বগুড়ায় সন্ত্রাসী সম্রাট খুনের ঘটনায় এলাকায় স্বস্তি, মিষ্টি বিতরণ



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, বগুড়া
সম্রাট দাস খুনের ঘটনায়  এলাকায় স্বস্তি বিরাজ করছে। ছবি: বার্তা২৪.কম

সম্রাট দাস খুনের ঘটনায় এলাকায় স্বস্তি বিরাজ করছে। ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

বগুড়ায় সন্ত্রাসী সম্রাট দাস খুনের ঘটনায় স্বস্তি ফিরে এসেছে স্থানীয়দের মধ্যে। স্থানীয়রা একে একে অপরের মধ্যে মিষ্টি বিতরণ করে তাদের স্বস্তি প্রকাশ করেছেন।

সোমবার (২৬ অক্টোবর) দুপুরের পর বগুড়া শহরতলীর সাবগ্রাম বন্দরে মিষ্টি বিতরণ করা হয়।

এদিকে সন্ত্রাসী সম্রাট খুনের পর মুখ খুলতে শুরু করেছেন এলাকাবাসী। সম্রাট এবং তার বড় ভাই জুয়েল দুজনই দুর্ধষ প্রকৃতির সন্ত্রাসী। তাদের ভয়ে সাবগ্রাম ও তার আশেপাশের গ্রামের মানুষ অতিষ্ঠ ছিলেন।

সাবগ্রাম হাট কেন্দ্রীয় সার্বজনীন দুর্গা মন্দির কমিটির সভাপতি বগুড়া পৌরসভার ৩ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর তরুণ চক্রবর্তী বার্তা২৪.কম’কে বলেন, কিছুদিন আগে সম্রাট তার কাছেও ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাব করেছিল।

সাবগ্রাম হাটের কয়েকজন ব্যবসায়ী স্বস্তি প্রকাশ করে বলেন,মাঝে মধ্যেই তাদের কাছে নানা অজুহাতে চাঁদা নিত সম্রাট। দীর্ঘদিন ধরে তার এই চাঁদা বাজী চলে আসলেও ভয়ে কেউ পুলিশের কাছে অভিযোগ করতো না। রবিবার রাতে সম্রাট খুন হওয়ার পর এখন অনেকই মুখ খুলছেন। আর একারনেই স্থানীয় লোকজন মিষ্টি বিতরণ করে স্বস্তি প্রকাশ করেন।

এদিকে সম্রাট খুনের পর থানা ও ডিবি পুলিশ অভিযান অব্যাহত রেখেছেন সোমবার বিকেল পর্যন্ত কেউ গ্রেফতার হয়নি।

উল্লেখ্য, রবিবার রাত ১ টার দিকে সাবগ্রাম কেন্দ্রীয় সার্বজনীন দুর্গা মন্দির চত্বরে একই এলাকার সন্ত্রাসী সম্রাট দাসকে কুপিয়ে খুন করে দুর্বৃত্তরা।

বগুড়া সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) হুমায়ুন কবীর বার্তা২৪.কম’কে বলেন, ময়না তদন্ত শেষে মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে এখন মামলা দেয়া হয়নি। তবে জড়িতদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।