আড়াই কোটি টাকা রাজস্ব ফাঁকি দিয়েছে গুলশানের ‘দ্য মিরাজ’



নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
গুলশানের ‘দ্য মিরাজ’। ছবি: সংগৃহীত

গুলশানের ‘দ্য মিরাজ’। ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

রাজধানীর অভিজাত এলাকা গুলশানের দ্য মিরাজ নামের রেস্টুরেন্ট ও সিসা বারটি ভ্যাট ফাঁকি ও সুদ মিলিয়ে রাজস্ব ফাঁকির পরিমাণ আড়াই কোটি টাকা।

সোমবার (৭ ডিসেম্বর) প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে মামলা করেছে ভ্যাট গোয়েন্দা অধিদফতর।

জানা যায়, আট বছরে সোয়া ৯ কোটি টাকার বিক্রি গোপন করেছে প্রতিষ্ঠানটি। অথচ গ্রাহকদের কাছ থেকে ভ্যাট নিয়ে তা সরকারি কোষাগারে জমা দেয়নি।

গত ১২ নভেম্বর গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ভ্যাট গোয়েন্দারা গুলশানের ৩ নম্বর সড়কের ৯/এ তে অবস্থিত দ্য মিরাজ রেস্টুরেন্ট ও সিসা বারে অভিযান চালান। প্রতিষ্ঠানটির মূসক নিবন্ধন অনুযায়ী ব্যবসায়িক নাম দ্য ফ্রেন্ডস হাউস লিমিটেড।

ভ্যাট গোয়েন্দা অধিদফতরের উপপরিচালক তানভীর আহমেদ ও সহকারী পরিচালক মুহাম্মদ মহি উদ্দিন ওই ভ্যাট গোয়েন্দা দলের নেতৃত্ব দেন। সেখানে গিয়ে তাঁরা কাগজপত্র জব্দ করেন। এর পাশাপাশি ১৫ কেজি সিসা ও সিসা পরিবেশনের নানা সামগ্রী আটক করা হয়। এসব পণ্য আমদানির কোনো বৈধ কাগজপত্র দেখাতে পারেনি রেস্টুরেন্ট কর্তৃপক্ষ। রেস্টুরেন্টের আড়ালে প্রতিষ্ঠানটি সিসা বার চালাচ্ছে।

জব্দকৃত কাগজপত্র পরীক্ষা–নিরীক্ষা করে ভ্যাট গোয়েন্দারা দেখেন, ২০১৩ সালের জুলাই থেকে ২০২০ সালের অক্টোবর পর্যন্ত ৯ কোটি ৩৩ লাখ টাকার বিক্রির তথ্য গোপন করেছে রেস্টুরেন্ট কর্তৃপক্ষ। শুধু বিক্রির ওপর ১ কোটি ৪০ লাখ টাকার ভ্যাট ফাঁকির তথ্য উদ্‌ঘাটন করেছে। আজ এই অভিযোগে ঢাকা উত্তর কমিশনারেটের অধীন নিবন্ধিত প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে ভ্যাট আইনে মামলা করা হয়।

ভ্যাট আইন অনুসারে, এই ফাঁকি দেওয়া ভ্যাটের ওপর মাসভিত্তিক ২ শতাংশ হারে ৯৮ লাখ টাকা সুদ প্রযোজ্য। এছাড়া সিসা বারটি বিভিন্ন সেবা ক্রয়ের ওপর ৮ লাখ ৪০ লাখ টাকা উৎসে ভ্যাট ফাঁকির সঙ্গে জড়িত। এর ওপর মাসভিত্তিক ২ শতাংশ হারে সুদ ৭ লাখ ৮৮ হাজার টাকা প্রযোজ্য।

উল্লেখ্য, রাজধানীতে ৫০টির বেশি সিসা বার আছে বলে জানিয়েছেন ভ্যাট গোয়েন্দারা।