আটক ঠেকাতে বদলে ফেলা হয়েছে সেই জাহাজটির রং!



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

নারায়ণগঞ্জের শীতলক্ষ্যায় লঞ্চ এমভি সাবিত আল হাসানকে ধাক্কা দিয়ে ডুবিয়ে দেওয়া এসকেএল-৩ কার্গো জাহাজটি আটক করা হয়েছে। তবে আটক ঠেকাতে বদলে ফেলা হয়েছে জাহাজটির রং।

বৃহস্পতিবার (০৮ এপ্রিল) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে মুন্সিগঞ্জের গজারিয়ায় নোঙর করা অবস্থায় ওই কার্গো জাহাজটি আটক করে কোস্টগার্ড। এ সময় কার্গোর চালকসহ কয়েকজনকে আটক করা হয়।

কোস্টগার্ড পাগলা স্টেশনের কমান্ডার লেফটেন্যান্ট আশমাদুল ইসলাম জানিয়েছেন, আজ দুপুরে গজারিয়া এলাকা থেকে কার্গো জাহাজ ‘এমভি-এসকেএল-৩’ আটক করেছে কোস্ট গার্ড। জাহাজের কয়েকজন স্টাফকেও আটক করা হয়েছে। তবে এ বিষয়ে সন্ধ্যায় ব্রিফ করবে কোস্ট গার্ড।

তিনি বলেন, মঙ্গলবার রাতে বন্দর থানায় এ ঘটনায় একটি মামলা হয়েছে। সেহেতু তদন্তের জন্য কার্গো জাহাজটি মামলার তদন্তকারী সংস্থা নৌ পুলিশকে হস্তান্তর করা হবে। তারা এ বিষয়ে পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করবে।

সরেজমিনে দেখা যায়, জাহাজটির রং বদলে ফেলা হয়েছে। কারণ আগে যে জাহাজটির বেশির ভাগ অংশ নীল রং ছিল, বর্তমানে সে নীলের স্থলে ধূসর রং করা হয়েছে। তবে জাহাজটির বিভিন্ন অংশে প্রলেপ দেওয়া ধূসর রংয়ের মাঝেও আগের নীল রংয়ের চিহ্ন দেখা যায়।

প্রসঙ্গত, গত ৪ এপ্রিল (রোববার) সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে সৈয়দপুর কয়লাঘাট এলাকায় কার্গো জাহাজ ধাক্কা দিয়ে ‘সাবিত আল হাসান’ নামে লঞ্চটি ডুবিয়ে দিয়ে পালিয়ে যায়। এসময় সাঁতরে ১৫ থেকে ২০ জন তীরে উঠতে পারলেও নিখোঁজ ছিল ৩৬ জন। পরে রোববার রাত থেকে মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত ৩৪ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এখনও নিখোঁজ দুই জন। এ ঘটনায় জেলা প্রশাসন, বিআইডব্লিউটিএ ও নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয় পৃথক তিনটি তদন্ত কমিটি গঠন করে। তদন্ত কমিটিকে ৭ কার্যদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়।