কুমিল্লায় ইটভাটার শ্যালো মেশিনে প্রাণ গেল কলেজ ছাত্রীর



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, কুমিল্লা
ইটভাটার শ্যালো মেশিনে প্রাণ গেল কলেজ ছাত্রীর। ছবি: বার্তা২৪.কম

ইটভাটার শ্যালো মেশিনে প্রাণ গেল কলেজ ছাত্রীর। ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে মদিনা ব্রিকস ম্যানুফেকচারিং নামে একটি ইটভাটার পানি সেচের ইঞ্জিন চালিত শ্যালো মেশিনের সাথে ওড়না পেঁচিয়ে আসমাউল হুসনা ফারিহা (১৯) নামে এক কলেজ ছাত্রীর মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে।

সোমবার বিকেলে উপজেলার মালিপাড়া-অলিপুর এলাকায় ওই ইভাটার সামনে এ ঘটনা ঘটে। ফারিয়া উপজেলার রায়কোট দক্ষিণ ইউনিয়নের মালিপাড়া গ্রামের মোশারফ হোসেনের মেয়ে। সে পাশের হেসাখাল সুহৃদ একে কলেজ অব সাইন্স এন্ড টেকনোলজিতে একাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী।

স্থানীয়রা জানায়, চট্টগ্রাম থেকে ফারিহার চাচা নাছির উদ্দিনের বাড়ি এসেছেন। এই খবর পেয়ে সোমবার বিকেলে ফারিহা তার নানান বাড়ি উপজেলার রায়কোট উত্তর ইউনিয়নের ছুপুয়া গ্রাম থেকে বাবার বাড়ি উপজেলার রায়কোট দক্ষিণ ইউনিয়নের মালিপাড়া গ্রামে যাচ্ছিলো। পথিমধ্যে ছুপুয়া-অলিপুর সড়ক পার হওয়ার সময় সড়ক সংলগ্ন মদিনা ব্রিকস ম্যানুফেকচারিংয়ের লোকজন একটি ইঞ্চিন চালিত শ্যালো মেশিন দিয়ে ইটভাটার পানি সেচ করছিল। শ্যালো মেশিন দিয়ে পানি সেচ করার কারণে সড়কের মাটি সরে যাওয়ায় সড়ক পার হতে না পেরে ফারিয়া চলন্ত শ্যালো মেশিনের পাশ দিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। এ সময় শ্যালো মেশিনের সাথে ওড়ানা পেঁচিয়ে শ্বাসরোধ হয়ে ঘটনাস্থলেই ফারিহার মৃত্যু হয়।

এদিকে, এই ঘটনার পর থেকে ইটভাটার ম্যানেজার মো. নাছির পলাতক রয়েছেন বলে জানা গেছে।

নাঙ্গলকোট থানার ওসি বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী বলেন, ভিকটিমের পক্ষ থেকে লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। মেয়েটির লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হবে। ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পাওয়া গেলে তদন্ত সাপেক্ষে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।