রংপুরে রাস্তায় ও খালে মিললো দুই নবজাতকের মরদেহ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, রংপুর
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

রংপুরে পৃথক দুটি স্থান থেকে দুই নবজাতক শিশুর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এদের বয়স এক-দুই দিনের বেশি হবে না বলে ধারণা করা হচ্ছে।

বৃহস্পতিবার (১ অক্টোবর) দুপুরে নগরীর রবার্টসনগঞ্জ মন্ডলপাড়ায় শ্যামা সুন্দরী খাল থেকে এক নবজাতকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। অপরদিকে সকালে কাউনিয়া উপজেলার সারাই মাছহাড়ি এলাকা থেকে আরেক নবজাতকের মরদেহ উদ্ধার হয়।

বার্তা২৪.কমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (অপরাধ) শহিদুল্লাহ্ কাওছার। নবজাতকের লাশ ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ বিষয়ে ইউডি মামলা করা হয়েছে।

জানা গেছে, বৃহস্পতিবার দুপুরে নগরীর মন্ডলপাড়ায় শ্যামা সুন্দরী খালে স্থানীয়রা এক মেয়ে নবজাতকের মরদেহ দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেয়। পরে ঘটনাস্থলে গিয়ে পুলিশ ওই নবজাতকের মরদেহ উদ্ধার করে। অপরদিকে মেট্রোপলিটন হারাগাছ থানার সারাই ইউনিয়ন মাছহাড়ি এলাকার একটি পুকুরের পাশ থেকে ২ থেকে ৩ দিন বয়সী আরেক ছেলে নবজাতকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

এ ব্যাপারে রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের হারাগাছ থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) মোতালেব হোসেন বলেন, স্থানীয় লোকজনের দেয়া খবরে রাস্তার পাশে ব্যাগের মধ্যে পড়ে থাকা এক-দুইদিন বয়সী এক ছেলে নবজাতক শিশুর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। মরদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। রাত থেকে দুপুর পর্যন্ত রাস্তার পাশে পড়ে ছিল অজ্ঞাত শিশুটির মরদেহ।

তিনি আরো বলেন, ধারণা করা হচ্ছে বুধবার রাতের কোনো এক সময় ওই নবজাতকের মরদেহটি ফেলে যায় কেউ। এখন পর্যন্ত তার পরিচয় নিশ্চিত হওয়া যায়নি। পরিচয় শনাক্তে কাজ করছে পুলিশ। এ ঘটনায় স্থানীয় চৌকিদার মাসুম মিয়া বাদী হয়ে অপমৃত্যুর একটি মামলা করেছে।

এদিকে স্থানীয়রা মনে করছেন, অবৈধভাবে গর্ভপাত করে নবজাতকের মরদেহ ফেলা রাখা হয়েছে। তবে পুলিশ বলছে দুটি ঘটনাই গুরুত্ব সহকারে তদন্ত করা হচ্ছে। চেষ্টা করা হচ্ছে নবজাতকদের পরিচয় উদঘাটনেও।