ভূমিমন্ত্রীর নির্দেশে দ্রুত শুরু হচ্ছে ডিজিটাল ভূমি জোনিং প্রকল্প



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী

ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী

  • Font increase
  • Font Decrease

ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরীর নির্দেশে দ্রুত শুরু হচ্ছে ‘মৌজা ও প্লট-ভিত্তিক জাতীয় ডিজিটাল ভূমি জোনিং প্রকল্প’।

এর জন্য বুধবার (১৩ জানুয়ারি) ভূমি মন্ত্রণালয় কর্তৃক বাস্তবায়নাধীন মৌজা ও প্লট-ভিত্তিক জাতীয় ডিজিটাল ভূমি জোনিং প্রকল্পের অধীনে স্থানীয় ব্যক্তিভিত্তিক পরামর্শক হিসেবে প্রকল্প মেয়াদকালীন চুক্তিভিত্তিক নিয়োগের জন্য যোগ্যতা ও অভিজ্ঞতা সম্পন্ন বাংলাদেশি নাগরিকদের নিকট হতে দরখাস্ত আহ্বান করে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে।

কৃষি জমি সুরক্ষায় প্রায় ৩৩৭.৬০ কোটি টাকা প্রাক্কলিত ব্যয়ে ‘মৌজা ও প্লটভিত্তিক জাতীয় ডিজিটাল ভূমি জোনিং প্রকল্প’ গত ২৯ সেপ্টেম্বর শেরেবাংলা নগরের এনইসি ভবনে একনেক চেয়ারপারসন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্ব অনুষ্ঠিত জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির সভায় অনুমোদিত হয়। জনস্বার্থে প্রকল্পটির গুরুত্বের কারণে পরে ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী প্রকল্পটি দ্রুত ও সফলভাবে শুরু করার নির্দেশনা দেন। ফলে মো. মোস্তাফিজুর রহমান পিএএ এ প্রকল্পে পরামর্শক নিয়োগের কাজটি শুরু করার উদ্যোগ গ্রহণ করেন।

এই প্রকল্পের মাধ্যমে ভূমির গুণাগুণ অনুযায়ী ভূমিকে প্লটওয়ারী কৃষি, আবাসন, বাণিজ্যিক, পর্যটন ও শিল্প উন্নয়ন ইত্যাদি ক্যাটাগরিতে বিভক্ত করে মৌজা ও প্লটভিত্তিক ডিজিটাল ভূমি জোনিং ম্যাপ ও ভূমি ব্যবহার পরিকল্পনা প্রণয়ন করা হবে। মাঠ পর্যায়ে সুষ্ঠু ভূমি ব্যবস্থাপনার নিমিত্ত সারাদেশে মৌজা ও প্লটভিত্তিক ডাটাবেইজ প্রণয়নও করা হবে একই সাথে।

প্রকল্পটির মাধ্যমে প্লট নম্বর এবং প্লটভিত্তিক বিস্তারিত তথ্যাদি ভূমি জোনিং মানচিত্রে সন্নিবেশিত করা হবে যেন জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের ভূমি প্রশাসনের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তাগণ এই তথ্য ব্যবহার করে অপ্রতুল ভূমি সম্পদের যথাযথ ব্যবহার করে দেশের ভূমি সম্পদ সংরক্ষণে যথাযথ ভূমিকা রাখতে পারেন।

উল্লেখ্য, দেশে কৃষি জমির পরিমাণ মোট জমির ৮৪ শতাংশ। তবে জনসংখ্যা বৃদ্ধির সাথে সাথে নতুন আবাসন, রাস্তাঘাট, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সহ বিভিন্ন অবকাঠামো নির্মাণের জন্য কৃষি জমি ব্যবহারের ফলে কৃষি জমির পরিমাণ প্রতিনিয়ত হ্রাস পাচ্ছে। কৃষি জমি সুরক্ষা ও সর্বোপরি দেশের সামগ্রিক খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণে ভূমির যথাযথ ব্যবহার অপরিহার্য। প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে দেশের কৃষি জমি সুরক্ষায় একটি গুরুত্বপূর্ণ মাইলফলক অর্জিত হবে। দেশের অপ্রতুল ভূমি সম্পদের সর্বোত্তম ব্যবহার নিশ্চিত করাই প্রকল্পটির মূল লক্ষ্য।

টিম লিডার/চিফ টেকনিক্যাল এক্সপার্ট সহ মোট আট ধরনের পদে পরামর্শক হিসেবে চুক্তিভিত্তিক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। আগামী ২ ফেব্রুয়ারি মধ্যে নির্ধারিত ছকে ভূমি মন্ত্রণালয়ের সচিব বরাবর আবেদন করার কথা বলা হয়েছে বিজ্ঞপ্তিতে। বিস্তারিত তথ্য ভূমি মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটের নোটিশ বোর্ডে (www.minland.gov.bd) পাওয়া যাবে।