বকাঝকা করায় ম্যানেজারকে খুন, গ্রেফতার ১



ডিস্ট্রিক্ট করেপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
গ্রেফতার এছব আলী

গ্রেফতার এছব আলী

  • Font increase
  • Font Decrease

কারখানায় কাজের সময় শ্রমিক এছব আলীকে প্রায় সময় বকাঝকা করতেন মিরসরাইয়ের সিপি বাংলাদেশ কোম্পানি লিমিডেটের ব্যবস্থাপক মোহাম্মদ আতাউল হাকিম। তবে বিষয়টিকে সহজে মেনে নিতে পারেননি এছব। এরপরই আতাউল হাকিমকে হত্যা করার পরিকল্পনা করেন তিনি।

পরিকল্পনা অনুযায়ী গত ১৩ জানুয়ারি সন্ধ্যায় উপজেলার দুর্গাপুরে আতাউল হাকিমকে মাথায় রড দিয়ে আঘাত করেন এছব আলী। মৃত্যু নিশ্চিত ভেবে পালিয়ে যায় সে। তবে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন আতাউল।

পরবর্তীতে গত ১৫ জানুয়ারি আতাউল হাকিমের ভাই আরিফুল ইসলাম বাদি হয়ে অজ্ঞাতনামা আসামীর বিরুদ্ধে একটি জোরারগঞ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

গত ২১ জানুয়ারি রাতে রংপুরের হাজিরহাট জগদ্বীশপুর এলাকায় একটি বাড়িতে অভিযান চালিয়ে এছবকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃত এছব আলী ওই এলাকার মো. কাদের আলীর ছেলে।

২২ জানুয়ারি চট্টগ্রামে ম্যাজিস্ট্রেট হেলাল উদ্দিনের আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে এছব আতাউল হাকিমকে হত্যার কথা স্বীকার করেছেন।

জোরারগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. নুর হোসেন মামুন বলেন, সিপির ম্যানেজার আতাউল হাকিম খুনের ঘটনার পরপরই আমরা তদন্ত শুরু করি। এরপর ৯ দিনের মধ্যে রংপুর জেলার জগদ্বীশপুর এলাকায় তার খালার বাড়ি থেকে এছব আলীকে গ্রেফতার করা হয়।

আসামি জানায়, ফ্যাক্টরিতে কাজ করা নিয়ে ম্যানেজার আতাউল তাকে বিভিন্ন সময়ে বকাঝকা করতেন। এতে দীর্ঘদিন ধরে তার উপর এছবের ভীষণ ক্ষোভ সৃষ্টি হয়। ঘটনার দিন এছব তার কাছে সাবান ও হুইল পাউডার চাইলে সেদিনও তাকে বকাঝকা শুনতে হয়। এতে আরও চটে গিয়ে তিনি তাকে মারার জন্য হাতে লোহার রড নিয়ে ঘটনার দিন সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার সময় ফ্যাক্টরির ভিতরে তুষের গোডাউনের পূর্ব পাশে ওত পেতে থাকে এবং সন্ধ্যা পৌনে সাতটার দিকে ম্যানেজার ওই পথ দিয়ে যাওয়ার সময় পিছন থেকে রড দিয়ে ম্যানেজারের ডান কান বরাবর মাথায় আঘাত করে।ম্যানেজার রাস্তার উপর পড়ে গেলে সে মাথায় এবং হাতে আরও দুটি আঘাত করে। এতে ম্যানেজার অজ্ঞান হয়ে পড়লে সে তাকে তুষের গোডাউনের পিছনে রেখে পালিয়ে যায়।

ওসি মামুন আরো বলেন, ২২ জানুয়ারি আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে এছব খুন করার বিষয়টি স্বীকার করেছেন। তিনি একাই খুনের সাথে জড়িত বলে জানিয়েছে। তারপরও আরো কেউ জড়িত রয়েছে কি না আমরা বিভিন্ন কললিস্ট চেক করে দেখছি।