বগুড়ায় আ.লীগ-যুবলীগের ৫ শতাধিক নেতাকর্মীর নামে ৩ মামলা



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, বগুড়া
বগুড়ায় আ.লীগ-যুবলীগের ৫ শতাধিক নেতাকর্মীর নামে মামলা

বগুড়ায় আ.লীগ-যুবলীগের ৫ শতাধিক নেতাকর্মীর নামে মামলা

  • Font increase
  • Font Decrease

বগুড়ায় মোটর মালিক গ্রুপের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে সরকার দলীয় দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় আওয়ামী লীগ-যুবলীগের পাঁচ শতাধিক নেতাকর্মীর নামে পৃথক তিনটি মামলা হয়েছে।

বুধবার (১০ ফেব্রুয়ারি) বগুড়ার সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) হুমায়ুন কবীর এতথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে মটর মালিক গ্রুপের এক পক্ষের ডাকে পরিবহন ধর্মঘট আংশিক পালিত হচ্ছে। বগুড়ার চারমাথা কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল চত্বরে সকাল থেকেই বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। একপক্ষ পরিবহন ধর্মঘট আহ্বান করায় চারমাথা কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল থেকে কোন বাস ছেড়ে যায়নি। তবে বগুড়ার ওপর দিয়ে ঢাকাসহ দূরপাল্লার বাস চলাচল অব্যাহত রয়েছে। এছাড়াও অন্যান্য যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে।

এদিকে মঙ্গলবার (৯ ফেব্রুয়ারি) চারমাথা বাসটার্মিনাল চত্বরে দুই পক্ষের সংঘর্ষের সময় পুলিশ কনস্টেবল রমজান আলীকে ছুরিকাঘাতসহ সরকারি কাজে বাধা প্রদানের অভিযোগে পুলিশ পরিদর্শক নান্নু খান বাদী হয়ে জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মঞ্জুরুল আলম মোহনসহ ৬ জনের নাম উল্লেখ করে আড়াইশ নেতাকর্মীর নামে মামলা করা হয়েছে।

অপরদিকে মটর মালিক গ্রুপের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও যুবলীগ নেতা আমিনুল ইসলাম বাদী হয়ে তার অফিস ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের অভিযোগ এনে আওয়ামী লীগ নেতা মঞ্জুরুল আলম মোহনকে প্রধান আসামি করে ৫২ জনের নাম উল্লেখ করে দেড় শতাধিক নেতা কর্মীর নামে আরেকটি মামলা করেছেন।

এছাড়াও মঞ্জুরুল আলম মোহনের পক্ষে তার ছোট ভাই মশিউল আলম দীপন বাদী হয়ে পেট্রল পাম্প ভাঙচুর, বাস ভাঙচুরের অভিযোগে আমিনুল ইসলামকে প্রধান আসামি করে শতাধিক নেতা কর্মীর নামে আরেকটি মামলা দায়ের করেছেন।