মধ্যে প্রধান কারারক্ষীও আছেন।

পালিয়ে যাওয়া কয়েদি আবু বকর সিদ্দিককে ২০১১ সালে হত্যা মামলার ফাঁসির আসামি হিসেবে এ কারাগারে আনা হয়। এর আগে তিনি ছিলেন রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগারে। ২০১২ সালের ২৭ জুলাই তার সাজা সংশোধন করে তাকে যাবজ্জীবন দেওয়া হয়।

জানা গেছে, আবু বকরের বাবার নাম তেছের আলী গাইন। তারা সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার আবাদ চণ্ডীপুর এলাকার বাসিন্দা।

এর আগেও কয়েদি আবু বকর সিদ্দিক কারাগার থেকে পালানোর চেষ্টা করেছিলেন। তিনি ২০১৫ সালের ১৩ মে সন্ধ্যায় কারাগারের সেল এলাকার একটি সেপটিক ট্যাংকির ভিতরে আত্মগোপন করেছিলেন। দীর্ঘ সময় খোঁজাখুঁজি শেষে পরদিন কারগারের ৪০ নং সেল এলাকার ওই সেপটিক ট্যাংকির ভেতর থেকে তাকে উদ্ধার করা হয়।