রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে বিশেষ মহল আ.লীগের বিরুদ্ধে অপপ্রচার করছে



সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক এবং প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারি ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া বলেছেন, সোশ্যাল মিডিয়া খুললে দেখা যায়, আমাদের বিরুদ্ধে অনেক ধরনের অপপ্রচার, গুজব, অসত্য, দিনকে রাত, রাতকে দিন করার মতো কথা। রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে একটি বিশেষ মহল এই কাজগুলো করে যাচ্ছে। বাংলাদেশের বাইরে থেকেও করে যাচ্ছে, ভিতর থেকেও করছে।

বৃহস্পতিবার ( ১৫ই অক্টোবর) ৫/১ কনকর্ড আর্কেডিয়া, ৬ষ্ঠ তলায় ধানমন্ডিতে 'আমরা ক'জন মুজিব সেনা'র প্রধান কার্যালয়ের উদ্বোধনি অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক আফজালুর রহমান। প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আমরা ক'জন মুজিব সেনার প্রতিষ্ঠাতা জসিম উদ্দিন আহমেদ, সৈয়দ আবু তোহা প্রমুখ। উদ্বোধনি অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সাইদ আহমেদ বাবু।

বিপ্লব বড়ুয়া সংগঠনটির অতীত ভূমিকার কথা তুলে ধরে ঐতিহ্যবাহী সংগঠনটি সামনের দিনে নবতর যাত্রা শুরু হবে বলে আশাবাদ করেন। তিনি বলেন, আপনারা বলেছেন এটি গবেষণাধর্মী প্রতিষ্ঠান, একটি সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠান। আমাদের প্রচলিত রাজনৈতিক সংগঠনে এই কাজগুলো বেশি করা হয় না। আমরা ইস্যুভিত্তিক এবং কর্মসূচিভিত্তিক কাজ করি। কিন্তু গবেষণা সাহিত্য সংস্কৃতির বিষয়টা একটি নিরবচ্ছিন্ন বিষয়। এটি আমাদেরকে সারাবছর করতে হবে।

বিপ্লব বড়ুয়া বলেন, আজকে আমার বলতে দ্বিধা নেই, একটি রাজনৈতিক প্রতিষ্ঠানে সাহিত্য, গবেষণা সংস্কৃতি চর্চার বিষয়টি খুব সীমিত। আমাদের সামনে সারা বছরে অসংখ্য কর্মসূচি থাকে। সেই কর্মসূচি ভিত্তিককাজ করি। কিন্তু সাহিত্যের মাধ্যমে, সংস্কৃতির মাধ্যমে আদর্শের কথা বলা, বঙ্গবন্ধুর কথা বলা, মুক্তিযুদ্ধের কথা বলা দরকার এবং এই কাজগুলোর স্থায়িত্ব কিন্তু রাজনৈতিক কর্মসূচির চেয়ে অনেক বেশি। যে বিষয়টি সাহিত্যের মাধ্যমে, সংস্কৃতির মাধ্যমে আগ্রহী করতে পারবে, সেটি মানুষের হৃদয়ে বা মনে যতটুকু স্থায়িত্ব থাকে; রাজনৈতিক কর্মসূচিতে বিষয়টি সেইভাবে স্থায়িত্ব হয় না। এটি আমার ব্যক্তিগত মতামত।

তিনি আরো বলেন, এই প্রতিষ্ঠানের ২৪ বছরের ইতিহাস রয়েছে। এখানে অনেক মেধাবী মানুষ আছে। আমি আশা করি, এই প্রতিষ্ঠান তাদের হারানো গৌরব প্রতিষ্ঠা করবে। আমি যদি এই কাজে লাগি, আমার যে রাজনৈতিক পরিচিতি আছে সেখান থেকে কিছু করতে পারলে নিজেকে ধন্য মনে করবো।

বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক আফজালুর রহমান বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার একান্ত আগ্রহে আবারো এই সংগঠনটির নতুন উদ্যমে পথচলা শুরু হলো।