চুয়াডাঙ্গায়  টাপেন্টাডল ট্যাবলেটসহ ঔষধ কোম্পানির প্রতিনিধি আটক



নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

নিষিদ্ধ টাপেন্টাডল গ্রুপের একহাজার ট্যাবলেটসহ ঔষধ প্রস্ততকারী প্রতিষ্ঠান টেকনো ড্রাগের চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি খোরশেদ আলমকে আটক করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (১৪ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় আলমডাঙ্গা উপজেলার মুন্সিগঞ্জ থেকে তাকে আটক করে পুলিশ। এ সময় তার মোটরসাইকেলে বহন করা ঔষধ কোম্পানি হেলথ কেয়ারের টাপেন্টাডল গ্রুপের সিনটা নামের ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়।

আটক খোরশেদ আলম কুষ্টিয়া জেলা খোকশা থানার সন্তোশপুর গ্রামের মৃত মোবারক আলীর ছেলে ও ঔষধ প্রস্ততকারী প্রতিষ্ঠান টেকনো ড্রাগের চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি।

পুলিশ জানায়, টেকনো ড্রাগের চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি খোরশেদ আলম চুয়াডাঙ্গা থেকে নিষিদ্ধ টাপেন্টাডল গ্রুপের ঔষধ গোপনে এনে দীর্ঘদিন ধরে আলমডাঙ্গার অসাধু ঔষধ ব্যবসায়ীদের কাছে বিক্রি করে আসছিল। ব্যবসায়ীরা কম দামের সেই ঔষধ মাদকসেবীদের কাছে চড়া দামে বিক্রি করছিলো।

বৃহস্পতিবার গোপন সংবাদে পুলিশ জানতে পারে চুয়াডাঙ্গা থেকে খোরশেদ এক হাজার পিচ নিষিদ্ধ টাপেন্টাডল ট্যাবলেট আলমডাঙ্গায় নিয়ে আসবে। পুলিশ খোরশেদকে ধরতে মুন্সিগঞ্জে অবস্থান নেয়।

সন্ধ্যায় পুলিশের একটি দল মুন্সিগঞ্জ বাজার খোরশেদ মোটরসাইকেল চালিয়ে আলমডাঙ্গায় আসার সময় পুলিশ তাকে গতিরোধের চেষ্টা করে। এ সময় খোরশেদ পালানোর চেষ্টা করে। পরে পুলিশ খোরশেদকে আটক করে। মোটরসাইকেলে রাখা উপহার সামগ্রীর ব্যাগে এক হাজার পিচ নিষিদ্ধ টাপেন্টাডল ট্যাবলেট পাওয়া যায়।

পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে খোরশেদ জানায়, সে ঢাকা থেকে কুরিয়ারের মাধ্যমে এই ট্যাবলেট সংগ্রহ করে আলমডাঙ্গাসহ বিভিন্ন অঞ্চলে সরবরাহ করে আসছিল।

আলমডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আলমগীর কবীর ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।